• রাত ৩:১৩ মিনিট রবিবার
  • ২৪শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ৬ই জুন, ২০২০ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি মানে না অনেকেই সোনারগাঁয়ে আরো ৮ জনের দেহে করোনা সনাক্ত, মোট আক্রান্ত ২৭৯ করোনার উপসর্গ নিয়ে নারীর মৃত্যু, ৬ ঘন্টা পর এমপি খোকার সহায়তায় দাফন সোনারগাঁয়ে ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত নেই দুধঘাটা ও পাঁচানী সড়কে বৃষ্টি হলেই বন্যা ! মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে উপজেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের শোক বীর মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার হোসেনকে রাষ্টীয় মর্যাদায় শেষ বিদায় জানালেন ইউএনও সাইদুল ইসলাম বৈরী আবহাওয়ায়ও লক ডাউন পরিবারে পৌছে যাচ্ছে এমপি খোকার খাবার সোনারগাঁয়ে ২দিনে করোনা আক্রান্ত সংখ্যা গড়ে সাড়ে ৩৮% সোনারগাঁয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ সদস্য নিহত সোনারগাঁয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ৬৩ জনের মধ্যে ২৮ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ১৫ জনের মৃত্যু, মৃত্যুর কারণ গোপন করছে পরিবার মৃত ব্যক্তির দেহে কতক্ষণ সক্রিয় থাকে করোনা ভাইরাস প্রধানমন্ত্রীর উপহার অসহায়দের পৌছে দিলেন চেয়ারম্যান ইঞ্জি: মাসুম সোনারগাঁয়ে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামুলক নয়তো জরিমানা সোনারগাঁয়ে ৭৫ জনের মধ্যে ২৫ জনের দেহে করোনা সনাক্ত, মোট সনাক্ত ২৩৮ জান্নাতি ও জাহান্নামিদের মাঝে কথোপকথন!.. তুহিন মাহমুদ করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তিদের দাফনের ব্যবস্থা করলেন এমপি খোকার টিম বারদীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে ২ ব্যক্তির মৃত্যু লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ১৩০ তিরোধান উৎসব স্থগিত
সোনারগাঁয়ে এবার ভুল চিকিৎসায় ছাগরের মৃত্যু

সোনারগাঁয়ে এবার ভুল চিকিৎসায় ছাগরের মৃত্যু

Logo

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম: সোনারগাঁয়ে ১০ দিনের ব্যবধানে ভুল চিকিৎসায় ২ জন প্রসূতির মৃত্যুর পর এবার ভুল চিকিৎসা ও পিয়নের দেয়া ইনজেকশনে একটি ছাগরের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আরো ৩টি ছাগর পঙ্গু হয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের পিয়ন দিয়ে চিকিৎসা করা হয় বিভিন্ন প্রাণীর। ২২ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের পিয়নের ইনজেকশনে টুটুল মিয়া ইনজেকশন পুশ করে একটি উন্নত জাতের ছাগলের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও আরো তিনটি ছাগল ও একটি ভোড়া পঙ্গু হয়ে যায়। তবে এ ঘটনার বিষয়ে দায়ী করেছেন ভেটনারী ইনচার্জ শাখাওয়াত হোসেনকে।ছাগরের মালিক অভিযোগ করেন ভুল চিকিৎসা ও পিয়নকে দিয়ে ইনজেকশন পুশ করানোর জন্যই ছাগলের এ অবস্থা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার উদ্ভবগঞ্জ এলাকার ফারুক মিয়ার ছেলে রিফাত রংপুর থেকে তোতাপুরি নামের উন্নত জাতের চারটি ছাগল কিনে নিয়ে আসে। ছাগলগুলোর সর্দি হলে চিকিৎসার জন্য সোনারগাঁ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ে নিয়ে যায়। এসময় ওই কার্যালয়ে কোন ভেটনারী ডাক্তার না থাকায় ওই অফিসের পিয়ন টুটুল মিয়া ছাগলগুলোকে ইনজেকশন পুশ করে। এতে ঘটনাস্থলেই একটি ছাগলের মৃত্যু হয়। বাকী তিনটি ছাগল ইনজেকশন পুশ করার আধা ঘন্টা পর পঙ্গু হয়ে যায়।

ছাগলের মালিক রিফাত মিয়া জানান, ছাগলগুলোর সর্দি হলে পশু হাসপাতালে নিয়ে যাই। আমি ডাক্তার পিয়ন কাউকে চিনি না। পরে জানতে পারি আমার ছাগলগুলোকে যে ইনজেকশন দিয়েছেন তিনি এ হাসপাতালের পিয়ন। ইনজেকশন দেওয়ার পর পরই আমার একটি ছাগলের মৃত্যু হয়। আধাঘন্টা পর তিনটি ছাগল পঙ্গু হয়ে যায়।

সোনারগাঁ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের পিয়ন টুটুল মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, শাখওয়াত স্যারের সাথে পরামর্শ করে ছাগলগুলোকে ইনজেকশন পুশ করেছি।

চিকিৎসা করতে পারেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি নিশ্চুপ হয়ে যান।

সোনারগাঁ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের ভেটনারী ইনচার্জ ডা. শাখওয়াত হোসেন জানান, লোকবল কম থাকার কারণে এ অফিসের ছোটখাট কাজগুলো পিয়ন দিয়ে করানো হয়। তবে নিয়ম না থাকলেও কোন উপায় থাকে না।

সোনারগাঁ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Logo
এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution