• দুপুর ১:১৪ মিনিট সোমবার
  • ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বর্ষাকাল
  • ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
বৃষ্টির পানিতে করোনার টিকা নিতে আসা মানুষের ভোগান্তি মুরগি, মাছ, খাসি নয়, বেশি করে গোমাংস খান’, পরামর্শ BJP মন্ত্রীর ৬ অগাস্ট পর্যন্ত রাশিফল অস্ট্রেলিয়ার ‘অদ্ভুত’ সিদ্ধান্তে যুক্তি দেখেন না ডমিঙ্গো কাল থেকে ঢাকায়, ৭ আগস্ট সারাদেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ পর্নোগ্রাফি তৈরীতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রী’কে নির্যাতনে ঘটনার বখাটে স্বামীর ১ বছরের কারাদন্ড সোনারগাঁয়ে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২১, সুস্থ ১৫ সোনারগাঁয়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভিটা বাড়ী দখলের পায়তারা সোনারগাঁ করোনায় একজনের মৃত্যু, কমেছে আক্রান্তের সংখ্যা সাবেক এমপি কায়সার হাসনাতের নিজস্ব অর্থায়নে হাসপাতালে সেন্ট্রার অক্সিজেনের উদ্ধোধন সােনারগাঁয়ে ১৪ হাজার ৪৫০ পিস ইয়াবাসহ আটক -১ সাধারণ মানুষকে ঘরে ফিরতে ইউএনও’র অনুরোধ সোনারগাঁয়ে একদিনে আরো ৩৪ জনের দেহে করোনা সনাক্ত টানা বৃষ্টিতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে জলবদ্ধতায় ঘরবন্দি মানুষ সোনারগাঁয়ে একদিনে আক্রান্ত ২৯, সুস্থ ৩৬ লক ডাউনের ৭তম দিনে মোগরাপাড়া বেড়েছে গাড়ির সংখ্যা ম্যাজিকের মত মুখের তেলতেলে ভাব দূর করুন মাত্র ২ মিনিটে লক ডাউনে দোকান খোলা রাখার অপরাধে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও জেল সোনারগাঁয়ের করোনা রোগীদের জন্য এইচএম মাসুদ দুলালের ফ্রি অক্সিজেন সোনারগাঁ থানার মুল ফটকের সামনের দোকানে দূর্ধষ চুরি
মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় আবার বাশ

মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় আবার বাশ

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

মাহে রমজান ও ঈদকে সামনে রেখে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা ঐতিহাসিক গ্রান্ডট্যাংক রোড যানজটমুক্ত রাখতে প্রশাসনের উদ্যোগে আবারও বাশ লাগিয়ে ভারী যানবাহন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের এ উদ্যোগে সাধুবাদ জানিয়েছেন সুশীল সমাজ।

এর আগে গত মাস চারেক আগে একে ভাবে বাশ দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছিলো প্রশাসন কিন্তু অজ্ঞাত কারণে দুদিন পর সেই বাশ রাতের আধারে অপসারন করা হয়েছিলো।

জানা গেছে, উপজেলার বৈদ্যেরবাজার এলাকায় আমান সিমেন্ট নামের একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠে। সোনারগাঁয়ে কিছু দালালের মাধ্যমে হাড়িয়া এলাকায় কিছু জমি কিনে বালু ভারাট শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। পরে প্রতিষ্ঠানটি জোড় পূর্বক অন্যের জমি ও সরকারী খাস জমি ও নদীর ভরাট করে প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলার কাজ শুরু করে। ওই সময় এলাকাবাসীর বাধার মুখে পড়ে কিছুদিন কাজ বন্ধ থাকার পর আমান সিমেন্ট কোম্পানীটি আমান ইকোনোমিক জোনের পরিনত হয়ে নিজেদের ইচ্ছা মতো অন্যের জমি খাল-বিল ভরাট করে রাতারাতি আমান ইকোনোমিক জোন নির্মান শুরু করে। ইকোনোমিক জোন তৈরী করার মতো অবকাঠামো ও রাস্তাঘাট না থাকার পরও এক হিসেবে জোড় পূর্বক ইকোনোমিক জোনটি তৈরী করা হয়। বর্তমানে এ জোনে আমান সিম নামের একটি প্রতিষ্ঠান চালু হয়েছে বাকিগুলি চালুর পথে। এ প্রতিষ্ঠানের দুই শতাধিক ট্রাক ও লরি মোগরাপাড়া চৌরাস্তার গ্রান্ডট্যাংক রোড় ও পৌরসভার টিপরদী সড়ক হয়ে হাড়িয়া ইকোনোমি জোনে প্রবেশ করে। এসব ভারী যানবাহন চলাচলের জন্য সড়ক ও জনপথের কোন অনুমতি না থাকার পরও আমান ইকোনোমিক জোনের দোহাই দিয়ে চলাচল করছে। ফলে এ সড়কগুলোতে দেখা দিয়ে বড় ফাটল। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে ভারী যানবাহন চলাচলের ফলে রাস্তা ফেলে ঢালু হয়ে পিচ উঠে গিয়ে কয়েকটি স্থানে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে অযোগ্য হয়ে পড়ছে এ রাস্তাগুলো। এছাড়া ভারী যানবাহন চলাচলের ফলে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় প্রতিদিন সৃষ্টি হচ্ছে ভয়াবহ যানজট। প্রতিদিনই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মহাসড়ক থেকে শহীদ মজনু পার্ক পর্যন্ত অসহনীয় যানজট লেগে থাকে। ২ মিনিটের রাস্তা গাড়ী দিয়ে পেরুতে লাগে ২০/২৫ মিনিট। এতে চরম ভোগান্তীতে পরতে হয় সাধারন মানুষকে। এ যানজট নিরসনে প্রশাসনে উদ্যোগে একাধিকবার পদক্ষেপ নেওয়ার অনরোধ জানানোর পর প্রশাসন যানজট নিরসনে জোড়ালো কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। ফলে বাধ্য হয়ে প্রতিদিনের এ কৃত্রিম যানজট সহ্য করতে হয়েছে এ পথে চলা কয়েক হাজার যাত্রী সাধারনকে। এ যানজট নিরসনে মাস চারেক আগে প্রশাসনের উদ্যোগে বাশ দিয়ে এ পথে ভারী যানবাহর চলাচল বন্ধ করে দেয়। কিন্তু বন্ধ করার দু দিনের মাথায় রাতের আধারে বাশ সরিয়ে নেওয়া হয়। এদিকে, আগামী ঈদ উল ফেতরকে সামনে রেখে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকা যানজটমুক্ত রাখতে মহাসড়ক থেকে গ্রান্ডট্যাংক রোড়ের প্রবেশ মূখে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা ও শহীদ মজনু পার্ক এলাকায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বাশ দিয়ে ভারী যানবাহন বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে স্বস্থি মেলে স্থাণীয় লোকজন ও দুরপাল্লার যাত্রীদের মাঝে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে যানজটমুক্ত ছিলো এ সড়কটি। প্রশাসনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সুশীল সমাজের লোকজন। তারা জানান, ঈদকে সামনে রেখে নয় সব সময়ের জন্য সকাল থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এ পথে ভারী যানবাহন বন্ধ করে দেওয়া হওক। এ জন্য তারা স্থানীয় সাংসদের হস্তেক্ষেপ কামনা করেছেন।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution