• সন্ধ্যা ৬:০০ মিনিট শুক্রবার
  • ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
মেঘনা টোল প্লাজায় তিশা বাসে আগুন বন্দরে বকেয়া বেতনের দাবিতে ২ ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ,  সোনারগাঁয়ে ৩ মিষ্টির দোকানকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা সোনারগাঁয়ে নদী থেকে অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে মাদকের টাকা লেনদেনের জেরে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে সোনারগাঁও প্রেস ক্লাবে আলোচনা সভা সোনারগাঁয়ে আ.লীগ নেতার প্রতারণার নতুন ফাঁদ অনিয়ম ও দূর্নীতি যেন সমাজ ব্যবস্থায় স্বাভাবিক ঘটনা. জিএম কাদের কাল থেকে শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ১৩৪ তম তিরোধান উৎসব শুরু সোনারগাঁয়ে ডিম ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২ সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনীকে কেন্দ্র করে ঘোড়া প্রতিকের সমর্থকের পুকুরে বিষ প্রয়োগ সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনীকে কেন্দ্র করে ঘোড়া প্রতিকের সমর্থকের পুকুরে বিষ প্রয়োগ সোনারগাঁয়ে অ্যাম্বুলেন্স দূর্ঘটনার নিহত -১ উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রতিকের নির্বাচন করায় গাছ কর্তন নব নির্বাচিতত উপজেলা চেয়ারম্যানকে নিয়ে এতিমদের দোয়া সোনারগাঁয়ে ট্রান্সফরমার চুরির সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাসহ আটক-৪ হাসনাত পরিবারের প্রয়াত নেতাদের কবর জিয়ারত করলেন নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান তুমি যদি মুমিন হও তাহলে নিরাশ হইওনা. নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সোনারগাঁয়ে পরকীয়ার জেরে স্ত্রী হত্যা, স্বামী আটক সোনারগাঁয়ে তাঁত শ্রমিককে হত্যার ঘটনায় দুই সহোদর গ্রেপ্তার
বাবা’কে হত্যার কথা ৭ মাস পর জানিয়ে দেয় ছোট ছেলে

বাবা’কে হত্যার কথা ৭ মাস পর জানিয়ে দেয় ছোট ছেলে

Logo


খুলনা প্রতিনিধি: খুলনার রূপসা উপজেলার শোলপুরে হত্যার পর এনামুল হক (৫০) নামে এক ব্যক্তির লাশ সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে তার ছেলে নিয়ামুল ইসলাম তানভিরের বিরুদ্ধে। ঘটনার সাত মাস পর তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে তানভির ও তার সহযোগী জুম্মানকে (৪০) আটক করে পুলিশ। এর আগে ২৯ ডিসেম্বর বিকেলে বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরদার মোশাররফ হোসেন বলেন, “এ বছরের ৯ মে এনামুল হককে মসলা বাটা শিল দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করে তার ছেলে। পরে সহযোগী জুম্মানকে নিয়ে মরদেহটি বাড়ির বাথরুমের সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখে। পরবর্তীতে তারা বাবা এনামুল হক কোথাও চলে গেছে বা পানিতে পড়ে মারা যেতে পারে বলে এলাকায় প্রচার শুরু করে। এনামুল হক আগে থেকে মৃগী রোগে আক্রান্ত থাকায় স্থানীয়রা বিষয়টি সহজে বিশ্বাস করে নেয়।”

বিষয়টি এনামুল হকের ছোট ছেলে নাঈম জানত।

তিনি আরও বলেন, “২৯ ডিসেম্বর সকালে নিয়ামুল ইসলাম তানভির তার ছোট ভাই নাঈমকে (১১) মারধর করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নাঈম চিৎকার করে বাবাকে হত্যার কথা সবাইকে জানিয়ে দেয়। এরপর নিয়ামুল পালিয়ে যায়। নাঈমের কথা শুনে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেওয়ার পর পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।”

ওসি সরদার মোশাররফ হোসেন বলেন, “বিষয়টি জানার পর আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করি। মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।”


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution