• সকাল ৭:৩৮ মিনিট সোমবার
  • ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ দিতে কাজ করছেন সরকার —–জিএম মো: সাইরুল ইসলাম উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের মানববন্ধন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের মানববন্ধন দাবি দাওয়া নিয়ে সোনারগাঁয়ে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতি সোনারগাঁয়ে ১৯ জনের নমুনা পরিক্ষায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত মাঠে-ঘাটে সাধারণ মানুষের সাথে নৌকার প্রার্থী ঝরার গণসংযগোগ সোনারগাঁও জাদুঘরে দুইজনসহ একদিনে করোনা আক্রান্ত ৪ আশরাফুল ইসলাম মাকসুদেরর গণসংযোগ সোনারগাঁয়ের সোয়াইব হত্যার রায় পিছিয়ে ৩০ নভেম্বর ধার্য্য সোনারগাঁয়ে মাদ্রাসার শিক্ষককে পিটিয়ে জখম করলো ছাত্র সোনারগাঁয়ে গবাদি পশুকে বিনামুল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান সোনারগাঁয়ে ১২ জনের নমুনায় ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত, মোট সনাক্ত ৬৮৭ এমপি খোকাকে নিয়ে কুরুচিপুর্ণ বক্তব্য প্রদানকারী জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি এমপি’র বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে জাতীয় পার্টির প্রতিবাদ সভা সোনারগাঁয়ে ঈদগাহর জমি দখলের পায়তারা, বিক্ষোভ মিছিল সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগকে শোকজ ! কলাপাতা রেষ্টুরেন্টের নতুন সংযোজন জন্মদিনের কেক সোনারগাঁয়ে ৮ জনের নমুনায় ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত আমি বিএনপি করি স্যার জানে ফোনালাপে অধ্যক্ষ সুলতান মিয়া আমি নারী তাই মেয়র নির্বাচিত হলে নারী উন্নয়নর কাজ করবো.. ঝরা
সোনারগাঁয়ে সোয়াইব হত্যার মামলার রায় ৯ নভেম্বর

সোনারগাঁয়ে সোয়াইব হত্যার মামলার রায় ৯ নভেম্বর

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের মঙ্গলেরগাঁও গ্রামের ৫ বছরের শিশু সোয়াইব হত্যার মামলার রায় নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালত-১ আগামী ৯ নভেম্বর ধার্য করেছেন বলে জানিয়েছেন সোয়াইবের বাবা নাজমুল ইসলাম মাসুম। এ মামলায় মোট ২৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহন করা হয়েছে। সাক্ষীগনের সাক্ষ্য শেষে দীর্ঘ ৭ বছর পর ৯জন আসামীর বিরুদ্ধে রায় ঘোষনা করা হবে। এর মধ্যে ৩ জন কারাগারে রয়েছেন বাকি আসামীরা জামিনে রয়েছেন।

সোয়াইবের বাবা নাজমুল ইসলাম মাসুম জানান, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নে মঙ্গলের গাঁও গ্রামে তার একটি মেয়ে ও ৫ বছরের সোয়াইবকে নিয়ে তাদের পরিবার। ২০১৩ সালের ফেব্রয়ারী মাসের ২০ তারিখ দুপুরে সোয়াইব তার বন্ধুদের সাথে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের ৬ দিন পর তাদের বাড়ীর পাশে জাকির হোসেনের পরিত্যক্ত বাড়ীর জঙ্গল থেকে সোয়াইবের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওইদিনই বাদি হয়ে নাজমুল ইসলাম মাসুম বাদি হয়ে একটি হত্যা অভিযোগ মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত থাকার দায়ে নাছিরকে গ্রেফতার করে। নাছিরের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দিতে ফজল মুন্সিকে গ্রেফতার করে জিঞ্জেসাবাদে হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দেন। সেই জবাববন্দিতে সোয়াইব হত্যার সাখে জড়িত নাছির, মোশারফ মুন্সি, ফজল মুন্সি, রাজু, জসিম মুন্সি, সিরাজ মিয়া, আলী আহম্মদ, ইমদাদ, ইকবাল ও রিনাসহ ৯জনের নাম উঠে আসে। হত্যা মামলাটি দীর্ঘ ৭ বছর আদালতে বিচারাধীন অবস্থায় ২৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহন শেষে আগামী ৯ নভেম্বর রায় ঘোষনার দিন ধার্য করেছেন আদালত। এ মামলায় মোশারফ, রাজু ও ইকবাল কারাগারে ও বাকী ৬ আসামী জামিনে রয়েছেন।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution