• সকাল ৯:৫৮ মিনিট শনিবার
  • ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বর্ষাকাল
  • ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
নাছির মেম্বারের পথে ছেলে রাসেল, তাকে রুখার সাধ্যকার সোনারগাঁয়ের চাঞ্চল্যকর রাব্বি হত্যা মামলার ২ আসামি গ্রেফতার মেঘনা টোল প্লাজায় তিশা বাসে আগুন বন্দরে বকেয়া বেতনের দাবিতে ২ ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ,  সোনারগাঁয়ে ৩ মিষ্টির দোকানকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা সোনারগাঁয়ে নদী থেকে অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে মাদকের টাকা লেনদেনের জেরে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে সোনারগাঁও প্রেস ক্লাবে আলোচনা সভা সোনারগাঁয়ে আ.লীগ নেতার প্রতারণার নতুন ফাঁদ অনিয়ম ও দূর্নীতি যেন সমাজ ব্যবস্থায় স্বাভাবিক ঘটনা. জিএম কাদের কাল থেকে শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ১৩৪ তম তিরোধান উৎসব শুরু সোনারগাঁয়ে ডিম ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২ সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনীকে কেন্দ্র করে ঘোড়া প্রতিকের সমর্থকের পুকুরে বিষ প্রয়োগ সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনীকে কেন্দ্র করে ঘোড়া প্রতিকের সমর্থকের পুকুরে বিষ প্রয়োগ সোনারগাঁয়ে অ্যাম্বুলেন্স দূর্ঘটনার নিহত -১ উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রতিকের নির্বাচন করায় গাছ কর্তন নব নির্বাচিতত উপজেলা চেয়ারম্যানকে নিয়ে এতিমদের দোয়া সোনারগাঁয়ে ট্রান্সফরমার চুরির সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাসহ আটক-৪ হাসনাত পরিবারের প্রয়াত নেতাদের কবর জিয়ারত করলেন নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান তুমি যদি মুমিন হও তাহলে নিরাশ হইওনা. নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান
বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আনন্দবাজার হাট নিয়ে উদ্বিগ্ন বৈদ্যেরবাজারবাসী

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আনন্দবাজার হাট নিয়ে উদ্বিগ্ন বৈদ্যেরবাজারবাসী

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: দিন যত যাচ্ছে সোনারগাঁয়ে করোনার ভাইরাসের প্রকোপ ততই বাড়ছে। গত মাসের ১৩ এপ্রিল প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয় বৈদ্যেরবাজার হাড়িয়া এলাকার আবু বকর নামের এক মাদ্রাসা ছাত্র। এরপর ওই এলাকায় একে একে ওই ইউনিয়নে ১৪জন করোনা রোগী সনাক্ত হয়। এদের মধ্যে ২জন সুস্থ হয়েছেন। এদিকে গত একমাসে সোনারগাঁয়ের বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ৮৬ জন করোনা রোগী সনাক্ত হয়। করোনার উপসর্গ নিয়ে অনেকে বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। পরিক্ষা জটিলতার কারণে সবার পরিক্ষা সম্ভব হয়নি বিধায় সঠিক আক্রান্তের কথা বলা যাচ্ছেনা। তবে এর সংখ্যা আরো বেশী হতে পারে বলে ধারণা করছেন অনেকে। এদিকে, সাধারণ মানুষের জীবন জীবিকার কথা চিন্তা করে গত ১০ তারিখ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারা বাংলাদেশের সকল মার্কেট ও শপিংমলগুলো খুলে দেয় সরকার। সোনারগাঁয়ে গত রবিবার থেকে সকল মার্কেট খুলে দেয় মালিক কর্তৃপক্ষ। কিন্তু স্বাস্থ্য বিধি ও শারীরিক দুরত্ব না মানার কারণে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সকল মার্কেট বন্ধ করে দেয় উপজেলা প্রশাসন। মার্কেট বন্ধ করার বিষয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিপনী বিতানসমূহ যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি ও শারীরিক দূরত্ব মেনে না চলায় এবং কোভিড-১৯ এর প্রাদূর্ভাব আশঙ্কা জনকভাবে বেড়ে যাওয়ায় পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত আগামী ১৫ মে, ২০২০খ্রিঃ শুক্রবার হতে সকল প্রকার বিপনী বিতানসমূহ, কাপড়ের মার্কেট, মোবাইল মার্কেট, জুতার দোকান, কসমেটিক্স দোকান, ইলেক্ট্রনিক্সের দোকান, ফার্ণিচার দোকান, কাঠের দোকান, ভ্যারাইটিজ স্টোর, গিফট কর্নার ইত্যাদি বন্ধ থাকবে সাথে সভা, সেমিনার, মিটিং, সামাজিক অনুষ্ঠান, গণজমায়েত, ওয়াজ মাহফিল বন্ধ থাকবে। এছাড়াও সকল প্রকার কমিউনিটি সেন্টার, পার্টি সেন্টার, কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো। তবে ফার্মেসী, কৃষি পণ্য, সার ও বীজ দোকান, পশু খাদ্য, মুদি দোকান, কাঁচা বাজার ও মৌসুমী ফলের বাজারসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির দোকানসমূহ এর আওতামুক্ত থাকবে ।

এ দিকে আগামীকাল শনিবার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নে সোনারগাঁয়ের সবচেয়ে বড় ঐতিহ্যবাহী হাট আনন্দবাজার হাট শুরু। এ হাটকে ঘিরে মেঘনা, আড়াইহাজার, গজারিয়া ও রূপগঞ্জ উপজেলা থেকে অসংখ্য মানুষ আসেন বিভিন্ন মালামাল বেচাকেনা করতো। হাটটিতে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ছাড়াও বসে বাহারী মৌসুমী ফল ও অন্যান্য ফসলাদির অস্থায়ী দোকান। অতিরিক্ত লোকের সমাগমের কারণে হাটটিতে স্থায়ীভাবে গড়ে তোলা হয়েছে কাপড়ের মার্কেট, মোবাইল মার্কেট, জুতার দোকান, কসমেটিক্স দোকান, ইলেক্ট্রনিক্সের দোকান, ফার্ণিচার দোকান, কাঠের দোকান, ভ্যারাইটিজ স্টোর, গিফট কর্নার ইত্যাদি। যেখানে প্রতি হাটে এসব জিনিস কিনতে ভীড় করে থাকেন কয়েক হাজার মানুষ। সেখানে বর্তমান করোনার ভাইরাসের কারণে সরকারের বেধে দেয়া স্বাস্থ্য বিধি মানা কোন ভাবেই সম্ভব না। এছাড়া বর্তমানে নারায়নগঞ্জের অন্যান্য উপজেলার তুলনায় সোনারগাঁয়ে করোনার সংক্রমণের সংখ্যা অত্যান্ত বেশী। তাছাড়া বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নে প্রথম করোনা আক্রান্তসহ বর্তমানে ১৪ জন আক্রান্ত রোগী রয়েছেন। হাটকে ঘিরে আগামীকাল শনিবার আনন্দবাজারে সকাল থেকে জড়ো হবে বিভিন্ন এলাকার মানুষ। যেহেতু বর্তমানে সোনারগাঁয়ের সবকটি এলাকাই করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা রেড়েছে সে কারণে হাটে আসা এসব মানুষের কারণে করোনার সংক্রমণ আরো বাড়তে পারে বলে ধারনা করছেন স্থানীয়রা। এজন্য তারা হাটটি বন্ধ ও পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধিতে আনার জন্য উপজেলা প্রশাসনকে অনুরোধ জানিয়েছেন স্থাণীয়রা।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution