• সকাল ১১:৩৮ মিনিট সোমবার
  • ১১ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : শরৎকাল
  • ২৬শে আগস্ট, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে ডিজিটাল উপায়ে সামাজিক ভাতা প্রদানে অবহিতকরণ সভা সোনারগাঁয়ে শীতলক্ষ্যার তীরে কারখানা ডকইয়ার্ড ৬তলা ভবনসহ অর্ধশত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ইমামের গলাকাটা লাশ : পুলিশের দাবি ‘ক্লুলেস মার্ডার’ ভ্যাপসা গরমেই বাজারে শীতের সবজি সোনারগাঁয়ে শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী নুর হোসেন ইয়াবাসহ গ্রেফতার বৃষ্টি উপেক্ষা করে শোক সভায় হাজারো নেতাকর্মীদের ঢল সোনারগাঁয়ে মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় মাদক প্রতিরোধ কমিটির নেতার বাড়ীঘর ভাংচুর ও লুটপাট উপজেলা আওয়ামীলীগকে ওরা ওরস্যালাইনের মত বানাতে চায়..কালাম আহ্বায়ক কমিটি মাঠে নামলেই কোমর ভেঙ্গে দিন…মোশারফ হোসেন আগামী দিনে প্রমান হবে কারা থাকবে কারা থাকবে না.. মাসুদ দুলাল স্থানীয় প্রশাসনকে কায়সার হাসনাতের হুশিয়ারী সোনারগাঁয়ে শোকসভা উপলক্ষে জনসভা সোনারগাঁয়ে বিয়ের প্রলোভনে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক ইঞ্জিনিয়ার মাসুমকে নিয়ে নেতাকর্মীদের আবেকঘন ফেসবুক স্ট্যাটাস ভাইরাল আজ কায়সার, মোশারফ, কালাম ও দুলালের উদ্যোগে শোকসভা, জনস্রোতের প্রস্তুতি সোনারগাঁয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ আহত-৪ সিদ্ধান্ত আমরা নিবো কোন পেতাত্মার খবরদারি চলবেনা..কায়সার হাসনাত দুষ্টের দমন সৃষ্টের পালনের প্রত্যয়ে সোনারগাঁয়ে শোভাযাত্রা সোনারগাঁয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা কায়সার, মোশারফ, কালাম ও দুলালের উপস্থিতে বর্ধিত সভায় নিজেদের ঐক্য অটুট রাখার প্রত্যয়
সোনারগাঁয়ে নিজ গ্রামে শায়িত হলেন বনানীতে আগুনে নিহত জাফর

সোনারগাঁয়ে নিজ গ্রামে শায়িত হলেন বনানীতে আগুনে নিহত জাফর

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

রাজধানীর বনানী এফআর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডে নিহত আহম্মেদ জাফরের(৬০) লাশ তার নিজ গ্রাম সোনারগাঁয়ের শম্ভুপুরা ইউনিয়নের নবীনগরে দাফন করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৯ মার্চ) বাদ জুম্মা সোনারগাঁ নবীনগর গ্রামের পৈত্রিক বাড়ির পাশে একটি মাঠে জানাযা শেষে নবীনগর সামাজিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

অগ্নিকান্ডে নিহত আহম্মেদ জাফরের পরিবারের সূত্রে জানা যায়, তার চাচা আহম্মেদ জাফর সোনালী ব্যাংকে প্রিন্সিপাল অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গত সেপ্টেম্বরে তিনি অবসরে চলে যান। মাত্র তিন মাস আগে তিনি হাসিফ ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি বেসরকারী সংস্থায় ট্রান্সপোর্ট বিভাগের প্রধান হিসেবে যোগ দেন। বনানীর এফ আর টাওয়ারের ৮ম তলায় তার অফিস ছিলো।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) অগ্নিকান্ডের সময় তিনি ওই অফিসেই অবস্থান করছিলেন। পরিবারের সদস্যরা টিভি স্ক্রলে অগ্নিকান্ডের সংবাদ দেখে আহম্মেদ জাফরের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তারা তাকে ফোনে পাননি। পরে পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গেয়ে তার লাশ সনাক্ত করেন।

আহম্মেদ জাফর ঢাকার মোহাম্মদপুরের আহম্মেদীয়া হাউজিংয়ে স্ব-পরিবারে বসবাস করতেন। সোয়েব আহম্মেদ নামে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া তার এক ছেলে রয়েছে।

আহম্মেদ জাফরের আরেক ভাতিজা জাকির হোসেন জানান, চাকুরি সূত্রে আমি ঢাকার শাহিনবাগ এলাকায় বসবাস করি। অগ্নিকান্ডের খবর শুনার পর সাথে সাথে মোবাইলে চাচার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু অপর প্রান্ত থেকে কেউ ফোন রিসিভ করেননি।

তিনি আরো জানান, প্রায় ৩০-৩৫ বছর আগে আহম্মেদ জাফর ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা সোনারগাঁয়ের নবীনগর গ্রাম ছেড়ে ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। বর্তমানে তিনি সোনারগাঁয়ে নবীনগরে তাদের পৈত্রিক ভিটা থাকলেও এখানে কেউ থাকেনা।

তিনি বলেন, ব্যক্তি জীবনে আহম্মেদ জাফর অত্যন্ত মেধাবী ও বিনয়ী ছিলেন। তিনি এলাকায় বসবাস না করলেও কারো মৃত্যু সংবাদ শুনলে এলাকায় ছুটে আসতেন। তাছাড়া বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানেও নিয়মিত আসতেন।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution