• রাত ২:২২ মিনিট সোমবার
  • ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সাবেক এমপি কায়সার ও কালামের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন আওয়ামী লীগ নেতা লায়ন বাবুলের নাগিনী জোহার কবর জিয়ারত চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শ্রদ্ধা জানাতে এসে ধুলোবালিতে নেতাকর্মীরা মিলেমিশে একাকার কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের উদ্যােগে ৭ই মার্চ পালন সোনারগাঁয়ে থানা পুলিশের উদ্যোগে কেক কেটে আনন্দ উদযাপন ৭ মার্চ উপলক্ষে উপজেলা আহবায়ক কমিটির শ্রদ্ধা নিবেদন দাঁড়িয়ে কুরআন খতমই স্বাধীনতা দিবসের বিশেষ আয়োজন! লেখক মোশতাক হত্যার প্রতিবাদে সোনারগাঁয়ে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ক্রিকেট টূর্নামেন্টে সোনারগাঁও পৌরসভা গ্ল্যাডিয়েটর ৯ উইকেটে জয়ী বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে পিরোজপুর ২৯ রানের জয়ী সাবেক চেয়ারম্যান দেওয়ান উদ্দিন চুন্নু’র মত বিনিময় সভা যানজট ও ধুলোবালিতে অতিষ্ঠ পর্যটক এলাকা সোনারগাঁও নয়াগাঁও গ্রামে সংঘর্ষের ঘটনায় আহত আরো ১ জনের মৃত্যু সাদিপুরে তাহের আলী গংদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার স্বাধীনতা সুবর্ণ জয়ন্তী মুজিববর্ষ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল টিকা নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জাদুঘরে খাবার ও জামদানী দোকানকে জরিমানা সনমান্দি ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুনামেন্টের উদ্ধোধন চাঁদাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করে যুবলীগ সভাপতির প্রতিবাদ সভা
বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদকে সোনারগাঁয়ে দাফর করা হয়েছে

বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদকে সোনারগাঁয়ে দাফর করা হয়েছে

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ লাশ দাফনে ভোলায় স্থানীয়দের কঠোর আপত্তি থাকায় শম্ভুপুর ইউনিয়নের হোসেনপুর তার শশুরবাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

জেলা কর্তৃপক্ষের একটি সূত্র জানায়, মাজেদের লাশ তার শ্বশুরবাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ এলাকায় দাফন করা হবে। রোববার ভোরে মাজেদের লাশ তার শ্বশুর বাড়ি সোনারগাঁ উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।          

এর আগে শনিবার বিকেলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনি বরখাস্ত ক্যাপ্টেন মাজেদের ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর তার লাশ ভোলার মাটিতে না পাঠানোর দাবি জানান ভোলা-৩ (লালমোহন-তজুমদ্দিন) আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন। শনিবার বিকালে তার নির্বাচনী এলাকা লালমোহন উপজেলা আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে এ দাবি জানান তিনি।

প্রায় সাড়ে চার দশক আগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যায় সরাসরি অংশগ্রহণের দায়ে ক্যাপ্টেন (চাকরিচ্যূত) আব্দুল মাজেদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় শনিবার (১১ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২ টা ১ মিনিটে। কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এই ফাঁসি কার্যকর করা হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নতুন স্থাপিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এটিই প্রথম ফাঁসি। এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যা মামলায় মোট ৬ জনের ফাঁসি কার্যকর হলো। ২০১০ সালের ২৭ জানুয়ারি দিবাগত রাতে সৈয়দ ফারুক রহমান, বজলুল হুদা, এ কে এম মহিউদ্দিন আহমেদ, সুলতান শাহরিয়ার রশীদ খান ও মহিউদ্দিন আহমেদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। রায় কার্যকরের আগেই ২০০১ সালের জুনে জিম্বাবুয়েতে মারা যান আজিজ পাশা। পলাতক রয়েছেন খন্দকার আব্দুর রশিদ, নূর চৌধুরী, রাশেদ চৌধুরী, শরিফুল হক ডালিম ও মোসলেহ উদ্দিন।

এর আগে শুক্রবার বিকালে কারা কর্তৃপক্ষ মাজেদের পরিবারের সদস্যদের কাছে মোবাইলে ফোন করে শেষ দেখা করার তথ্য জানায়। শুক্রবার সন্ধ্যার পর মাজেদের স্ত্রী ডা. সালেহা বেগম, মাজেদের এক ভাই, এক বোন ও একজন ভাতিজাসহ ৫ জন কারাগারে দেখা করেন।

গত ৮ এপ্রিল মৃত্যর পরোয়ানা পড়ে শোনানোর পর সব দোষ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চান আব্দুল মাজেদ। প্রাণভিক্ষার আবেদনটি নাকচ করে দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। প্রাণভিক্ষার আবেদন রাষ্ট্রপতি বাতিল করে দেয়ার পর সেই চিঠিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছায়।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution