• রাত ১:২৭ মিনিট সোমবার
  • ২৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বর্ষাকাল
  • ১২ই জুলাই, ২০২০ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
এমপি খোকার হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামীলীগ নেতার জাতীয়পার্টিতে যোগদান এমপি খোকার হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামীলীগ নেতার জাতীয়পার্টিতে যোগদান সোনারগাঁয়ে দোয়েল বাস সুপারভাইজারের বাসায় ডাকাতি সোনারগাঁয়ে গরুর খামারে সফল ব্যবসায়ী আলহাজ্ব সাদেক ভূইয়া সোনারগাঁয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম সোনারগাঁয়ে ১৭টি অস্থায়ী পশুর হাটের প্রস্তাব লিটল ফ্লাওয়ার ও এসআর স্কুলের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ফি ও বাড়িতে গিয়ে পরিক্ষা গ্রহনের অভিযোগ সোনারগাঁয়ে ৯ জনের রির্পোটে কোন করোনা আক্রান্ত নেই যুবদল নেতা সেলিমের নানার ইন্তেকাল, মান্নানের শোক সোনারগাঁয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৪শত ছাড়ালো প্রধানমন্ত্রীর দেয়া খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন ইঞ্জিনিয়ার মাসুম সোনারগাঁয়ে একযোগে তিন কর্মকর্তার বদলি বারদীতে মার্কেট নির্মাণকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ সোনারগাঁয়ে আরো ১ জনের দেহে করোনা, সুস্থ ১ মোট আক্রান্ত ৪৪৭ সােনারগাঁয়ে অননুমােদিত ভােজ্য তেল বিক্রিতে ৭ লাখ টাকা অর্থদণ্ড সোনারগাঁয়ে নন-এমপিও শিক্ষক কর্মচারীদের প্রণোদনার চেক বিতরণ সোনারগাঁয়ে একদিনে ৫ জনের দেহে করোনা সনাক্ত, সুস্থ ২ মোট আক্রান্ত ৪৪৬ শ্রমিকলীগের উদ্যোগে নুনেরটেকের মায়াদ্বীপে বৃক্ষরোপন সপ্তডিঙ্গা সমবায়ের সাধারণ সম্পাদকের ইন্তেকাল সোনারগাঁয়ে একদিনে আক্রান্ত ২, সুস্থ ৬ মোট আক্রান্ত ৪৪১
স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দিলেন পুলিশ কনস্টেবল!

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দিলেন পুলিশ কনস্টেবল!

Logo

মাদারীপুর পৌরসভার টিবি ক্লিনিক সড়কে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মোক্তার হোসেন নামে এক পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে। নির্যাতিত ওই ছাত্রীকে রোববার রাতে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, মাদারীপুর পুলিশ লাইনের পুলিশ সদস্য মোক্তার হোসেন দীর্ঘদিন থেকে শহরের টিবি ক্লিনিক সড়কে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন। কয়েকদিন আগে মোক্তারের গর্ভবতী স্ত্রী গ্রামের বাড়ি চলে যান। এই সুযোগে রোববার রাতে প্রতিবেশী এক স্কুলছাত্রীকে ঘরে ডেকে নেন তিনি। পরে দরজা বন্ধ করে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা বাইরে থেকে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন। পরে পুলিশ সদস্য মোক্তার হোসেন স্কুলছাত্রীকে ঘরের পেছনের ভেন্টিলেটর দিয়ে বাইরে ফেলে দেন। এতে ওই ছাত্রীর গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

নির্যাতিত ওই ছাত্রী বলে, মোক্তার হোসেন আমাকে তার ঘরে ডেকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে আমার সঙ্গে খারাপ কাজ করেছে। পরে স্থানীয়রা টের পেয়ে বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দিলে আমাকে তিনি ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দেন। এতে আমার পা ভেঙে গেছে। এর আগে তিনি আমাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মোক্তার হোসেনের কয়েকজন প্রতিবেশী জানান, দীর্ঘক্ষণ ঘরের মধ্যে ওই মেয়েকে নিয়ে থাকায় আমাদের সন্দেহ হয়। পরে আমরা বাইরে থেকে ঘরের দরজা বন্ধ করে দিলে তিনি মেয়েটিকে ভেন্টিলেটর দিয়ে বাইরে ফেলে দেন।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মফিজুল ইসলাম লেলিন জানান, মেয়েটির পায়ের হার ভেঙে গেছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তার সেরে উঠতে কমপক্ষে ৩ মাস সময় লাগবে।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য মোক্তার হোসেন বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। শুধু শুধু স্থানীয়রা ঘরের বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দিয়েছিল। ওই মেয়ের সঙ্গে আমার কিছু হয়নি।

বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে আপনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করলে আপনি পুলিশ সুপার বা ওসির সাহায্য নেননি কেন? এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি কোন উত্তর দিতে পারেননি।

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. বদরুল আলম মোল্লা বলেন, আমি সদর হাসপাতালে গিয়ে মেয়েটির সঙ্গে দেখা করে এসেছি। মেয়েটির পরিবারের সদস্যদের সকল আইনগত সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দিয়ে এসেছি। যে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মৌখিকভাবে অভিযোগ করা হয়েছে তার বিরুদ্ধেও আমরা গুরুত্বসহকারে তদন্ত করছি। তদন্তে দোষ প্রামাণ হলে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Logo
এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution