• সকাল ৮:০৪ মিনিট বুধবার
  • ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ১২ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁ রয়েল রির্সোট হামলায় ঘটনায় সানি গ্রেপ্তার সোনারগাঁয়ে ৭টি দোকানে ভূস্মিভূত, ২০ লাখ টাকার ক্ষতি থানা যুবলীগের ব্যানারে বৈদ্যেরবাজারে আল-আমিন সরকারের ঈদ সামগ্রী বিতরণ রোজা হবে ৩০টি: সৌদি আরব খালেদা জিয়া ও মান্নানের সুস্থতা কামনায় দোয়া ও ঈদ সামগ্রী বিতরন চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনির উদ্যোগে ২৫০০ জনকে ঈদ সামগ্রী বিতরন সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় ৬ জনের দেহে করোনা সনাক্ত চেয়ারম্যান প্রার্থী আল-আমিন সরকারের উদ্যোগে ১৫শ পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন সোনারগাঁয়ে থানা ছাত্রদলের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ে চোরাই মোবাইল বেচাকেনার অভিযোগে ২জন আটক সোনারগাঁয়ে আরো ৬ জনের দেহে করোরা সনাক্ত রাস্তায় ঘুরে ঘুরে আওয়ামীলীগ নেত্রীর অসহায়দের ইফতার বিতরন কনকাপৈত ইউপি চেয়ারম্যান জাফর ইকবালের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ না:গঞ্জে মামুনুল হকের রিমান্ড শুনানী আবারও পেছালো সোনারগাঁয়ে বাড়ি মালিকের স্ত্রীকে হত্যা করে সর্বস্ব লুট সনমান্দিতে আবুল হাসেম রতনের ঈদ উপহার বিতরণ সাদিপুরে কনফিডেন্স এর উদ্যোগে ১ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা ইঞ্জিনিয়ার মাসুমের উদ্যোগে স্বজনদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ যাত্রীবাহি প্রাইভেট উঠার আগে সাবধান. ওসি হাফিজুর ইসলাম
মাদকমুক্ত রাখতে খেলার মাঠের ব্যবস্থা করলেন ইউপি সদস্য

মাদকমুক্ত রাখতে খেলার মাঠের ব্যবস্থা করলেন ইউপি সদস্য

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:  মাদক থেকে যুব সমাজকে বাঁচাতে ও সুস্থ সুন্দর জীবন গড়তে নিজের অর্থায়নে জমি ভাড়া করে খেলার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তোতা মেম্বার। তার ওয়ার্ডে কোন খেলার মাঠ না থাকায় স্থানীয় ছাত্র ও যুবকরা মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়তো। তখন তোতা মেম্বার উপলব্ধি করেন খেলাধুলা যুব সমাজকে বিভিন্ন অপরাধ মূলক কাজকর্ম থেকে বাঁচাতে পারে ও সুস্থ রাখতে পারে। তার সেই উপলব্ধি থেকেই বিগত ৫ বছর যাবত ৪৪ শতাংশ জমি ভাড়া করে যুবকদের খেলার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড একটি জনবহুল এলাকা। ফতেপুর, জোয়ারদী, সাজালকান্দি ও কুমারচর এ চারটি গ্রাম নিয়ে ৩নং ওয়ার্ড। ইউনিয়নের অন্য ওযার্ডের তুলনায় এর আয়তনও অনেক বেশী। কিন্তু এ এলাকায় কোন খেলার মাঠ না থাকায় স্থানীয় ছাত্র ও যুবকরা খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত।

খেলাধুলার সুযোগ না থাকায় ধীরে ধীরে ছাত্র ও যুবকরা মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধ মুলক কাজে জড়াতে শুরু করে। তখন ওই এলাকার মৃত নুরু মিয়ার ছেলে (বর্তমানে ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার তোতা মিয়া) সাজালকান্দি এলাকায় ফসলি জমির পাশে একটি ৪৪ শতাংশ জমি মালিকের কাছ থেকে বছর মেয়াদী ভাড়া নিয়ে স্থানীয় শিশু কিশোর ও যুবকদের খেলার ব্যবস্থা করে দেন। জমির মালিকের কাছ থেকে বছরে ৫ হাজার টাকায় জমিটি ভাড়া করে দেন। তিনি শুধু জমিটি ভাড়াই করেননি তাদের খেলার জন্য সরঞ্জামাদিও কিনে দেন এবং কোন ছাত্র স্কুল ফাকি দিয়ে যাতে খেলার মাঠে পড়ে না থাকে তার জন্য তিনি নিজে প্রতিদিন এসে তদারকি করেন। এছাড়া এ মাঠে খেলা নিয়ে যাতে কোন ঝগড়ার সৃষ্টি না হয় সেজন্য প্রত্যেক গ্রামে ছাত্র ও যুবকদের আলাদা করে সময়ও বেধে দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে দশম শ্রেণীর ছাত্র শাহপরান জানান, আমাদের এলাকায় কোন খেলার মাঠ না থাকায় আমরা খেলাধুলা না করে বিভিন্ন জায়গায় আড্ডা দিতাম। কিন্তু এখন খেলার মাঠটি পাওয়ায় আড্ডার সময় পাইনা। লেখাপড়া শেষ করে যখনই সময় পাই তখই মাঠে এসে বন্ধুদের সাথে খেলা করি।
স্থানীয় কিশোর বায়জিদ ও শামীম জানান, মেম্বার সাহেব আমাদের জন্য মাঠ ভাড়া করে খেলার ব্যবস্থা করে দেয়ায় আমরা অনেক খুশি।

এ ব্যাপারে ৩নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার রুহুল আমিন জানান, আমার ওয়ার্ডে কোন খেলার মাঠ না থাকায় এসময় যুবক ও ছাত্ররা খেলাধুলা থেকে পিছিয়ে পড়েছিল। এখন খেলার মাঠ থাকায় তারা খেলাধুলার দিক দিয়ে অন্য ওয়ার্ড থেকে অনেক এগিয়ে গেছে। সরকার যদি এ ওর্য়াডে একটি স্থায়ী খেলার মাঠ করে দিতো তাহলে এলাকার ছেলে মেয়েরা নির্ভিগ্নে খেলাধুলার সুযোগ পেত।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য তোতা মেম্বার জানান, গত কয়েক বছর আগে দেখেছি আমার এলাকায় কোন খেলার মাঠ না থাকায় যুবকরা মাদকাসক্ত হয়ে পড়তো। আমি তখন চিন্তা করলাম তাদের জন্য কিছু করা দরকার। সেই উপলব্ধি থেকে আমি চিন্তা করলাম এখানে একটি খেলার মাঠ করলে যুবকরা খেলাধুলা করতে পারবে। আর খেলাধুলায় থাকতে তারা বাজে নেশা থেকে সরে আসবে। সেই চিন্তা থেকে ৬ বছর আগে এ মাঠটি আমি মালিকের কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে তাদের খেলার জায়গা করে দেই। এ মাঠটি পেলে যুবকরা এখন অনেকটাই ভালো হয়ে গেছে। তারা এখন মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধ থেকে সরে এসেছে।

আমার ওয়ার্ডের অলিপুরা বাজারের সাথে একটি সরকারী দিঘী রয়েছে সরকারীভাবে সেটা যদি বালু দিয়ে ভরাট করে দেয় তাহলে এ ইউনিয়নের দুটি ওয়ার্ডের ছাত্র ও যুবকরা খেলাধুলা করার সুযোগ পাবে।

এ ব্যাপারে সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ বলেন, ওই এলাকায় কোন খেলার মাঠ নেই। খেলাধুলার ব্যবস্থা থাকলে যুব সমাজ মাদকসহ কোন অপরাধে জড়ানোর সুযোগ পায় না। তাই খেলার মাঠের বিকল্প নাই। অলিপুরা এলাকায় একটি সরকারী দিঘী রয়েছে। এটি বালু দিয়ে ভরাট করতে পারলে স্থানীয় ছেলে মেয়েদের জন্য স্থায়ীভাবে একটি মাঠের ব্যবস্থা করা যাবে। এ ব্যাপারে আমি কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহীনুর ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে আমি অবগত নই। তবে এলাকাবাসী আমার সাথে যোগাযোগ করলে আমি স্থায়ী মাঠের ব্যবস্থা করার করবো।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution