• রাত ৯:৫০ মিনিট শনিবার
  • ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ঘোষণা স্বল্পদৈর্ঘ্য থ্রিলারে স্পর্শিয়া টিকা নিলেন প্রায় ৩০ লাখ মানুষ জাহানারা বললেন, ‘এখন আমরা ফিট’ রাস্তার কাজ সম্পন্ন করতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন এমপিএল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন সনমান্দিতে আমিনুল ইসলাম আমান ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সোনারগাঁয়ে আ.লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা সোনারগাঁও জাদুঘরের কারুশিল্পীদের দোকান বরাদ্দে উচ্চ আদালতে রিট ২ কোটি টাকা ব্যয়ে ওয়াটার সাপ্লাই পাইপের উদ্ধোধন সোনারগাঁয়ে ৭ হাজার ৭ শত পিস ইয়াবাসহ আটক ৩ ভোটারদের স্মার্ট কার্ড তুলে দিলেন চেয়ারম্যান শিপলু মাসব্যাপী লোকজ ও মেলা নিয়ে মত বিনিময় সভা আবারও চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হত্যা মামলায় জড়ানোর অভিযোগ চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসা যন্ত্রণাদায়ক: জয়া বুধবার ১০ জনের নমুনা পরিক্ষায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে বান্ধবীর সহায়তায় কিশোরীকে ধর্ষণ, বান্ধবী গ্রেপ্তার আল- মোস্তফা গ্রুপের জমি দখলের অভিযোগ আনন্দ শিপ ইয়ার্ডের বিরুদ্ধে টেকনাফে নারায়নগঞ্জের পর্যটকের লাশ উদ্ধার
খুনি মাজেদের লাশ সোনারগাঁয়ে দাফন করায় বিভিন্ন সংগঠনের ক্ষোভ

খুনি মাজেদের লাশ সোনারগাঁয়ে দাফন করায় বিভিন্ন সংগঠনের ক্ষোভ

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি আবদুল মাজেদের লাশ সোনারগাঁয়ে দাফন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।
রবিবার ভোরে নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলাধীন শম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর শশুর বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে খুনি মাজেদের নিকটাত্মীয়দের উপস্থিতিতে লাশ দাফন করা হয়।
সকালে ঘটনা জানাজানি হলে এ নিয়ে এলাকায় চরম ক্ষোভ দেখা দেয়। স্থানীয় আওয়ামীলীগ, মুক্তিযোদ্ধা ও সুশীল সমাজের লোকজন খুনি মাজেদের লাশ এখান থেকে উত্তোলন করে অন্যত্র দাফনের দাবি জানিয়েছেন। লাশ দাফনের খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য ও আওয়ামীলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান মাসুমের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যাক নেতাকর্মী ঘটনাস্থলে ছুটে যায় এবং জুতা হাতে প্রতিবাদ জানায়। এক পর্যায়ে তারা খুনি মাজেদের কবর খুড়তে শুরু করলে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তা থেকে বিরত থাকেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাসেল মাহামুদ, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সোনারগাঁ উপজেলা শাখার সভাপতি শেখ এনামুল হক বিদ্যুৎ, সোনারগাঁ থানা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি মেহের নেগার সোনিয়া, শম্ভুপুরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মোতালেব মিয়া, সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন, সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল ইসলাম বিজয় প্রমূখ।
শনিবার রাতে মাজেদের ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর তার লাশ গ্রামের বাড়ি ভোলায় নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভোলার জনগন ও রাজনৈতিক নেতাদের চাপে লাশ ভোলা না নিয়ে সোনারগাঁ নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ভোর রাতে অত্যন্ত গোপনীয়তা মধ্য দিয়ে মাজেদের শ্বশুর বাড়ি সোনারগাঁয়ের শম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর পারিবারিক কবরস্থানে নিয়ে লাশ দাফন সম্পন্ন করা হয়।
এ সময় খুনি মাজেদের চাচা শশুর আলী আক্কাস ও শ্যালক শহিদুজ্জামানসহ পরিবারের নিকট আত্মীয় স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।
এ ব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক এডভোকেট শামসুল ইসলাম বলেন, সকলের অজ্ঞাতসারে সোনারগাঁয়ে বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের লাশ দাফন করা হয়েছে। এজন্য সোনারগাঁ আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের পক্ষ থেকে তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়েছে। তার লাশ তার পৈত্রিক বাড়ি ভোলায় দাফন না করে সোনারগাঁ করায় আমরা ক্ষুব্ধ। এতে করে সোনারগাঁকে কলঙ্কিত করা হয়েছে বলে মনে করি।
নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদকে সোনারগাঁয়ে দাফনের মাধ্যমে সোনারগাঁয়ের মাটিকে কলঙ্কিত করা হয়েছে। এটা আমরা মেনে নিতে পারি না। খুনি মাজেদ যেহেতু সোনারগাঁয়ের সন্তান নয় সোনারগা এ কুলাঙ্গারকে জন্ম দেয়নি সুতরাং তার কবর সোনারগাঁয়ে হতে পারে না। জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে সবিনয় প্রার্থনা এ খুনি লাশ যাতে সোনারগাঁ থেকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয়।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution