• রাত ১০:৫৪ মিনিট রবিবার
  • ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
মেম্বার ফেল করা হুমায়ুন কবির এবার ইউপি চেয়ারম্যান ব্যালটে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখা সিল! জামপুরে নৌকার প্রার্থী হুমায়ুন কবির জয়ী ব্যালটে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখা সিল! শম্ভুপুরা, সাদিপুর ও নোয়াগাঁয়ে যারা চেয়ারম্যান হলেন সনমান্দিতে একটি কেন্দ্রের ভোট স্থাগিত সোনারগাঁয়ে শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহন শেষে চলছে গননা সোনারগাঁয়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো ইউপি নির্বাচন সোনারগাঁয়ে ১২ জনের নমুনায় ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত উপজেলার প্রতিটি ইউপিতে শান্তিপূর্ন ভোট গ্রহন শান্তিপূর্ন ভাবে চলছে পিরোজপুর ইউপিতে ভোট গ্রহন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের বাড়িতে হামলা এই নির্বাচন যেন বর্তমান ও সাবেক এমপি’র লড়াই সাংবাদিকদের পর্যবেক্ষক কার্ড রাজনীতিবিদের হাতে রাত পোহালে ৮টি ইউপিতে ভোট যুদ্ধ, নিরাপত্তা নিয়ে শংকা আগামীকাল সোনারগাঁয়ের ৩৮৯ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারন সোনারগাঁয়ে নারীসহ ২ মাদক কারবারী গ্রেপ্তার ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী জয়ের ট্রাম্পকার্ড বিএনপি নৌকা জেতাতে মাঠ ছাড়ছেন না কালাম আজ মধ্যে রাতে শেষ হচ্ছে নির্বাচনী প্রচারনা
প্রকাশ্যে হত্যা মামলার আসামির চলাচল, নেই পুলিশের তদারকি

প্রকাশ্যে হত্যা মামলার আসামির চলাচল, নেই পুলিশের তদারকি

Logo


নজরুল ইসলাম শুভ নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ সোনারগাঁ উপজেলার টেমদী গ্রামে হত্যা মামলাসহ পাঁচ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিরা এলাকায় পুলিশের নাকের ডগায় ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না। এতে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে এলাকাবাসীর মধ্যে।

বৃহস্পতিবার (২১নভেম্বর) নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা।

জানা যায়, ওই গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মাহবুব মিয়াকে গত বছরে ৩১ ডিসেম্বর পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে একই এলাকার এসহাক মিয়া ও তার সহযোগীরা। পরে হত্যা মামলার আসামিরা বাদী পক্ষের আত্মীয় মামুন মিয়, ডা. হালিম মিয়া ও সফিউল্লার ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

পরে সন্ত্রাসীরা হাদু মিয়া, আলম মিয়া, মামুন হোসেন, মনির হোসেন, আল-আমিনকে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেন। পৃথক ঘটনায় থানায় চারটি মামলা দায়ের করার পর আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করা হয়। এরপর আসামি ইসহাক মিয়া, হারুন মিয়া, জাকির হোসেন, কবির হোসেন, আল আমিন, আলমগীর হোসেন, রবিন হোসেন, আবু হানিফ, মোমেন মিয়া, মাছুম মিয়া, গিয়াস উদ্দিন, আমিন উদ্দিনসহ বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিরা গত ১৫ দিন ধরে এলাকায় প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করলেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না।

এ দিকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য মামলার বাদীদের বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে আসামিরা। এতে বাদী পক্ষের লোকদের মধ্যে আতঙ্ক ও উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

মামলার বাদী তাহসীন মিয়া বলেন, এসহাক মিয়ার ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে হত্যা, অগ্নিসংযোগ, বাড়ি-ঘর ভাংচুর, লুটপাট ও মারামারিসহ ৫টি মামলায় ওয়ারেন্ট রয়েছে। তিনি জানান উচ্চ আদালত থেকে জামিনে আসলেও পরবর্তীকালে নিম্ন আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করে আদালত।

তিনি আরও বলেন, মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট থাকার পরেও তারা পুলিশের নাকের ডগায় কীভাবে প্রকাশ্যে ঘোরা-ফেরা করছে। এমনকি আসামিরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য আমাদেরকে হুমকি দিচ্ছে। এতে আমরা নিরাপত্তাহীনতা ও আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এসহাক মিয়া, হারুন মিয়া ও বজলু মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, আসামি ইসহাক মিয়াসহ বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে থানায় কোনো ওয়ারেন্ট নেই। যদি থাকে খুব শিগগিরই আসামিদের গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হবে। আমার জানা মতে মামলাটি ডিবির হাতে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution