• দুপুর ১:০৬ মিনিট বুধবার
  • ২রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বর্ষাকাল
  • ১৭ই জুলাই, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
নানাখী কওমিয়া মাদরাসার কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও পুরস্কার প্রদান সম্পর্কের অবনতি ঘটলেই ধর্ষণের অভিযোগ, হয়রানির শিকার পুরুষরা সোনারগাঁয়ে দুই শিক্ষককে লাঞ্ছিত ঘটনায় শিক্ষার্থীদের রাস্তা অবরোধ বারদী আশ্রমে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অনুষ্ঠিত হলো শীতলা পূজা জমে উঠেছে সাদিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক নিবাচন সোনারগাঁয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্য আটক সোনারগাঁও পৌরসভায় ২ দিন ধরে চলছে কর্মবিরতি, ভোগান্তীতে পৌরবাসী সোনারগাঁয়ে আশংকাজনক হারে বাড়ছে ধর্ষনের ঘটনা সোনারগাঁও জাদুঘরে টেন্ডারে বাঁধা, বাতিল চেয়ে ঠিকাদারদের আবেদন সোনারগাঁয়ে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ টূর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত মোগরাপাড়া চৌরাস্তার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ সোনারগাঁয়ে গ্যাস রাইজারের আগুনে বসত ঘর পুড়ে ছাই এইচ এম এরশাদ আর নেই সোনারগাঁয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতাসহ ৬ সদস্যকে আহত ঘটনায় মামলা হলেও গ্রেফতার নেই সোনারগাঁয়ে এবার ২২টি অস্থায়ী পশুর হাটের আবেদন সোনারগাঁ পাচ্ছে পূর্ণাঙ্গ স্টেডিয়াম সোনারগাঁ পাচ্ছে পূনাঙ্গ নতুন স্টেডিয়াম সোনারগাঁয়ে বিয়াইয়ের ধর্ষণে বিয়াইন ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ৩ দিন ধরে সাংবাদিক রাসেল নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে দিনে-দুপুরে মুদি দোকানে দুর্ধষ চুরি
জেল খাটছে শ্রমিকরা, মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু তুলছে চোরেরা

জেল খাটছে শ্রমিকরা, মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু তুলছে চোরেরা

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ
সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদীর আনন্দ বাজার বালু মহালে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ হচ্ছে না। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মেঘনা নদীতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ড্রেজার শ্রমিকদের ধরে এনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে সাজা দিলেও বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ বালু উত্তোলন। বালু সন্ত্রাসীরা দিনে রাতে লুট করে নিয়ে যাচ্ছে মেঘনা নদীর পাদদেশের বালু।

জানাগেছে, উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকার বালু মহালটি ইজারা শেষ হয় কয়েক মাস আগে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নতুন করে এ মহালটি ইজারা দিয়েছে একটি প্রতিষ্ঠানকে। এ সুযোগে বৈদ্যেরবাজার এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী সন্ত্রাসী দিনে ও রাতে মেঘনা নদীর পাদদেশ থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন করছে। এ নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আনন্দবাজার বালু মহালে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় ৫জন ড্রেজার শ্রমিককে আটক করা হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবাই কোর্ট পরিচালনা করে ৪ শ্রমিককে ১ বছরের ও একজনকে ১ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে শ্রমিকদের দন্ডাদেশ দিলেও বালু উত্তোলনকারী মুল হোতারা রয়েছেন ধরা ছোয়ার বাহিরে।

জানাগেছে, আনন্দবাজার বালু মহালে কয়েকটি শক্তিশীলী ড্রেজার দিয়ে বালু লুট করে নিচ্ছেন বৈদ্যেরবাজার যুবলীগের সভাপতি নবীরের ভাই নজরুল, আল-আমিন, ইসলাইল মেম্বারের ছেলে রকি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগীরের সদস্য রোবায়েত হোসেন শান্ত ও তাওলাদ হোসেন। বালু উত্তোলনের সাখে জড়িত এদের নাম মিডিয়া প্রকাশিত হলেও উপজেলা প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাই নিচ্ছেন না। বরং বালু চোরেরা জানান, প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই তারা দিনে দুপুরে প্রকাশ্যে বালু উত্তোলন করছেন।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution