• সকাল ৯:২২ মিনিট মঙ্গলবার
  • ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে ৬০০ কৃষককে সার ও বীজ দিলেন কৃষি অফিস সোনারগাঁয়ে দুই পেঁয়াজ ব্যবসায়ীকে জরিমানা সোনারগাঁয়ে পিইসি পরীক্ষার প্রথম দিনে অনুপস্থিত ৪২৯ মোবাইল ও ঔষধের দোকানে চুরি, সাড়ে ১৪ লাক্ষ টাকার মালামাল লুট মা’কে পেটানোর অভিযোগে ইমাম গ্রেফতার ইউএনও’র হুসিয়ারী, শিক্ষা কর্মকর্তা- শাহ আলীর সুসর্ম্পক, ছাড় পেল না পরীক্ষার্থীরা খোঁজ মিলছে গৃহবধু সাথী আক্তারের সোনারগাঁয়ে ফেন্সিডিল ও গাঁজা সহ গ্রেপ্তার -২ সাংবাদিক বাবুল মোশাররফের ইন্তেকাল,সর্ব মহলের শোক ঝাউচর মাদ্রাসায় কৃতি শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরন ২৫ টাকার পেয়াজ কেন ২৫০ টাকা ? ব্যবসায়ীর বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় থানায় মামলা সোনারগাঁয়ে ১৪০০ পিস ইয়াবাসহ কামাল আটক সোনারগাঁয়ে ২মাস ধরে গৃহবধু নিখোঁজ, থানায় অভিযোগ সংস্কারের অভাবে হোসেনপুর সড়কের বেহাল দশা বারদীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান জেলেদের খাদ্য সহায়তার চাল পেতে সাড়ে ৫ ঘন্টা অপেক্ষা সোনারগাঁ সেন্ট্রাল হাসপাতালের যাত্রা শুরু নিয়ম ভেঙ্গে ফরম ফিলাপের চারগুণ টাকা আদায় করছে এস আর স্কুল সভাপতির যোগ্যতা স্নাতক করায় পদ হারাতে পারে সোনারগাঁয়ে অনেক নেতা
সোনারগাঁয়ে হেলে পড়েছে বহুতল ভবন; ঝূঁকি নিয়েই চলছে কিন্ডারগার্টেন স্কুল

সোনারগাঁয়ে হেলে পড়েছে বহুতল ভবন; ঝূঁকি নিয়েই চলছে কিন্ডারগার্টেন স্কুল

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ  সোনারগাঁয়ে একটি বহুতল ভবন হেলে পড়েছে। ওই ভবনে ঝূকি নিয়েই এখনো বসবাস করছে কয়েকটি পরিবার। চলছে একটি কিন্ডার গার্টেন স্কুলও। প্রশাসন ও মালিকপক্ষের উদাসীনতায় ঝুঁকি নিয়েই ভবনটি ব্যবহার করছে সবাই।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সোনারগাঁ উপজেলার বাড়ি মজলিশ এলাকার মহিলা কলেজ এর পিছনে পাশাপাশি দুটি ভবনের মধ্যে ফিরোজ মিয়ার বিল্ডিং নির্মান ত্রুটির কারনে মারাত্বক ভাবে হেলে পড়েছে পাশে থাকা জজ মিয়ার বিল্ডিং এর উপর। এতে যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা করছে স্থানীয়রা।

জানা যায়, বাড়ি তৈরীর সময় কোন নীতিমালা মানা হয় নাই। ৩তলার ফাউন্ডেশন দিয়ে ৫ তলা করা হয়েছে। ভবনের প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় চলছে খালেক আঞ্জুমান কিন্ডারগার্টেন নামে একটি স্কুল। যেখানে প্রায় শতাধিক শিশু শিক্ষার্থী নিয়মিত ক্লাস করছে।

এ বিষয়ে বাড়িওয়ালা ফিরোজ মিয়া জানান, প্রয়োজন হলে উপরের বাড়তি অংশ ভেঙ্গে ফেলবো। এখন ও এই বিল্ডিং এ লোকজন বসবাস করছে কোন সমস্যা হচ্ছেনা।

তবে অভিভাবক জানায়, বাড়ি ওয়ালা যদিও বলছে কিছু হবে না। তার পরও আমরা আতঙ্কের মধ্যে আছি। মালিকপক্ষ ও প্রশাসনের জরুরি পদক্ষেপ চেয়েছেন তারা।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মাদ হায়দার আলী বলেন, আমরা ভবনটি পরিদর্শন করেছি । এটা সত্যি ঝূঁকিপূর্ন । দ্রুতই নোটিশ পাঠাবো এটা ভেঙ্গে ফেলার জন্য।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution