• সকাল ৬:১৪ মিনিট রবিবার
  • ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে দৃষ্টিনন্দন কাঁশবন বিক্রির হিড়িক সংঘর্ষের আশঙ্কা সোনারগাঁয়ে ১৪ দিন ধরে যুবক নিখোঁজ ক্যান্সার আক্রান্ত সহপাঠির চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন ইউএস বাংলার এমডি সোনারগাঁয়ে কুকুর লেলিয়ে ইউএনও’র কাজে বাঁধা ! সোনারগাঁয়ে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১ সুস্থ ১ প্রবীন আইনজীবি রফিক- উল হক আর নেই মুক্তিযোদ্ধা শ্রী বিদ্যুৎ কুমার ভৌমিক আর নেই সোনারগাঁয়ে ১ লাখ ৫ হাজার মিটার জাল ও ইলিশ মাছ জব্দ সোনারগাঁয়ে নতুন করে কারো দেহে করোনা সনাক্ত হয়নি সাদিপুর ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির নেতাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা এড: সামসুল ইসলাম ভুইয়া ও ডা: আবু জাফর বিরু’র উপর তৃনমুল নেতাকর্মীদের ক্ষোভ সিদ্ধিরগঞ্জে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় সোনারগাঁয়ের নাছির গ্রেফতার সোনারগাঁয়ে দেবী দুর্গার বােধন ও অধিবাসে দুর্গাপূজা শুরু সোনারগাঁয়ে ৯ জনের নমুনায় করোনা আক্রান্ত ৩ জন অজ্ঞাত ব্যক্তির পরিচয় খুঁজছে পুলিশ সোনারগাঁয়ে দেয়াল চাপা পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু ধর্ষণ: বাংলাদেশের প্রচলিত আইনে ধর্ষিত ছেলেদের সুবিচার পাওয়ার সুযোগ কতটা আছে সোনারগাঁয়ে শুরুতেই জাতীয়পার্টির কাছে ধরাশয়ী আওয়ামীলীগ মহাষষ্ঠীর মাধ্যমে আগামীকাল থেকে সোনারগাঁয়ে ৩৩টি মন্ডবে দুর্গাপূজা শুরু নোয়াগাঁও ওয়ার্ড উপ নির্বাচনে মোরগ মার্কা জয়ী
লিটন সত্যিই পক্ষপাতিত্বের শিকার, নাকি আইনে আছে এমন আউট?

লিটন সত্যিই পক্ষপাতিত্বের শিকার, নাকি আইনে আছে এমন আউট?

Logo


লিটন দাসের এক আউট নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে। বিতর্কটা হয়তো কিছুটা চেপে যেত, যদি বাংলাদেশ এশিয়া কাপের ফাইনালটায় সহজেই হেরে যেত। তেমনটা হয়নি। ভারতের বিপক্ষে তারা হেরেছে একেবারে শেষ বলে এসে। এমন হারের পর স্বভাবতই আফসোসটা আরও বেড়েছে-ইশ, লিটন আর দুই চারটা বল বেশি খেলতে পারলেও হয়তো ট্রফিটা জিতে যেতাম আমরা!

মাঠের খেলায় ভুল সিদ্ধান্ত হতেই পারে। তবে একটি ভুল সিদ্ধান্ত অনেক সময় পুরো ম্যাচের জয় পরাজয়ের নির্ণায়ক হয়ে দাঁড়ায়। লিটন যদি সত্যিই ভুল সিদ্ধান্তে আউট হয়ে থাকেন কিংবা পক্ষপাতিত্বের শিকার হয়ে থাকেন, তবে তো আফসোস থাকবেই। থাকারও কথা।

রড টাকারও এক দুইবার দেখে সিদ্ধান্তটি নিতে পারেননি। বার কয়েক জুম করা হয়, আবার টেনে টেনে দেখা হয়। তিনি যেন পরিষ্কারভাবে বুঝতে পারছিলেন না। মনে সংশয় ছিল। ক্রিকেটে ‘বেনিফিট অব ডাউট’ বলে একটা কথা আছে। যদি কোনো আউট পরিষ্কারভাবে বোঝা না যায়, সেক্ষেত্রে সেটা ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায়।

এই আইনে অবশ্যই লিটনের পক্ষে সিদ্ধান্তটা আসার কথা ছিল। এই জায়গায় পক্ষপাতিত্বের একটা প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। তবে আম্পায়ার যে আসলেই দ্বিধাগ্রস্থ ছিলেন, তার মনে সন্দেহ ছিল, সেটা সবাই আন্দাজ করতে পারলেও প্রমাণসাপেক্ষে বলা যায় না। স্বভাবতই তখন চলে আসে আরেকটি হিসেব। সন্দেহ-সংশয় বাদ দিলে ক্রিকেটীয় আইন আসলে এই আউটের ব্যাপারে কি বলে?

আইনের ধারায় গেলে অবশ্য লিটনের এই আউটটি নিয়ে প্রশ্ন তোলার উপায় নেই। ক্রিকেটের আইনের ৩৯তম ধারায় স্ট্যাম্পিং সম্পর্কে বলা হয়েছে, ‘একজন ব্যাটসম্যান আউট হবেন, যদি ক্রিজের বাইরে থাকেন এবং সেটা রান নেয়ার চেষ্টাতে নয়।’

এই আইনের ব্যাখ্যায় ক্রিজের বাইরে থাকা সম্পর্কে বলা আছে, ‘ব্যাটসম্যানের শরীর বা তার ব্যাটের কোনো অংশ ক্রিজের মধ্যে মাটিতে স্পর্শ না করা। যদি তার ব্যাট একটুখানিও মাটি থেকে উঁচু হয়ে থাকে, ক্রিজের পেছনে থাকা সত্ত্বেও কিংবা যদি তার পা ক্রিজের লাইনের মধ্যে থাকে, কিন্তু সেটা পুরোপুরি লাইন ক্রস না করে এবং পেছনের মাটি স্পর্শ না করে, তবে তিনি আউট হবেন।’

এই আইন অনুযায়ী, লিটন দাস অবশ্যই আউট ছিলেন। তবে তৃতীয় আম্পায়ার বারবার জুম করে আউটটা দেখার চেষ্টা করাতেই অন্য বিতর্কটা তৈরি হয়েছে-সন্দেহ থাকলে তো সেটা ব্যাটসম্যানের পক্ষেই যাওয়ার কথা!


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution