• দুপুর ১২:২০ মিনিট শনিবার
  • ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে রোকেয়া দিবসের জয়িতা নারীদের সংবর্ধনা বারদী ইউনিয়নে ইঞ্জিনিয়ার হালিম এর ইত্তেকাল নাশকতা ঠেকাতে সোনারগাঁ থানা পুলিশের টহল জোড়দার ও তল্লাসী কাঁচপুরে উপজেলা আওয়ামী সহযোগী সংগঠনগুলোর অবস্থান -নামজারিতে বিলম্ব : ব্যাখ্যা চেয়ে না.গঞ্জ ডিসিকে ভূমি মন্ত্রণালয়ের চিঠি শফিকুল ইসলাম মাষ্টারের উদ্যোগে দু:স্তদের মাঝে ৪ শতাধিক কম্বল বিতরন সোনারগাঁয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিশুকে যৌন হররানির অভিযোগ সোনারগাঁয়ে বিনামূল্যে ধানের বীজ ও সার বিতরন ৫৭তে পা দিলেন মাহফুজুর রহমান কালাম সর্তক অবস্থানে সোনারগাঁ থানা পুলিশ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশের বিশেষ চেকপোস্ট ৯ বছরে অনেক উন্নয়ন করেছি, ভবিষ্যতেও করবো ইনশাআল্লাহ. এমপি খোকা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রেলপথে বাড়তে যাচ্ছে ট্রেনের সংখ্যা আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি হবে নিয়ামক শক্তি, লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি বারদি জাতীয়পার্টির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত ১১৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা আজ কি চমক দেখাবে পারবে ব্রাজিল? মাদক মামলায় ফেঁসে যাচ্ছে না.গঞ্জের ৪ পুলিশ সদস্য ইউনিয়ন শ্রমিক দলের সেক্রেটারী সহ বিএনপি ৪ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার দলিল লিখক মোশারফ এর হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন
মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন নিয়ে বালু সন্ত্রাসীদের সংঘর্ষ, আহত-৭

মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন নিয়ে বালু সন্ত্রাসীদের সংঘর্ষ, আহত-৭

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম: সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে দুই বালু সন্ত্রাসীর মধ্যে সংষর্ঘ হয়েছে। এতে উভয় গ্রুপের ৭ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গতকাল বিকালে মেঘনা আনন্দবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

এলাকাবাসী জানান, উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকার মেঘনা নদী থেকে বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের প্যানের চেয়ারম্যান পানাম গাবতলী গ্রামের ইসমাইল মেম্বারের ছেলে রকি হোসেন ও মোবারকপুর গ্রামের হাসরুলের ছেলে মহসিন দীর্ঘদনি যাবৎ মেঘনা নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। উপজেলা প্রশাসন একাধিকবার মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের ড্রেজার ভেঙ্গে দেয়ার পরও তারা ৬ মাস ধরে বালু উত্তোলন করে আসছে। গত মঙ্গলবার রাতে মেঘনা নদীতে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করার জন্য ২ গ্রুপই ড্রেজার বসানোর চেষ্টা করে। এতে কে কোথায় বসাবে এ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে দ্বন্ধ শুরু হয়। এর জের ধরে ইসমাইলের ছেলে রকি ও হাসারুলের ছেলে মহসিনের নেতৃত্ব অর্ধ শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে রকি হোসেন ও তার সাথে থাকা অনিক মিয়া ও সজিব মিয়া আহত হয়। অপরদিকে মহসিন গ্রুপের মহসিন, তাজুল, মনির রিপন ও আরিফ আহত হয়। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত রকি হোসেন বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আহত রকি হোসেন জানান, চাদাঁর টাকা না পেয়েই সন্ত্রাসীরা আমাকে ও আমার ড্রেজারের স্টাফদের মারধর করেছে এবং আমার হাতে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। অপর দিকে মোহসিন মিয়া জানান, হামলায় তার পক্ষের লোকজনও আহত হয়েছে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় অভিযোগ নেয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution