• রাত ২:৪৮ মিনিট বৃহস্পতিবার
  • ১৭ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : শীতকাল
  • ২৯শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
ঠিকাদারী কাজ ও পদ-বঞ্চিত করতে রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার জাতীয়পার্টির নির্বাহী কমিটির সদস্য হলেন আবু নাঈম ইকবাল ফলজ গাছ কাটার অভিযোগ তদন্ত হচ্ছে..ইউএনও রকিবুর রহমান সোনারগাঁয়ে ভাতা ভোগীদের মাঝে স্বাস্থ্য সেবা সামগ্রী প্রদান সোনারগাঁয়ের সেই জি এম শামীমের বিচারকার্য শুরু সোনারগাঁয়ে আসছেন মিজানুর রহমান আজহারী সোনারগাঁয়ে ইয়াবাসহ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী সোহেল গ্রেফতার সোনারগাঁয়ে মা-বাবার সাথে অভিমান করে স্কুল ছাত্রীর আত্নহত্যা সোনারগাঁয়ে হাম ক্যাম্পেইন বন্ধের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান সোলেইমানি হত্যার নীল নকশাকারী বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ঢাকা সিটি নিবার্চনে নারায়ণগঞ্জ যুবদল নেতা স্বপনের ব্যাপক গণসংযোগ সোনারগাঁয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরন বদলে যাচ্ছে ফেসবুকের চেহারা সোনারগাঁয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী মটর চালক লীগের ১৬ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বেশ্যার ফুলশয্যা (ছোট গল্প) খেজুরের কাঁচা রস পান না করার পরামর্শ সোনারগাঁ থানার সামনের বিকাশ দোকানদারকে কুপিয়েছে ছিনতাইকারীরা বৈদ্যেরবাজারের হাজী গোলাম মোস্তফার ইন্তেকাল সোনারগাঁয়ে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নবনির্মিত দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উদ্বোধন বৈদ্যেরবাজার সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে রাজস্ব ফাঁকি অভিযোগে দলিল লিখক বহিষ্কার
সিম কার্ডের মতো এবার হ্যান্ডসেটও নিবন্ধন করতে হবে

সিম কার্ডের মতো এবার হ্যান্ডসেটও নিবন্ধন করতে হবে

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম: মোবাইলের সিম কার্ডের মত হ্যান্ডসেটও নিবন্ধনের আওতায় আনার কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিটিআরসি)।

মোবাইল ফোন কেন্দ্রিক অপরাধ কমাতে এবং হ্যান্ডসেট চুরি, অবৈধ আমদানি ও নকল হ্যান্ডসেট বিক্রিও বন্ধে এমন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। খবর বিবিসি বাংলার

জানা গেছে, বাংলাদেশে যে হ্যান্ডসেটগুলো বৈধভাবে আমদানি হচ্ছে এবং স্থানীয়ভাবে যে মোবাইলগুলো অ্যাসেমব্লিং করা হচ্ছে বা উৎপাদিত হচ্ছে সেগুলোর ১৫ ডিজিটের স্বতন্ত্র আইএমইআই নম্বর নিয়ে একটি বৈধ ফোনের ডাটাবেজ তৈরি করা হবে। এতে মানুষ যখন মোবাইল ফোন কিনতে যাবেন তখন তারা সেই সেটটির আইএমইআই নম্বর দিয়ে জানতে পারবেন যে তাদের সেটটি বৈধ নাকি অবৈধ।

এছাড়া বিটিআরসি তাদের ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্ট্রার (ইআইআর) খসড়া নির্দেশনা- ইআইআর তৈরি করবে। যার আওতায় দেশের প্রতিটি সক্রিয় সেটকে নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে।

এরই মধ্যে বিশ্বের বড় বড় কোম্পানির ইআইআর যাচাই করে বাংলাদেশের জন্য প্রযোজ্য ২৪ পাতার একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে বিটিআরসি। প্রতিবেদনটি যাচাইয়ের জন্য মোবাইল অপারেটরগুলোর কাছে পাঠানো হয়েছে।

সেখানে যদি কোন সংশোধনের প্রয়োজন তাহলে সেটা সম্পন্ন করে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য প্রতিবেদনটি বিটিআরসির কমিশনে পাঠানো হবে। খসড়া নির্দেশনাটিকে চূড়ান্ত হলে প্রত্যেক অপারেটরকে তাদের নেটওয়ার্কের আওতায় থাকা প্রতিটি সক্রিয় হ্যান্ড-সেটের ডাটাবেজ তৈরির সময় বেঁধে দেয়া হবে।

প্রথম পর্যায়ে গ্রাহকদের হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের জন্য কোথাও যেতে হবেনা। নিজেদের নিবন্ধিত সিমটি সেটে সক্রিয় করলেই সেটটি ওই নামে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধন হয়ে যাবে।

ওই সেটে যদি দ্বিতীয় সিম ব্যবহার করতে হয় তাহলে সেটাও অবশ্যই একই নামে নিবন্ধিত সিম হতে হবে। এছাড়া কারও যদি একাধিক সেট থাকে তাহলে তিনি দ্বিতীয় সেটটিতে যে নামের সিমটি সক্রিয় করবেন, সেই নামেই সেটটি নিবন্ধিত হয়ে যাবে। তখন ওই সেটে অন্য নামের কোন সিম চলবেনা। অর্থাৎ একটি সেট একজনের নামেই নিবন্ধিত হবে। এভাবে একেকটি অপারেটরের আলাদা ডাটাবেজ সম্পন্ন হবে।সুত্র জাগো নিউজ

এএ

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution