• সকাল ১০:৩৭ মিনিট শুক্রবার
  • ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁও জাদুঘরের কারুশিল্পীদের দোকান বরাদ্দে উচ্চ আদালতে রিট ২ কোটি টাকা ব্যয়ে ওয়াটার সাপ্লাই পাইপের উদ্ধোধন সোনারগাঁয়ে ৭ হাজার ৭ শত পিস ইয়াবাসহ আটক ৩ ভোটারদের স্মার্ট কার্ড তুলে দিলেন চেয়ারম্যান শিপলু মাসব্যাপী লোকজ ও মেলা নিয়ে মত বিনিময় সভা আবারও চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হত্যা মামলায় জড়ানোর অভিযোগ চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসা যন্ত্রণাদায়ক: জয়া বুধবার ১০ জনের নমুনা পরিক্ষায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে বান্ধবীর সহায়তায় কিশোরীকে ধর্ষণ, বান্ধবী গ্রেপ্তার আল- মোস্তফা গ্রুপের জমি দখলের অভিযোগ আনন্দ শিপ ইয়ার্ডের বিরুদ্ধে টেকনাফে নারায়নগঞ্জের পর্যটকের লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত নয়াগাঁও’য়ে সংষর্ঘের ঘটনায় আলী আহম্মেদ নামে আরেক জনের মৃত্যু ইজিবাইক ডাম্পিং দেয়ায় ছুরি চালিয়ে চালকের আত্মহত্যার চেষ্টা না.গঞ্জেও সংসার ছিল ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রীর জিন্নাহ এর উদ্যোগে সনমান্দীতে ভাষা সৈনিকদের সংবর্ধণা ও স্মৃতিচারণ সোনারগাঁয়ে সমাজ সেবা ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু নয়াগাঁওয়ের সংঘর্ষের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের মান্নানের পক্ষে আল-মুজাহিদ মল্লিক ও মাসুমের উদ্যোগে জেলায় একুশের র‌্যালী
পরিচয়সহ সোনারগাঁয়ের রাজাকারদের তালিকা

পরিচয়সহ সোনারগাঁয়ের রাজাকারদের তালিকা

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ  ইতিহাসবিদ মুনতাসীর মামুন সম্পাদিত মুক্তিযুদ্ধ কোষের তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম খন্ডে এবং রীতা ভৌমিক তার মুক্তিযুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ বইতে ১৯৭১ এ নারায়ণগঞ্জে স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার, আল বদর, আল শামস, মুজাহিদ, শান্তি কমিটির সদস্য, রাজনৈতিক নেতা কর্মী সবাইকে এক কথায় যারাই মুক্তিযুদ্ধে বিরোধিতা করেছে তাদেরই অন্তর্ভুক্ত করেছেন। সেই সময়কার অনেক রাজাকার ও তাদের বংশধররা আজ রাজনীতিতে, সামাজিকভাবে প্রতিষ্ঠিত। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ভূমিকায় ছিলেন- এ এস এম সোলায়মান, এম. এ জাহের, খোদা বখস ভূঁইয়া, গুল বখস ভূঁইয়া, মজিবর ভুইয়া, সফর আলী ভুইয়া, গোলাম রব্বানী খান, আব্দুল বাসেত প্রমুখ

এ এস এম সোলায়মান

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানা বৈদ্যেরবাজার গ্রামের (ইউনিয়ন বৈদ্যেরবাজার) বাসিন্দা এ এস এম সোলায়মান। তাঁর বাবার নাম মোহাম্মদ জোনাব আলী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটিরসভাপতি ছিলেন। একাত্তরের মালেক মন্ত্রীসভার শ্রম, সমাজ কল্যাণ ও পরিবার পরিকল্পনা দফতরের মন্ত্রী ও জেলা সমন্বয় কমিটির সভাপতি ছিলেন।

আব্দুল মন্নাফ ভুইয়া

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার (জামপুর ইউনিয়ন) বাসিন্দা আব্দুল মন্নাফ ভূইয়া। তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।

আব্দুল মান্নান তালুকদার

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার মুসারচর গ্রামের (ইউনিয়ন জামতলি) বাসিন্দা আব্দুল মান্নান। তাঁর বাবার নাম চান্দে আলী ভূঁইয়া। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার ছিলেন।
আব্দুল রব মিলকী

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার (ইউনিয়ন বারদী) বাসিন্দা আব্দুর রব মিলকী। তার বাবার নাম আব্দুর রহিম বখশ মিলকী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।
আবুল কাশেম

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার গোয়ালদী গ্রামের (ইউনিয়ন আমিনপুর) বাসিন্দা আবুল কাশেম। মুক্তিযুদ্ধের সময় শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।
আব্দুল কুদুস
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার হাতুরাপাড়া গ্রামের (ইউপি, জামপুর) বাসিন্দা আব্দুল কুদ্দুস। মুক্তিযুদ্ধের সময় রাজাকার বাহিনীর সদস্য ছিলেন।
আনোয়ারা
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার কাঁচপুর গ্রামের (ইউনিয়ন কাঁচপুর) বাসিন্দা আনোয়ারা। মুক্তিযুদ্ধের সময় রাজাকার ছিলেন।
আলাউদ্দিন
আলাউদ্দিন সোনারগাঁ থানার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের বাসিন্দা শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান।
এম. এ জাহের
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার (ইউনিয়ন শম্ভুপুরা) শম্ভুপুরা গ্রামের এম এ জাহের ছিলেন থানার একজন সাধারণ সম্পাদক। মুক্তিযুদ্ধের সময় শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।
ওদুদ মিয়া
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার হাতুরপাড়া গ্রামের (ইউপি, জামপুর) বাসিন্দা ওদুদ মিয়া। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার ছিলেন।
গফুর সরকার
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার (ইউনিয়ন সমান্দী) গ্রামের বাসিন্দা গফুরা সরকার। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।
জমির আলী কেরানি
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার ভবনাথপুর গ্রামের বাসিন্দা জমির আলী কেরানি। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার বাহিনীর সদস্য ছিলেন।

টেক্কা সামসু

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার হাতকুপা গ্রামের বাসিন্দা টেক্কা সামসু। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার বাহিনীর সদস্য ছিলেন।

ধনু

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানা পাকুন্দিয়া গ্রামের (ইউনিয়ন জামপুর) বাসিন্দা ধনু। তাঁর বাবার নাম মইজউদ্দিন শিকদার। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি আলবদর বাহিনীর সদস্য ছিলেন।

বাখর আলী

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার (ইউনিয়ন সাদিপুর) বাসিন্দা বাখর আলী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি ছিলেন শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান।

বোরহান মাস্টার

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার চরলাল গ্রামের বোরহানমাস্টার ছিলেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন প্রধান শিক্ষক। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির সদস্য ছিলেন।

মোয়েজ উদ্দীন দফাদার

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার হামছাদি গ্রামের (ইউনিয়ন বৈদ্যেরবাজার) ময়েজ উদ্দীন দফাদার ছিলেন একজন চৌকিদার। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার ছিলেন।

রফিকুল ইসলাম

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।

সাহাবুদ্দীন ভূঁইয়া

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার আলমজি গ্রামের শাহাবুদ্দিন ভূঁইয়া ছিলেন মুসলিম লীগের একজন সদস্য। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার ছিলেন।

সিরাজুল ইসলাম

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁ থানার হাতুরাপাড়া গ্রামের (ইউপি জামপুর) সিরাজুল ইসলাম ছিলেন একজন কাঁচামালের ব্যবসায়ী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার ছিলেন।

হেলাল উদ্দিন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার ভরগাও গ্রামের (ইউনিয়ন সাদিপুর) হেলালউদ্দিন ছিলেন মুসলিম লীগের একজন কর্মী । মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তিকমিটির সদস্য ছিলেন।

হোসেন খাঁ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার (ইউনিয়ন কাঁচপুর) বাসিন্দা হোসেন খাঁ মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।

মহিউদ্দিন মোল্লা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানা বৈদ্যেরবাজার গ্রামের (ইউনিয়ন বৈদ্যেরবাজার) বাসিন্দা মহিউদ্দিন মোল্লা। তাঁর বাবার নাম মোহাম্মদ জোনাব আলী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির সদস্য ছিলেন।

রাজা মৌলভী

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানা আমিনপুরের বাসিন্দা রাজা মৌলভী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ছিলেন থানার সাংগঠনিক সম্পাদক।

নাসির উদ্দিন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার নোয়াগাও ইউনিয়নের বাসিন্দা নাসির উদ্দিন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটিরচেয়ারম্যান ছিলেন।

সামসুল হক খান

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের বাসিন্দা সামসুল হক খান। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।

বাহর আলী

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানা বরগা গ্রামের (ইউনিয়ন সাদিপুর) বাসিন্দা বাহর আলী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি শান্তি কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি ছিলেন মুসলিম লীগের কর্মী।

গদাধর ঘোষ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানা নোয়াপুর গ্রামের (ইউনিয়ন সাদিপুর) বাসিন্দা গদাধর ঘোষ। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার ছিলেন। তথ্য সুত্র: প্রেস নানায়ণগঞ্জ


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution