• দুপুর ২:২৬ মিনিট রবিবার
  • ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার নৌকার প্রার্থীর চোখের পানি না শুকাতেই স্বতন্ত্র প্রার্থীকে আওয়ামীলীগে যোগদান ‘মা’ কম্পিউটার ইনষ্টিটিউট অব টেকনোলজি-এর সনদ বিতরণ সোনারগাঁয়ে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি দারিদ্র বিমোচনে কাজ করছে বসুন্ধরা. ইঞ্জি: মাসুম বন্দরে একসাথে তিন বান্ধবী নিখোঁজ কমপ্লেক্সে ঢুকে পড়া ছাগলে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের ভুড়িভোজ, মামলা স্ত্রী’র অন্তরঙ্গ ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে যুবক গ্রেফতার আইভীকেই নৌকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী জাকেরপাটির চেয়ারম্যানের দোয়া নিলেন মেয়র আইভি যেসব খাবার খেলে নতুন চুল গজায় সাদিপুরে ভোট গণনায় কারচুপির অভিযোগ কাউন্সিলর হত্যার প্রধান আসামির জানাজা ছাড়াই দাফন সোনারগাঁয়ে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তিন বাড়িতে ডাকাতি সোনারগাঁও প্রেস ক্লাবের মনোনয়নপত্র বিতরন সোনারগাঁয়ে মাদকসহ আটক ২, পিকআপ জব্দ রূপগঞ্জ আ.লীগ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা, গুলিবিদ্ধ ৬ ভোট পূর্ণগননার দাবি ইউপি সদস্যের নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন ১৬ জানুয়ারী
মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন নিয়ে বালু সন্ত্রাসীদের সংঘর্ষ, আহত-৭

মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলন নিয়ে বালু সন্ত্রাসীদের সংঘর্ষ, আহত-৭

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম: সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে দুই বালু সন্ত্রাসীর মধ্যে সংষর্ঘ হয়েছে। এতে উভয় গ্রুপের ৭ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গতকাল বিকালে মেঘনা আনন্দবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

এলাকাবাসী জানান, উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকার মেঘনা নদী থেকে বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের প্যানের চেয়ারম্যান পানাম গাবতলী গ্রামের ইসমাইল মেম্বারের ছেলে রকি হোসেন ও মোবারকপুর গ্রামের হাসরুলের ছেলে মহসিন দীর্ঘদনি যাবৎ মেঘনা নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। উপজেলা প্রশাসন একাধিকবার মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের ড্রেজার ভেঙ্গে দেয়ার পরও তারা ৬ মাস ধরে বালু উত্তোলন করে আসছে। গত মঙ্গলবার রাতে মেঘনা নদীতে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করার জন্য ২ গ্রুপই ড্রেজার বসানোর চেষ্টা করে। এতে কে কোথায় বসাবে এ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে দ্বন্ধ শুরু হয়। এর জের ধরে ইসমাইলের ছেলে রকি ও হাসারুলের ছেলে মহসিনের নেতৃত্ব অর্ধ শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে রকি হোসেন ও তার সাথে থাকা অনিক মিয়া ও সজিব মিয়া আহত হয়। অপরদিকে মহসিন গ্রুপের মহসিন, তাজুল, মনির রিপন ও আরিফ আহত হয়। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত রকি হোসেন বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আহত রকি হোসেন জানান, চাদাঁর টাকা না পেয়েই সন্ত্রাসীরা আমাকে ও আমার ড্রেজারের স্টাফদের মারধর করেছে এবং আমার হাতে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। অপর দিকে মোহসিন মিয়া জানান, হামলায় তার পক্ষের লোকজনও আহত হয়েছে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় অভিযোগ নেয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution