• রাত ৮:০০ মিনিট শনিবার
  • ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে আরো ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে ফের বাড়ছে করোনার প্রার্দূভাব মহানবী (সা.) কে ব্যঙ্গ করার প্রতিবাদে গ্রামে গ্রামে বিক্ষোভ সোনারগাঁ থেকে নিখোঁজ আটো চালকের লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে একই পরিবারের ৪ জন করোনা আক্রান্ত সোনারগাঁয়ে তিনদিন ধরে অটো চালক নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে শিশু যাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে হেলপার আটক ইলিশ মাছ শিকারের অপরাধে চার জেলে গুনলেন জরিমানা ইয়াবা মামলায় সোনারগাঁ থানার সাবেক ওসি কামরুল কারাগারে মহানবী (সা.) এর সম্মানে প্রতিবাদ সভা, বিক্ষোভ মিছিল ও মোনাজাত কাচঁপুরে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১৫ সোনারগাঁ মেঘনা নদী থেকে ২০ হাজার মিটার জাল জব্দ বারদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতির ইন্তেকাল মহানবী (সা.) কে ব্যঙ্গ করার প্রতিবাদে আগামীকাল সোনারগাঁয়ে বিক্ষোভ মিছিল স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতার মৃত্যুতে যুবদল নেতা আশরাফ ভুইয়ার শোক সোনারগাঁও পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে ! বিএনপি নেতা আবু সিদ্দিকের মৃত্যুতে মান্নানের শোক থানা বিএনপি’র স্বেচ্ছাসেবক নেতা আবু সিদ্দিক মোল্লার ইন্তেকাল যুবদলের প্রতিষ্টা বার্ষিকীতে খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় দোয়া সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় ৪ জনের দেহে করোনা সনাক্ত
সাবেক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে যুবককে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ

সাবেক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে যুবককে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মঙ্গলেরগাঁও এলাকায় কবির হোসেন (৪৮) নামে এক ইলেকট্রিশিয়ানকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে সাবেক ইউপি সদস্য আদম বেপারী সৈয়দ মজিবুর রহমান এবং তার দুই ছেলে সন্ত্রাসী দিদার হোসেন, শ্যামল মিয়া ও তার ভাতিজা কসাই জামির হোসেনের বিরুদ্ধে।

গত রবিবার রাতে মঙ্গলেরগাঁও এলাকায় হাজী আলাউদ্দিন সাহেবের নির্মাণাধীন হাসপাতাল ভবনের সামনে এঘটনা ঘটে। এসময় ইলেকট্রিশিয়ান কবির হোসেনের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত কবির হোসেনকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো নিয়ে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় কবির হোসেন নিজে বাদী হয়ে গতকাল সোমবার সকালে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা মামলার এজহারে বাদী কবির হোসেন উল্লেখ করেন, বিগত ৯ মাস পূর্বে তার ছেলে রায়হান মিয়াসহ টিপু মিয়া এবং ওমর ফারুক নামে ৩ জনকে এক সঙ্গে সৌদি আরব পাঠায় সাবেক ইউপি সদস্য আদম বেপারী সৈয়দ মজিবুর রহমান। সৌদি আরবে যাওয়ার পর থেকে তার ছেলে রায়হান বিভিন্ন সময় ফোন করে তাকে জানায় তার কোন বৈধ কাগজপত্র, মালিক ও আকামা নেই। সেই জন্য সে কোন কাজ কর্ম করতে না পেরে অন্যের আ¯্রতিা হয়ে অনাহারে, অর্ধাহারে বিদেশের মাটিতে নিধারুন কষ্টে দিন যাপন করছে। ছেলেকে বৈধ ভাবে কাগজপত্র করে দেওয়ার জন্য ও কাজ কর্মের বিষয়ে একটু তদবির করার জন্য সাবেক ইউপি সদস্য আদম বেপারী সৈয়দ মজিবুর রহমানকে বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও সে আমাকে বিভিন্ন সময় নানা ভাবে প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করে থাকেন। এরই জের ধরে গত রবিবার রাত সাড়ে ১০ টা সময় পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে সৈয়দ মজিবুর রহমান ও তার সহযোগি দুই ছেলে সন্ত্রাসী দিদার হোসেন, শ্যামল মিয়া ও তার ভাতিজা কসাই জামির হোসেন মিলে দেশীয় অস্ত্র চাকু ছোড়া, লোহার সাবল ও চাপাতি দিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় ইলেকট্রিশিয়ান কবির হোসেনের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত কবির হোসেনকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো নিয়ে ভর্তি করেন।

স্থানীয় মঙ্গলেরগাঁও এলাকাবাসীর অভিযোগ, সাবেক ইউপি সদস্য ও আদম বেপারী সৈয়দ মজিবুর রহমান প্রায় ৩০ বছর যাবৎ বিদেশে লোক পাঠানো আদম ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তার প্রতারনার শিকার হয়ে অনেকেই বিদেশ যেতে না পেরে ভিটে মাটি বিক্রি করে একেবারেই নিঃস্ব হয়ে পথে বসেছেন। চাঁন্দের চক এলাকার আব্দুর রাজ্জাক নামে এক ব্যক্তি জানান, তার ছেলে রোহান মিয়াকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে দুই বছর পূর্বে মজিবুর রহমান টাকা নিয়েছে। সে আমাদেরকে কিছু ভূয়া বিষার কাগজ পত্র দিয়ে দিনের পর দিন প্রতারনা করছে। এখন সে আমার ছেলেকে বিদেশও পাঠায় না এবং আমাদের টাকা পয়সাও দেয় না। দুধঘাটা এলাকার আবুল হোসেন ভূইয়া জানান, আমার ছেলে জনি মিয়াকে গত এক বছর পূর্বে সৌদি আরব পাঠায় আদম বেপারী সৈয়দ মজিবুর রহমান। আমার ছেলে বিদেশের মাটিতে বৈধ কাগজপত্র ও আকামা না পাওয়ায় সে ঠিক মত কাজ কর্ম করতে পারছেনা। অন্যের আ¯্রয়ে থেকে খেয়ে না খেয়ে অনেক কষ্টের মাঝে দিন কাটাচ্ছে।

সোনারগাঁ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, হত্যা চেষ্টার ঘটনায় কবির হোসেন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution