• রাত ১২:৫২ মিনিট শনিবার
  • ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ১৫ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
ঝাউচর মাদ্রাসায় কৃতি শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরন ২৫ টাকার পেয়াজ কেন ২৫০ টাকা ? ব্যবসায়ীর বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় থানায় মামলা সোনারগাঁয়ে ১৪০০ পিস ইয়াবাসহ কামাল আটক সোনারগাঁয়ে ২মাস ধরে গৃহবধু নিখোঁজ, থানায় অভিযোগ সংস্কারের অভাবে হোসেনপুর সড়কের বেহাল দশা বারদীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান জেলেদের খাদ্য সহায়তার চাল পেতে সাড়ে ৫ ঘন্টা অপেক্ষা সোনারগাঁ সেন্ট্রাল হাসপাতালের যাত্রা শুরু নিয়ম ভেঙ্গে ফরম ফিলাপের চারগুণ টাকা আদায় করছে এস আর স্কুল সভাপতির যোগ্যতা স্নাতক করায় পদ হারাতে পারে সোনারগাঁয়ে অনেক নেতা সোনারগাঁয়ে দুই নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক নাঃগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগে স্থান পেলেন সোনারগাঁয়ের সামসুজ্জামান ও দুলাল ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের দোষলেন মালিকরা দ্বীন ইসলাম হত্যার সঙ্গে জড়িত রাজুকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ ২ সন্তানের জননীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা সোনারগাঁয়ের আওলাদ হোসেনের ১৪ বছরের কারাদন্ড কায়সার বাদে যুবলীগের ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বদলী
শবেবরাতের নামাজ কীভাবে পড়তে হবে?

শবেবরাতের নামাজ কীভাবে পড়তে হবে?

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ শবেবরাত উপলক্ষে বিশেষ পদ্ধতির কোনো নামাজ আছে কি না-এ প্রশ্ন অনেকে করে থাকেন। একধরনের চটি বই পুস্তিকায় বিভিন্ন নিয়মের কথা লেখাও থাকে। বিশেষ বিশেষ সূরা দিয়ে নামাজ পড়া বা নির্ধারিত রাকাত নামাজ বিশেষ সূরা দ্বারা আদায় করা ইত্যাদি।

প্রশ্ন: হাদিস শরিফে এ রাতে বিশেষ পদ্ধতির কোনো নামাজ আছে কি? থাকলে তা জানতে চাই। তদ্রুপ কেউ কেউ এ রাতে জামাতের সঙ্গে নফল নামাজ পড়তে চায়। এ ব্যাপারে শরয়ী বিধান কী?

উত্তর: শবেবরাতে বিশেষ পদ্ধতির কোনো নামাজ নেই। সব সময় যেভাবে নামাজ পড়া হয় সেভাবেই পড়বে অর্থাৎ দুই রাকাত করে যত রাকাত সম্ভব হয় আদায় করবে এবং যে সূরা দিয়ে সম্ভব হয় পড়বে। তদ্রুপ অন্যান্য আমলেরও বিশেষ কোনো পন্থা নেই। কোরআন তেলাওয়াত, জিকির-আজকার, দোয়া-ইস্তেগফার ইত্যাদি নেক আমল যে পরিমাণ সম্ভব হয় আদায় করবে।

তবে নফল নামাজ দীর্ঘ করা এবং সিজদায় দীর্ঘ সময় অতিবাহিত করা উচিত, যা হাদিস শরিফ থেকে জানা যায়। বিভিন্ন বই-পুস্তকে নামাজের যে নির্দিষ্ট নিয়মকানুন লেখা আছে অর্থাৎ এত রাকাত হতে হবে, প্রতি রাকাতে এই এই সূরা এতবার পড়তে হবে-এগুলো ঠিক নয়।

হাদিস শরিফে এ ধরনের কোনো নিয়ম নেই, এগুলো মানুষের মনগড়া পন্থা।

বলাবাহুল্য যে, যে কোনো বই-পুস্তিকায় কোনো কিছু লিখিত থাকলেই তা বিশ্বাস করা উচিত নয়। বিজ্ঞ আলিমদের কাছ থেকে জেনে আমল করা উচিত। শবেবরাতের নফল আমলসমূহ, বিশুদ্ধ মতানুসারে একাকী করণীয়। ফরজ নামাজ তো অবশ্যই মসজিদে জামাতের সঙ্গে আদায় করতে হবে।

এরপর যা কিছু নফল পড়ার তা নিজ নিজ ঘরে একাকী পড়বে। এসব নফল আমলের জন্য দলে দলে মসজিদে এসে সমবেত হওয়ার প্রমাণ হাদিস শরিফেও নেই আর সাহাবায়ে কেরামের যুগেও এর রেওয়াজ ছিল না। ইকতিযাউস সিরাতিল মুসতাকীম ২/৬৩১-৬৪১; মারাকিল ফালাহ পৃ. ২১৯

তবে কোনো আহ্বান ও ঘোষণা ছাড়া এমনিই কিছু লোক যদি মসজিদে এসে যায় তাহলে প্রত্যেকে নিজ নিজ আমলে মশগুল থাকবে, একে অন্যের আমলে ব্যাঘাত সৃষ্টির কারণ হবে না।

উত্তর প্রদানে: ফতওয়া বিভাগ, মারকাযুদ দাওয়াহ আল ইসলামিয়া, পল্লবী, মিরপুর, ঢাকা

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution