• দুপুর ২:৪১ মিনিট রবিবার
  • ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে চোরাই মোবাইলসহ সাতজন গ্রেফতার  আজ থেকে কালাম আমার পরিবারের একজন সদস্য আওয়ামীলীগ নেতা বিরুর বংশ উচ্ছেদের হুমকির ঘটনায় বাবুল ওমরকে শোকজ ঘোড়াকে জয়ী করতে নির্বাচনী মাঠে কাঁচপুরের খাঁন পরিবার ঘোড়ার পক্ষে যু্বলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেনের উঠান বৈঠক উপজেলা আওয়ামীলীগের নীতি নির্ধারক সোহাগ রনি? সোনারগাঁয়ে গত ৯ দিন ধরে দুই সহোদর নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে দুই কোটি টাকার ইয়াবা জব্দ, ১কারবারি গ্রেপ্তার আমান খাঁনের উদ্যোগে কাঁচপুরে কালামের নির্বাচনী প্রচারনা সভা আড়াইহাজারে নির্বাচনী আচারন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ হুইপ বাবুর বিরুদ্ধে আড়াইহাজারে নির্বাচনী আচারন বিধি লঙ্ঘন হুইপ বাবুর বিরুদ্ধে বন্দরের নতুন চেয়ারম্যান মাকসুদ চেয়ারম্যান নারায়ণগঞ্জ পল­ী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন সোনারগাঁয়ে তিনদিন ব্যাপী ফায়ার সার্ভিসেরর স্বেচ্ছাসেবক প্রশিক্ষন সোনারগাঁয়ে আস্থা ফিডে সেনা প্রধান সোনারগাঁয়ে উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ সোনারগাঁও পৌরসভায় কালামের কেন্দ্র কমিটির সভা সোনারগাঁয়ে বিশ বছর পর বাকপ্রতিবন্ধী ভাইকে ফিরে পেলেন তার বড় ভাই মাহফুজুর রহমান কালামকে বিজয়ী করেতে জামপুরে আলোচনা সভা সোনারগাঁয়ে প্রার্থীতা ফিরে পেলেন ৫ প্রার্থী
সোনারগাঁও সনমান্দি গণহত্যা দিবসে শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া

সোনারগাঁও সনমান্দি গণহত্যা দিবসে শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: ১৯৭১ সালে পাকবাহিনীর গণহত্যায় নিহত শহীদদের স্মরণে ২৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের সনমান্দি বাজারের সুবর্ণ সংসদ পাঠাগার প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সনমান্দি মুক্তিযোদ্ধা উপ-প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ক্যাম্প-ইন-চার্জ বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ সিরাজুল ইসলাম মোল্লার সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তব্য রাখেন পরশুরাম সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহফুজুল ইসলাম হায়দার সেলিম, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, সনমান্দি ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন আনু।

এই সময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা বেলায়েত হোসেন, সনমান্দী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি জসিমউদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা দ্বীন মোহাম্মদ মেম্বার, সনমান্দী হাছান খান উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক ধর্মীয় শিক্ষক মোঃ নুরুল আমিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আ: রউফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইলিয়াস, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোফরান এবং সনমান্দি গ্রামের অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। পরে সকল শহিদদের এবং ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণকারী মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

ঘটনা সূত্রে, ১৯৭১ সালের ২৯ সেপ্টেম্বরের এই দিনে ভোরে পাক হানাদার বাহিনী ৩০/৪০টি বড় বড় নৌকা দিয়ে সনমান্দি গ্রামটিকে তিন দিক থেকে ঘিরে ফেলে। তখন ছিল বর্ষাকাল। গুলির শব্দে গ্রামবাসীর ঘুম ভাঙ্গে। নির্বিচারে গুলি বর্ষণের ফলে নারী-পুরুষ শিশুসহ মোট ১০ জন সেদিন শহীদ হয় এবং অর্ধশত ব্যক্তি গুলিতে আহত হন। গ্রামটিতে পেট্রোল এবং গান পাউডার ছিটিয়ে আগুন ধরিয়ে দিলে ৪০/৪১টি বাড়ি সম্পূর্ণরূপে ভস্মীভূত হয়। মুক্তিযোদ্ধারা পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তোলে এবং অপ্রতুল অস্ত্রশস্ত্রের কারণে শেষ পর্যন্ত পিছু হঠতে বাধ্য হয়।

১৯৭১ সালে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন সনমান্দি গ্রামে মুক্তিযুদ্ধকালীন ২নং সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার মেজর এটিএম হায়দারের অনুমোদনক্রমে সনমান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণের জন্য ‘সনমান্দি মুক্তিযোদ্ধা উপ-প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’ প্রতিষ্ঠা করা হয়।

এই উপ-প্রশিক্ষণ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা সোনারগাঁয়ের চিলারবাগ, লাঙ্গলবন্দ, রানদির খাল সহ বিভিন্ন সম্মুখ যুদ্ধে অংশগ্রহণ করে পাক বাহিনীকে পর্যদুস্ত করে। রাজাকারদের মাধ্যমে অবগত হয়ে সনমান্দি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধাদের নিধন এবং মুক্তিযোদ্ধা উপ- প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটিকে চিরতরে নিশ্চিহ্ন করার উদ্দেশ্যে বর্বর পাক বাহিনী এই ঘৃণ্য হত্যাযজ্ঞ চালায়।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution