• দুপুর ২:৫৮ মিনিট সোমবার
  • ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
জুয়েল বাঁচতে চায় সোনারগাঁয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধে নারী পিটিয়ে আহত সোনারগাঁয়ে ঘুড়ি খেলাকে কেন্দ্র প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ১০ শেষ হলো তিনদিন ব্যাপী সোনারগাঁও জাদুঘরের জামদানী মেলা শিশুদের জীবন গড়তে লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলার ব্যবস্থা করতে হবে..ইঞ্জি: মাসুম সাদিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে মাদক বিরোধী সভা খেলার মাঠ রক্ষার দাবিতে পঞ্চমীঘাট স্কুলে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সাদিপুর ছাত্রলীগের পক্ষে শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ দর্শণার্থী ও ক্রেতাদের পদচারনায় মুখোরিত সোনারগাঁয়ের জামদানী মেলা সাদিপুর যুব সমাজের উদ্যেগে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান সোনারগাঁ জাদুঘর এর উদ্যোগে একুশে ফেব্রুয়ারি উদযাপন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত, মান্নান শিবিরে স্বস্তি  সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির শ্রদ্ধা নিবেদন ভাষা শহীদদের প্রতি সোনারগাঁও প্রেস ইউনিটি’র বিনম্র শ্রদ্ধা সোনারগাঁ থানা বিএনপির পক্ষে শহীদ মিনারে মান্নানের শ্রদ্ধা নিবেদন কায়সার হাসনাতের নেতৃত্বে ভাষা শহীদদের বিনম্র শ্রদ্ধা একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলী সোনারগাঁ প্রেস ইউনিটির পক্ষ থেকে ভাষা শহীদের বিনম্র শ্রদ্ধা সোনারগাঁয়ে তিনদিনব্যাপী জামদানি মেলা শুরু ২১ শে ফেব্রুয়ারীতে কে কখন ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন
জেল খাটছে শ্রমিকরা, মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু তুলছে চোরেরা

জেল খাটছে শ্রমিকরা, মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু তুলছে চোরেরা

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ
সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদীর আনন্দ বাজার বালু মহালে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ হচ্ছে না। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মেঘনা নদীতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ড্রেজার শ্রমিকদের ধরে এনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে সাজা দিলেও বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ বালু উত্তোলন। বালু সন্ত্রাসীরা দিনে রাতে লুট করে নিয়ে যাচ্ছে মেঘনা নদীর পাদদেশের বালু।

জানাগেছে, উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকার বালু মহালটি ইজারা শেষ হয় কয়েক মাস আগে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নতুন করে এ মহালটি ইজারা দিয়েছে একটি প্রতিষ্ঠানকে। এ সুযোগে বৈদ্যেরবাজার এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী সন্ত্রাসী দিনে ও রাতে মেঘনা নদীর পাদদেশ থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন করছে। এ নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আনন্দবাজার বালু মহালে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় ৫জন ড্রেজার শ্রমিককে আটক করা হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবাই কোর্ট পরিচালনা করে ৪ শ্রমিককে ১ বছরের ও একজনকে ১ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে শ্রমিকদের দন্ডাদেশ দিলেও বালু উত্তোলনকারী মুল হোতারা রয়েছেন ধরা ছোয়ার বাহিরে।

জানাগেছে, আনন্দবাজার বালু মহালে কয়েকটি শক্তিশীলী ড্রেজার দিয়ে বালু লুট করে নিচ্ছেন বৈদ্যেরবাজার যুবলীগের সভাপতি নবীরের ভাই নজরুল, আল-আমিন, ইসলাইল মেম্বারের ছেলে রকি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগীরের সদস্য রোবায়েত হোসেন শান্ত ও তাওলাদ হোসেন। বালু উত্তোলনের সাখে জড়িত এদের নাম মিডিয়া প্রকাশিত হলেও উপজেলা প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাই নিচ্ছেন না। বরং বালু চোরেরা জানান, প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই তারা দিনে দুপুরে প্রকাশ্যে বালু উত্তোলন করছেন।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution