• রাত ৪:৩৪ মিনিট রবিবার
  • ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
লক ডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ সোনারগাঁয়ে করোনা আক্রান্ত ১৪, মৃত্যু ১ সুস্থ ৪০ সোনারগাঁয়ে করোনা আক্রান্ত ১৪, মৃত্যু ১ সুস্থ ৪০ চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে মাস্ক ও ইফতারি বিতরন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযুদ্ধা ওবায়দুল হকের দাফন সোনারগাঁয়ে একদিনে করোনায় মৃত্যু ৩, আক্রান্ত ১১ সনমান্দিতে দুই ডাকাত আটক বন্দরে চোরাই গার্মেন্ট পণ্য উদ্ধার, গ্রেপ্তার-২ আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে ইঞ্জিনিয়ার মাসুমের আর্থিক সহায়তা প্রদান কঠোর লকডাউনের ২য় দিনের জনজীবন স্বাভাবিক পিরোজপুরে ৪টি বসত ঘরে আগুন মাহে রমজান উপলক্ষে সনমান্দী ইউনিয়নে অসহায়দের মাঝে ত্রান বিতরণ সোনারগাঁয়ে ট্রাক চাপায় মামা-ভাগ্নে নিহত মৃত শিশুকে কবর দেওয়াকে কেন্দ্র করে শিশুর স্বজনদের বাড়ীতে হামলা রোজা ও পহেলা বৈশাখের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আহবায়ক কমিটি সোনারগাঁয়ে চলছে ঢিলেঢালা লকডাউন সোনারগাঁয়ে করোনা আক্রান্ত নিম্নমূখী, ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত ৭ এবারও করোনা গ্রাস করেছে পহেলা বৈশাখ তারাবিসহ সকল নামাযে ২০ জন অংশ নিতে পারবে রাস্ট্র বিরোধী কর্মকান্ডের অভিযোগে সাবেক চেয়ারম্যানের ছেলে গ্রেফতার
সোনারগাঁয়ে জোড়া খুন: খুন হওয়া দুই ব্যক্তি কবিরাজি করতেন

সোনারগাঁয়ে জোড়া খুন: খুন হওয়া দুই ব্যক্তি কবিরাজি করতেন

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

সোনারগাঁ উপজেলার কাঁচপুর সোনাপুর এলাকায় একটি বাসা বাড়ি থেকে গলাকাটা ও ফাঁসিতে ঝুলানো অবস্থায় উদ্ধার করা দু ব্যক্তি কবিরাজি করতেন বলে জানিয়েছেন গ্রেফতারকৃতরা। গ্রেফতারকৃতরা জানান, গত এক বছর আগে তাদের পরিবারের এক ব্যক্তিকে কবিরাজি করে খুঁজে বের করে দিয়েছিলো খুন হওয়া দুই যুবক। সেই থেকে তাদের পরিবারের সাথে তাদের সর্ম্পক।

গ্রেফতারকৃত বাদশা মিয়ার স্ত্রী লায়লা (৪৫) জানান, গত এক বছর আগে নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার উত্তর গোমনাথ গ্রামের তার স্বামী বাদশা মিয়া নিখোঁজ হয়। স্বামীকে খুঁজে বের করতে এরপর একই এলাকার মিনারুল ও মজনু মিয়া নামের দুই কবিরাজের কাছে যায়। কবিরাজিরা কবিরাজি করে তার স্বামী বাদশা মিয়াকে খুঁজে বের করে দেয়। এরপর থেকে খুন হওয়া মিনারুল ও মজনু তাদের বাড়িতে আসা যাওয়া করতো। গত এক বছর আগে তার ছেলে এহসান ছেলে বউ ও নাতিদের নিয়ে কাঁচপুরে বসবাস শুরু করেন তারা। গত ২৫ তারিখে নীলফামারী থেকে কবিরাজ মিনারুল ও মজনু তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। গতকাল রাতে খাবার খেয়ে মনিরুল ও মজনু তাদের পাশের একটি কক্ষে ঘুমাতে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে বাদশা মিয়ার বাবা এহসান মিয়া ঘুম থেকে উঠে দেখেন তাদের পাশের ঘরে দরজা খোলা অবস্থায় একজনকে বিছানায় ও অন্যজনের গলায় ফাঁস লাগানো রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেয়ে আশপাশের লোকজনকে খবর দেন। পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একজনের গলাকাটা ও অন্যজনের গলায় ফাঁস লাগনো ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় পুলিশ লায়লা বেগম, তার ছেলে এহসান ও স্বামী বাদশা মিয়াকে জিঞ্জেসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution