• ভোর ৫:২৬ মিনিট রবিবার
  • ১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বর্ষাকাল
  • ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সুনামগঞ্জে ৩ হাজার বন্যার্ত পরিবারের মাঝে সোনারগাঁ থানা বিএনপির ত্রাণ বিতরন কায়সার-মাসুমের তত্ত্ববধানে বিশাল মোটর শোভাযাত্রা ও বিজয় র‌্যালি বাকবিতন্ডার পর বিজয় র‌্যালিতে হাস্যজ্জল দুই নেতা সোনারগাঁয়ে ৭০ বছরের বৃদ্ধাকে ১৭ বার জুতা পেটা! নেতাদের বাকবিতন্ডায় অস্থিরতা উপজেলা আওয়ামীলীগে নদী দূষণ ঠেকাতে গোসল করে অভিনব প্রতিবাদ সোনারগাঁয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাইকে কুপিয়ে জখম সোনারগাঁয়ে যুবলীগ নেতার উপর হামলা ॥ আহত-৩ আওয়ামীলীগের ৭৩ বছর পর সোনারগাঁয়ে রাজাকারদের স্বীকৃতি দিচ্ছে চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে দীপ এর আলোচনা সভা ঈদের পর হতে পারে এসএসসি পরীক্ষা, পেছাবে এইচএসসি ও টানা ২য় দিনে কাঁচপুরে সওজের উচ্ছেদ অভিযান নোয়াগাঁও ভুমি কর্মকর্তার যোগ সাজসে সরকারী গাছ কেটে দোকান নির্মানেরর অভিযোগ সোনারগাঁও পৌরসভায় কীটনাশক পানে নারীর মৃত্যু কাঁচপুরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ স্বপ্ন পদ্মা সেতু পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বর্ণের চেইন ও ফলমুল অনৈতিক কাজে বাঁধা: সোনারগাঁয়ে পিতাকে পিটিয়ে আহত ডাকাত সর্দারের হাত-পা ভেঙ্গে পায়ের রগ কেটে দিলো এলাকাবাসী
চলেই গেল মুক্তামণি

চলেই গেল মুক্তামণি

Logo


বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার সেই মুক্তামণি আর নেই। বুধবার সকাল ৮টার দিকে সদর উপজেলার কামারবায়সা গ্রামের নিজ বাড়িতেই মৃত্যু হয় ১২ বছর বয়সী মুক্তামণির।

মুক্তামণির বাবা ইব্রাহিম গাজী জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত কয়েকদিন থেকেই মুক্তামণির শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। তার হাত আগের থেকে অনেক ফুলে গিয়েছিল। ঢাকা মেডিকেল থেকে করে দেয়া ব্যান্ডেজ খুলে পরিষ্কার করার সময় হাত থেকে বেরিয়ে আসছিল বড় বড় পোকা। হাতটি কয়েকগুণ ফুলে যাওয়ায় দুই-এক ঘণ্টা ছাড়া সারাদিনই শুয়ে থাকতে হতো তাকে। দুর্গন্ধ বেড়েছিল অনেক বেশি। রোগের বিস্তার ধীরে ধীরে বুক, পেট আর পায়েও ছড়িয়ে পড়ছিল। তার সুস্থতার ভরসা রাখতে পারছিলেন না চিকিৎসকরাও। চিকিৎসকের নির্দেশমতো বন্ধ ছিল সব ধরনের ওষুধ সেবন।

২০১৭ সালের ২২ ডিসেম্বর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বাড়ি নিয়ে আসা হয় মুক্তামণিকে। প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসার দায়িত্ব নেয়ার পর তাকে সিঙ্গাপুরে নেয়ারও উদ্যোগ নেয়া হয়। তবে সেখানকার চিকিৎসকরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মুক্তামণির হাত দেখে আঁতকে ওঠেন। একইসঙ্গে হাত অপারেশনের জন্য অপারগতা প্রকাশ করেন। এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটের চিকিৎসকরা দেশেই অপারেশন করার সিদ্ধান্ত নেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর কয়েক দফা অপারেশনও করেন। তবে হাতের কোনো পরিবর্তন আনতে পারেননি।

অবশেষে দীর্ঘ ৬ মাস চিকিৎসা সেবার পর এক মাসের ছুটিতে বাড়িতে আসে মুক্তামণি। তবে পরবর্তীতে মুক্তামণি আর ঢাকায় যেতে অনিচ্ছা প্রকাশ করে। একইসঙ্গে মুক্তামণির অবস্থার পরিবর্তন না হওয়ায় ঢাকায় যেতে নিরুৎসাহী হয়ে পড়ে তার পরিবারও।

সর্বশেষ ১৯ মে মুক্তামণির সঙ্গে কথা হয় জাগো নিউজের সাতক্ষীরা প্রতিনিধির। তখন সে বলে, ‌‘আমি আর সুস্থ হব না। ডাক্তার স্যাররা অনেক চেষ্টা করেছেন। কিন্তু আমাকে সুস্থ করতে পারেননি। জানি না কতদিন এভাবে বেঁচে থাকব আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।’ সুত্র জাগো নিউজ


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution