• রাত ৮:০৭ মিনিট বৃহস্পতিবার
  • ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
মামলা তুলে নিতে বাদিকে হত্যার হুমকি বাল্য বিবাহের কারনে নারীরা কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন করতে পারছেনা সমাবেশে বক্তারা সোনারগাঁয়ের বারদীতে চক্ষু শিবির সোনারগাঁয়ে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চাচা গ্রেপ্তার সারা মিলছে না মানবতার দেয়ালে প্রেসিডিয়াম সদস্য হলেন লিয়াকত হোসেন খোকা মরিচ পানীতেই দুই মিনিটে দূর হবে গলা ব্যথা বা খুসখুস! সোনারগাঁয়ে শেষ হলো দুই দিন ব্যাপী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মানবাধিকার দিবস পালন টিসিবির উদ্যোগে ৪৫ টাকা দরে পিয়াজ বিক্রি থানায় জিডি করলেই আসবে ফোন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ইলিয়াস আটক নারায়ণগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ সভাপতি মোস্তাক আহম্মেদ জয়িতা পুরস্কার পেলেন সমাজকর্মী আলেয়া আক্তার আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে আসতে পারেন এএইচএম মাসুদ দুলাল! ডিসেম্বর থেকেই ঢাকা-সিকিম বাস চলাচল শুরু লিয়াকত হোসেন খোকাকে মোশারফ হোসেনের শুভেচ্ছা রোকেয়া দিবসে জয়িতাদের সংবর্ধনা দূর্ণীতি রোধে সোনারগাঁয়ে র‌্যালি ও আলোচনা সভা ছেলের মৃত্যুর শোক আর হত্যাকারীদের যন্ত্রনায় পৃথিবী ছেড়ে চলে গেলেন মা
দ্বীন ইসলাম হত্যার সঙ্গে জড়িত রাজুকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

দ্বীন ইসলাম হত্যার সঙ্গে জড়িত রাজুকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ সোনারগাঁ উপজেলার নয়াগাঁও গ্রামের দ্বীন ইসলাম (২৬) হত্যার ঘটনার সঙ্গে জড়িত রাজু মিয়া নামের এক আসামীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) উপজেলার মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় স্থানীয়রা ও নিহতের স্বজনরা আটক করে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন।

সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজু মন্ডল বলেন, উপজেলার মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকা  থেকে দ্বীন ইসলাম হত্যার সাথে জরিত সন্দেহে রাজু নামের এক জনকে আটক করে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী। পরে ঘটনাস্থলে পৌছে জনতার হাত থেকে রাজুকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

প্রসঙ্গত: গত ৪ অক্টোবর উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামের মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার সামনে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে নয়াগাঁও গ্রামের সালাউদ্দিনের ছেলে দ্বীন ইসলামের সঙ্গে একই গ্রামের আসাদুলের ছেলে আহসানুল্লাহর কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে আহসানুল্লাহ, শাহাবুদ্দিন, আলী  হোসেন, শাহীন, এরশাদ উল্লাহ সহ ৫/৬ দ্বীন ইসলামকে এলোপাথরী পিয়ে মারাত্মক আহত করে। পরে আশেপাশের লোকজন আহতকে উদ্ধার করে প্রথমে একটি স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। গত ৮ অক্টোবর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ  দেন। পরে ১৩ অক্টোবর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিসক মহাখালী আইসিডিডিআরবি (কলেরা হাসপাতালে) নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। সেখান থেকে ঐদিন সন্ধ্যায় ছাড়পত্র দিলে তাকে বাড়ি নিয়ে আসা হয়। ১৪ অক্টোবর রাতে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে দ্বীন ইসলামের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় দ্বীন ইসলামের বড় ভাই ইলিয়াস বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনা পুলিশ শাহীন নামের এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution