• রাত ২:৫৭ মিনিট শনিবার
  • ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
রাস্তার কাজ সম্পন্ন করতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন এমপিএল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন সনমান্দিতে আমিনুল ইসলাম আমান ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সোনারগাঁয়ে আ.লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা সোনারগাঁও জাদুঘরের কারুশিল্পীদের দোকান বরাদ্দে উচ্চ আদালতে রিট ২ কোটি টাকা ব্যয়ে ওয়াটার সাপ্লাই পাইপের উদ্ধোধন সোনারগাঁয়ে ৭ হাজার ৭ শত পিস ইয়াবাসহ আটক ৩ ভোটারদের স্মার্ট কার্ড তুলে দিলেন চেয়ারম্যান শিপলু মাসব্যাপী লোকজ ও মেলা নিয়ে মত বিনিময় সভা আবারও চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হত্যা মামলায় জড়ানোর অভিযোগ চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসা যন্ত্রণাদায়ক: জয়া বুধবার ১০ জনের নমুনা পরিক্ষায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে বান্ধবীর সহায়তায় কিশোরীকে ধর্ষণ, বান্ধবী গ্রেপ্তার আল- মোস্তফা গ্রুপের জমি দখলের অভিযোগ আনন্দ শিপ ইয়ার্ডের বিরুদ্ধে টেকনাফে নারায়নগঞ্জের পর্যটকের লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত নয়াগাঁও’য়ে সংষর্ঘের ঘটনায় আলী আহম্মেদ নামে আরেক জনের মৃত্যু ইজিবাইক ডাম্পিং দেয়ায় ছুরি চালিয়ে চালকের আত্মহত্যার চেষ্টা না.গঞ্জেও সংসার ছিল ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রীর
প্রকাশ্যে হত্যা মামলার আসামির চলাচল, নেই পুলিশের তদারকি

প্রকাশ্যে হত্যা মামলার আসামির চলাচল, নেই পুলিশের তদারকি

Logo


নজরুল ইসলাম শুভ নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ সোনারগাঁ উপজেলার টেমদী গ্রামে হত্যা মামলাসহ পাঁচ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিরা এলাকায় পুলিশের নাকের ডগায় ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না। এতে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে এলাকাবাসীর মধ্যে।

বৃহস্পতিবার (২১নভেম্বর) নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা।

জানা যায়, ওই গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মাহবুব মিয়াকে গত বছরে ৩১ ডিসেম্বর পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে একই এলাকার এসহাক মিয়া ও তার সহযোগীরা। পরে হত্যা মামলার আসামিরা বাদী পক্ষের আত্মীয় মামুন মিয়, ডা. হালিম মিয়া ও সফিউল্লার ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

পরে সন্ত্রাসীরা হাদু মিয়া, আলম মিয়া, মামুন হোসেন, মনির হোসেন, আল-আমিনকে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেন। পৃথক ঘটনায় থানায় চারটি মামলা দায়ের করার পর আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করা হয়। এরপর আসামি ইসহাক মিয়া, হারুন মিয়া, জাকির হোসেন, কবির হোসেন, আল আমিন, আলমগীর হোসেন, রবিন হোসেন, আবু হানিফ, মোমেন মিয়া, মাছুম মিয়া, গিয়াস উদ্দিন, আমিন উদ্দিনসহ বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিরা গত ১৫ দিন ধরে এলাকায় প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করলেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না।

এ দিকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য মামলার বাদীদের বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে আসামিরা। এতে বাদী পক্ষের লোকদের মধ্যে আতঙ্ক ও উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

মামলার বাদী তাহসীন মিয়া বলেন, এসহাক মিয়ার ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে হত্যা, অগ্নিসংযোগ, বাড়ি-ঘর ভাংচুর, লুটপাট ও মারামারিসহ ৫টি মামলায় ওয়ারেন্ট রয়েছে। তিনি জানান উচ্চ আদালত থেকে জামিনে আসলেও পরবর্তীকালে নিম্ন আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করে আদালত।

তিনি আরও বলেন, মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট থাকার পরেও তারা পুলিশের নাকের ডগায় কীভাবে প্রকাশ্যে ঘোরা-ফেরা করছে। এমনকি আসামিরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য আমাদেরকে হুমকি দিচ্ছে। এতে আমরা নিরাপত্তাহীনতা ও আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এসহাক মিয়া, হারুন মিয়া ও বজলু মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, আসামি ইসহাক মিয়াসহ বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে থানায় কোনো ওয়ারেন্ট নেই। যদি থাকে খুব শিগগিরই আসামিদের গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হবে। আমার জানা মতে মামলাটি ডিবির হাতে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution