• রাত ৮:৪৮ মিনিট বৃহস্পতিবার
  • ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সংস্কারের অভাবে হোসেনপুর সড়কের বেহাল দশা বারদীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান জেলেদের খাদ্য সহায়তার চাল পেতে সাড়ে ৫ ঘন্টা অপেক্ষা সোনারগাঁ সেন্ট্রাল হাসপাতালের যাত্রা শুরু নিয়ম ভেঙ্গে ফরম ফিলাপের চারগুণ টাকা আদায় করছে এস আর স্কুল সভাপতির যোগ্যতা স্নাতক করায় পদ হারাতে পারে সোনারগাঁয়ে অনেক নেতা সোনারগাঁয়ে দুই নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক নাঃগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগে স্থান পেলেন সোনারগাঁয়ের সামসুজ্জামান ও দুলাল ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের দোষলেন মালিকরা দ্বীন ইসলাম হত্যার সঙ্গে জড়িত রাজুকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ ২ সন্তানের জননীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা সোনারগাঁয়ের আওলাদ হোসেনের ১৪ বছরের কারাদন্ড কায়সার বাদে যুবলীগের ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বদলী সােনারগাঁয়ে সাহায্য দেওয়ার কথা বলে ২ সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগ সোহেল নামের এক যুবকের ২ মাসের কারাদন্ড সোনারগাঁ নয়াপুরে নাহিত ও রাজীব চোরের উপদ্রবে অতিষ্ট এলাকাবাসী স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে গেলেন মেয়র, ভয়ে চুপ স্বামী পুলিশের সোর্স পুলিশ পরিচয় দিয়ে ২ যুবককে অপহরন করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা
ট্রেনে ভোগান্তি নিয়ে বাড়ি ফেরা শুরু

ট্রেনে ভোগান্তি নিয়ে বাড়ি ফেরা শুরু

রাজধানীর যান্ত্রিক জীবনের সাময়িক বিরতি দিয়ে কর্মজীবী মানুষের সামনে আসে প্রিয়জনের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়ার মুহূর্ত। আর সেই আনন্দ প্রিয়জনদের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে রাজধানীবাসী। ঈদ যাত্রার প্রথম দিনেই বেশিরভাগ ট্রেন-ই বিলম্বে ছেড়েছে। ফলে ভোগান্তি হলেও তা মেনেই ঘরে ফিরছেন মানুষ।

ঘরমুখো মানুষের ভিড়ে শুক্রবার (৩১ মে) কমলাপুরে সৃষ্টি হয়েছে জনস্রোত। গত ২২ মে যারা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কেটেছেন তারা আজ ট্রেনযোগে ঢাকা ছাড়ছেন। ভোগান্তির ধারাবাহিকতায় ঈদ যাত্রার প্রথম দিনে কমলাপুরে প্রতিটি মানুষ কাঙ্ক্ষিত ট্রেনের অপেক্ষায় থেকেছে। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে কাঙ্ক্ষিত ট্রেনের দেখা মিলেনি।

কমলাপুর স্টেশন থেকে সকাল ৯টায় রংপুর এক্সপ্রেস ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও তা দুপুর ১২টা পর্যন্ত স্টেশনে এসে পৌঁছায়নি। স্টেশনে ট্রেনের তথ্যের ডিসপ্লেতে ট্রেনটি ছাড়ার সম্ভব্য সময় দেয়া হয়েছে বেলা ২টা ১০ মিনিট। কিন্তু সে সময়েও ট্রেনটি ছাড়তে পারবে কি-না তা নিয়ে সংশ্লিষ্টরা সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।

এছাড়া কমলাপুর থেকে রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস ভোর ৬টায় ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলে তা দুই ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ে। চট্টগ্রামগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেস সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ছাড়ার নির্ধারিত সময় থাকলে ছেড়েছে সকাল সোয়া ৮টায়। সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস সকাল ৬টা ৪০ মিনিটে ছাড়ার সময় থাকলেও ছেড়ে যায় সাড়ে ৭টায়। সকাল ৮টার চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস আড়াই ঘণ্টা দেরি করে সকাল সাড়ে ১০টায় ছেড়ে গেছে।

এদিকে নির্দিষ্ট সময়ে ট্রেন ছাড়তে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন যাত্রীরা। সকাল ৯টায় কমলাপুর ছাড়বে রংপুর এক্সপ্রেস। তাই নির্ধারিত সময়ের আগেই বৃদ্ধা মা, স্ত্রী আর দুই সন্তনকে নিয়ে স্টেশনে হজির হন শিহাবুল ইসলাম নামের এক বেসরকারি চাকরিজীবী। গত ২২ মে সেহেরি খেয়ে ভোর ৫টায় কমলাপুরে রংপুর এক্সপ্রেসের টিকিটের জন্য টিকিটের লাইনে দাঁড়িয়েছেলন তিনি। টিকিট পেতে তাকে অপেক্ষা করতে হয়েছিল প্রায় ৮ ঘণ্টা। যদিও এসি টিকিট প্রত্যাশা ছিল, কিন্তু তা না পেয়ে সাধারণ টিকিট নেন তিনি। এত ভোগান্তি সহ্য করে টিকিট কাটার পর যাত্রার দিন (৩১ মে) যখন ৫ ঘণ্টা বিলম্বে ছাড়ার বিষয়টি জানতে পারেন তখন নিজের ওপর ক্ষোভ ঝাড়েন তিনি।

rail

বলেন, আজকের এ টিকিটের জন্য পুরো ৮ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেছি। ট্রেনের টিকিটটা খুবই জরুরি ছিল তাই শত ভোগান্তি উপেক্ষা করে টিকিট কেটেছি। কিন্তু আজ এসে দেখলাম ট্রেন ৫ ঘণ্টা বা তারচেয়েও বেশি বিলম্বে ছাড়বে, তখন এতটাই শক খেয়েছি যা বলার মতো না। রোজা রেখে বৃদ্ধা মা, স্ত্রী, ছোট ছোট সন্তান নিয়ে এত দীর্ঘ সময় কীভাবে অপেক্ষা করবো? আমাদের মতো হাজার হাজার মানুষ স্টেশনে এমন ভোগান্তি পোহাচ্ছে।

একই ট্রেনের যাত্রী সাব্বির আহমেদ বলেন, ঈদ আসলেই এমন ভোগান্তি পোহাতে হয়। এ সমস্যা সমাধানে কার্যকর কোনো সমাধান এখনও নেয়া হলো না। টিকিটের ভোগান্তি দূর করতে এবার অ্যাপ চালু হলো, কিন্তু দুর্ভাগ্য সাধারণ মানুষ ঠিকমতো এটার সুবিধা নিতে পারল না। একবার ১২/১৪ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কাটবো, আবার ঈদ যাত্রার দিনে ৫/৭ ঘণ্টা ট্রেন বিলম্ব থাকবে- বিষয়গুলো একজন সাধারণ যাত্রীর পক্ষে কী প্রতিবার সহ্য করা সম্ভব? ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয়ের মাধ্যেমে এবার ঈদযাত্রা শুরু হলো। এরমধ্যে রংপুর এক্সপ্রেস আবার ৫/৭ ঘণ্টা দেরিতে ছাড়বে। এসব ভোগান্তি আর কত দিন সহ্য করতে হবে?

rail

চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস সকাল ৮টায় কমলাপুর থেকে ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও আড়াই ঘণ্টা দেরিতে সকাল সাড়ে ১০টায় ছেড়েছে। এ ট্রেনের যাত্রী সানজিদা তাসলিম বলেন, পরের দিকে যাত্রীর চাপ বাড়তে পারে এমন আশঙ্কায় প্রথম দিনের টিকিট কেটেছি। কিন্তু ভোগান্তি যেন পিছু ছাড়ল না। সকাল ৮টার ট্রেন সাড়ে ১০টায় ছাড়ল। ঈদ আসলেই ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয়সহ নানা ভোগান্তি প্রতিবারই পোহাতে হয়।

বিলম্বের বিষয়ে কমলাপুর স্টেশনের ম্যানেজার আমিনুল হক বলেন, যে ট্রেনগুলো দেরিতে কমলাপুরে পৌঁছেছে, সে ট্রেনগুলো ছাড়তেই কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। তবে চেষ্টা করছি ট্রেনের সিডিউল ঠিক রাখার।

এদিকে সকালে ঈদযাত্রা উপলক্ষে যাত্রীদের খোঁজ নিতে কমলাপুর স্টেশনে আসেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। এ সময় তিনি ট্রেন, প্লাটফর্ম ঘুরে যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন।

rail

পরে স্টেশনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, শুক্রবার সারাদিন কমলাপুর স্টেশন থেকে ৫২টি ট্রেন ছেড়ে যাবে। বেলা ১১টা পর্যন্ত মোট ১৮টি ট্রেন ছেড়ে গেছে। এর মধ্যে দেরি হয়েছে চারটির, এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি দেরি হচ্ছে রংপুর এক্সপ্রেসের।

‘ট্রেনটির প্রথম দিনে প্রায় সোয়া সাত ঘণ্টা দেরি হতে পারে। এ জন্য আমরা খুবই দুঃখিত। তবে এটা সমাধানে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। রংপুর থেকে রংপুর এক্সপ্রেস নামে অন্য একটি ট্রেন যাত্রী নিয়ে ঢাকায় আসবে। ফলে আজকের এ বিলম্ব আগামীকাল থেকে হবে না।’

এএস/এএইচ/এমকেএইচ

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution