• রাত ১২:১৬ মিনিট সোমবার
  • ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
পিরোজপুর ইউপি’র উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দিবো.. ইঞ্জি: মাসুম নতুন পুরাতনের সমন্বয়ে ইউপি নির্বাচন, প্রতি ইউপিতে বিদ্রোহীদের সম্ভবনা কলেজ সরকারি করার দাবিতে মানববন্ধন করেন সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় কারো দেহে করোনা সনাক্ত হয়নি। নিউজ সোনারগাঁ সোনারগাঁয়ে ৮ ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা ধামগড়ে নৌকার মাঝি চেয়ারম্যান মাসুমের পক্ষে গণজোয়ার রূপগঞ্জে নাতিনকে ধর্ষনের পর হত্যার অভিযোগ নানার বিরুদ্ধে স্মার্টফোন কেনার জন্য স্ত্রীকে বৃদ্ধের কাছে বিক্রি সোনারগাঁয়ে ১লাখ মিটার জাল জব্দ তিন জনকে জরিমানা এক বছরের কারাদণ্ড এড়াতে প্রায় ২৩ বছর আত্মগোপনে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে প্রার্থীর তালিকা, প্রধানমন্ত্রী কাছে সাবেক এমপি’র নালিশ সোনারগাঁয়ে নতুন করে ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁ মদ্যপানে যুবকের মৃত্যু সন্তানকে বাঁচাতে কুমিরকে পিষে দিল হাতি, ভিডিও ভাইরাল মনোনয়ন টেনশনে নৌকা প্রার্থীরা ব্রিটেন যাচ্ছেন মিজানুর রহমান আজহারী মুশফিক-লিটনকে নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই দলে পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার কথা ‘স্বীকার করেছেন’ ইকবাল সোনারগাঁয়ে ফেনসিডিলসহ আটক ৪ সোনারগাঁয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিতে পালিত হচ্ছে লক্ষ্মী পূজা
সাড়ে চার বছরেও খোঁজ মেলেনি কাচঁপুরের ব্যবসায়ী ইসমাঈলের

সাড়ে চার বছরেও খোঁজ মেলেনি কাচঁপুরের ব্যবসায়ী ইসমাঈলের

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম: 

সোনারগাঁ উপজেলার কাঁচপুর কুতুবপুর এলাকার ব্যবসায়ী ইসমাঈল অপহরনের সাড়ে চার বৎসর অতিবাহিত হলেও তার কোন সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ। স্থানীয় প্রশাসন তার কোন সন্ধান দিতে না পারায় প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসীরা। ওই ব্যবসায়ীর অপহরনের সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে জানান এলাকাবাসী ও অপহৃতের পরিবারের সদস্যরা ।

মামলার বিবরনীতে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৭ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মাইক্রোবাস থামিয়ে ফিল্মি স্টাইলে ইসমাইল হোসেনকে অপহরন করা হয়। ওই ঘটনায় ইসমাইলের ছোট ভাই মান্নান মিয়া ৯ ফেব্রুয়ারী বাদি হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন। এর পর একই বছরের ১২ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট-কে এম মহি উদ্দিনের আদালতে র‌্যাব-১১ এর চাকুরীচুত্য তিন র‌্যাব কর্মকর্তা ও ছাত্রলীগ নেতা নুরে আলম খান, আজিজুর রহমান, নাজমুল হক, আবুল হোসেন, আব্দুল কাদির, আনোয়ারুল মিয়া, শরীফ পারভেজ, শামিম মিয়া, মনির হোসেন সহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন তার ভাই মান্নান মিয়া। পরে বিচারক মামলা আমলে নিয়ে তদন্ত করে সেভেন মার্ডারের ঘটনায় প্রতিবেদনের সঙ্গে এ অপহরন মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দিতে গোয়েন্দা পুলিশকে (ডিবি) নির্দেশ দেন।

মামলার বাদি অপহৃতের ছোট ভাই মান্নান মিয়ার দাবি, আমার ভাই ইসমাঈল হোসেন অপহরনের সাড়ে চার বছর পেরিয়ে গেলেও তার কোন সন্ধান দিতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন। প্রশাসনের ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, প্রশাসনের দায়িত্ব হীনতার কারণেই আমার ভাইয়ের কোন সন্ধান পায়নি আমরা। আমার ভাই জীবিত থাকলে তাকে অক্ষত অবস্থায় ফেরত দেওয়ার দাবী জানান তিনি। এই ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। তিনি বলেন, মামলাটি বর্তমানে সিআইডি পুলিশ তদন্ত করছে। আশা করি আমরা এর ন্যায় বিচার পাব।

তিনি আরো জানান, সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক হাজ্বী নুরে আলম খান, তার সহযোগী ছাত্রলীগ কর্মী আব্দুল কাদির, শামীম মিয়া কাচঁপুর কুতুবপুর এলাকায় আমার ভাই ইসমাইলের নিয়ন্ত্রনাধীন ১০/১৫টি শিল্পকারখানার ব্যবসা নিয়েই নূর আলমের সাথে আমার ভাইয়ের ব্যবসায়িক দন্ধ শুরু হয়। এর এক সপ্তাহ মধ্যেই আমার ভাই ইসমাইল হোসেনকে অপহরন করে গুম করা হয়েছে। আমার ভাইয়ের মামলার প্রধান অভিযুক্ত আসামী নূরে আলম খান প্রায দুই বৎসর এলাকা ছেড়ে গাঁ ডাকা দিলেও ফের এলাকায় এসে তার বাহিনী নিয়ে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি দিচ্ছে।

অপহৃত ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী জোস্না বেগম জানান, আমার স্বামীকে অপহরনের সাড়ে চার বছর অতিবাহিত হলেও তাকে উদ্ধার করতে পারেনি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। আমার সন্তানেরা তার বাবার কথা জানতে চাইলে কিছুই উত্তর দিতে পারিনা আমি। তিনি বেঁেচ আছেন কিনা মরে গেছেন আমরা কিছুই জানিনা এ কথা বলে তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

অপহৃত ইসমাইল হোসেনের বড় মেয়ে রেবতি মোহন কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী ঝুমুর আক্তার জানান, আমার বাবা আমাকে আদর করে ভাত খাইয়ে দিত কত আদর করত আমি কোন বায়না করলে সে সাথে সাথে সে পুরণ করত। গত সাড়ে চার বছরে একবারও আমার বাবা আমাকে আদর করেনি মা বলে ডাকেনি। আমার বেঁচে আছে নাকি কি অবস্থায় আমরা কিছুই জানি না, এই কথা বলে তিনি উচ্চ স্বরে কেঁদে উঠেন।

ইসমাইল হোসেনের ছোট ছোলে রেবতি মোহন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ইয়ামিন হোসেন বলেন, আমার বাবার চেহারা আমি মনে করতে পারছিনা। আমার বাবাকে কি আপনার ফিরিয়ে দিতে পারবেন?

সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ্যাডভোকেট সামছুল ইসলাম ভূঁইয়া ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম জানান, আওয়ামীলীগ কর্মী ইসমাইল হোসেন অপহরণের সাড়ে চার বছরেও কোন সন্ধান দিতে পারেনি প্রশাসন। অবিলম্বে ইসমাইল হোসেনকে খুজে বের তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোড় দাবী জানান তারা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মইনুল হক বলেন, কাঁচপুরের অপহৃত আওয়ামীলীগ নেতা ও ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেন অপহরনের মামলাটি জেলা সিআইডি পুলিশ তদন্ত করছে। তাকে খোজে বের করায় জন্য ইতিমধ্যেই অনেক স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution