• রাত ৮:২৩ মিনিট মঙ্গলবার
  • ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
এশিয়ান হাইওয়ে ঢাকা বাইপাস সড়কে ৬ কিঃমিঃ যানজট নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন বিষয়ক আলোচনা সভা ছোট হলো সোনারগাঁও পৌরসভার সীমানা উপজেলা আওয়ামীলীগে ঐক্য হতে না হতেই অনৈক্য, ভেস্তে গেল তৃনমুলের স্বপ্ন !!! বকেয়া বেতন পরিশোধ না করায় শতাধিক পরিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দিলেন অধ্যক্ষ সোনারগাঁয়ে সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি থানায় জিডি সোনারগাঁয়ে ১৬৮ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক-১ সোনারগাঁয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার সোনারগাঁয়ে ৮ জেলের বিরুদ্ধে নৌ-পুলিশের মামল ট্রাক চাপায় পুলিশ সদস্য নিহত সোনারগাঁ জাদুঘর পরিদর্শন করলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আওয়ামীলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় বিরু’র সমর্থক আমির গ্রেপ্তার নিশ্চুপ কায়সার-মোশারফ: মন্ত্রীর কাছে রাজাকার মুক্ত আ’লীগ চাইলেন কালাম সোনারগাঁ ১নং আমগাঁও বরগাঁও সঃপ্রাঃ বিদ্যালয়ের সভাপতি হলেন নয়ন ভূইয়া জয় বাংলা আওয়ামীলীগের স্লোগান নয় এটি মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি – আকম মোজাম্মেল হক বন্দরে ১৫০ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক ১ সম্মেলনের মাধ্যমে অনেক নতুন মুখের জায়গা হবে: সোনারগাঁয়ে ওবায়দুল কাদের রোলারে ওড়না চুল পেচিয়ে গার্মেন্ট কর্মীর মৃত্যু মদনপুরে বরযাত্রী বাহি বাসে আগুন
মেঘনা ভরাট করে বালু ব্যবসা, জব্দকৃত বালু ৭ লক্ষাধিক টাকায় নিলামে বিক্রি

মেঘনা ভরাট করে বালু ব্যবসা, জব্দকৃত বালু ৭ লক্ষাধিক টাকায় নিলামে বিক্রি

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ  সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের মেঘনা লঞ্চঘাট এলাকায় মেঘনা নদী ও সরকারি জায়গা দখল করে বালু ব্যবসা বন্ধে অভিযান চালিয়ে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষ। ৪ মাস পূর্বে মেঘনা নদীর তীরে বিআইডব্লিউটিএ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করলেও ক্ষমতাসীন দলের একটি গ্রুপ গত কিছুদিন ধরে মেঘনা নদীর তীর ভরাট করে অবৈধভাবে বালু ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। রবিবার সকালে নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে ও বিআইডাব্লিউটিএর নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক শেখ মাসুদ কামালের তত্বাবধানে পরিচালিত অভিযানে উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক মোঃ শহিদুল্লাহসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। এসময় জব্দকৃত বিপুল পরিমাণ বালু ৭ লাখ ২০ হাজার টাকায় নিলামে বিক্রি করা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ বন্দরের যুগ্ম-পরিচালক মাসুদ কামাল বলেন, মেঘনা নদীর দুই তীরে গত মে মাসে টানা ৬ দিন উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছিল। সেসময় অনেক শিল্প প্রতিষ্ঠানের দখলকৃত অংশ উচ্ছেদ করা হয়েছিল এবং ভরাটকৃত বালু নিলামে বিক্রি করা হয়েছিল। শীঘ্রই মেঘনা নদী দখলকারীদের বিরুদ্ধে আবারো অভিযান শুরু হবে। নদী দখলকারীরা যত প্রভাবশালীই হোক না কেন তাদের কোন ছাড় নেই।

উল্লেখ্য চলতি বছরের ২০ মে থেকে ২৯ মে পর্যন্ত মেঘনা নদীর তীরে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে ৬ দিন ব্যপী অভিযান পরিচালনা করে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষ। এসময় মেঘনা নদীর তীর ভরাট ও দখল করায় মেঘনা গ্রুপ, আমান গ্রুপ, অরিয়ন গ্রুপ, বসুন্ধরা গ্রুপ, ইউনিক গ্রুপ, আল মোস্তফা গ্রুপের পলিমার ইন্ড্রাস্ট্রিজ, খাঁন ব্রাদার্স ডকইয়ার্ড, আব্দুল মোনেম গ্রুপ, কনকর্ড গ্রুপসহ বেশ কয়েকটি ভরাট ও দখলকৃত অংশ অবমুক্তে অভিযান চালানো হয়। এসময় কয়েকটি পাকা বহুতল ভবন, কয়েকটি ডকইয়ার্ডের বর্ধিত অংশসহ শতাধিক পাকা ও কাঁচা স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়া জব্দকৃত বালু ও অন্যান্য সামগ্রী নিলামে প্রায় ১ কোটি ৫৪ লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়। এসময় মেঘনা নদীর শাখা নদী ড্রেজার দিয়ে ভরাটের চেষ্টাকালে কমপক্ষে ১৭টি ড্রেজার ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছিল।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution