• বিকাল ৪:৪৩ মিনিট শুক্রবার
  • ২২শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ৫ই জুন, ২০২০ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
বীর মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার হোসেনকে রাষ্টীয় মর্যাদায় শেষ বিদায় জানালেন ইউএনও সাইদুল ইসলাম বৈরী আবহাওয়ায়ও লক ডাউন পরিবারে পৌছে যাচ্ছে এমপি খোকার খাবার সোনারগাঁয়ে ২দিনে করোনা আক্রান্ত সংখ্যা গড়ে সাড়ে ৩৮% সোনারগাঁয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ সদস্য নিহত সোনারগাঁয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ৬৩ জনের মধ্যে ২৮ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ১৫ জনের মৃত্যু, মৃত্যুর কারণ গোপন করছে পরিবার মৃত ব্যক্তির দেহে কতক্ষণ সক্রিয় থাকে করোনা ভাইরাস প্রধানমন্ত্রীর উপহার অসহায়দের পৌছে দিলেন চেয়ারম্যান ইঞ্জি: মাসুম সোনারগাঁয়ে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামুলক নয়তো জরিমানা সোনারগাঁয়ে ৭৫ জনের মধ্যে ২৫ জনের দেহে করোনা সনাক্ত, মোট সনাক্ত ২৩৮ জান্নাতি ও জাহান্নামিদের মাঝে কথোপকথন!.. তুহিন মাহমুদ করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তিদের দাফনের ব্যবস্থা করলেন এমপি খোকার টিম বারদীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে ২ ব্যক্তির মৃত্যু লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ১৩০ তিরোধান উৎসব স্থগিত সোনারগাঁয়ে করোনার উপসর্গ নিয়ে মেয়ের পর মায়ের মৃত্যু প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে সোনারগাঁয়ে সোনারগাঁয়ে জিয়াউর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও ত্রাণ বিতরণ সোনারগাঁয়ে এ পর্যন্ত করোনায় ১০ জনের মৃত্যু, লাশ দাফনে এমপি খোকার টিম স্বাস্থ্যবিধি মেনে সোনারগাঁয়ে চলছে গণপরিবহন কাঁচপুর যুবলীগের সভাপতির পিতার মৃত্যুতে উপজেলা যুবলীগের শোক
বোমা ফাটিয়ে ফাটিয়ে বাদি ঘরে আগুন দেয়ার ঘটনায় মামলা

বোমা ফাটিয়ে ফাটিয়ে বাদি ঘরে আগুন দেয়ার ঘটনায় মামলা

Logo

নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম: গত সোমবার রাতে উপজেলা সনমান্দি ইউনিয়নের লেদামদী গ্রামে হত্যা মামলার বাদির ঘরে আগুন দেয়ার ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাহাসিন নামের এক ব্যক্তি বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় মামলাটি দায়ের করেন। গতকাল মঙ্গলবার রাতে ২০জনকে আসামী করে এ মামলাটি দায়ের করেন।
মামলার বাদি তাহাসিন জানান, উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়নের লেদমদী গ্রামের মাহবুব মিয়া চাকরির পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে জমি জমার ব্যবসা করতেন। গত বছরের ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর মাহবুরের কাছে দাবিকৃত চাদাঁ না পেয়ে পাশ্ববর্তী টেমদী গ্রামের বাসিন্দা রুবেল মিয়া, দেলোয়ার হোসেন, আমির হোসেন, মোমেন মিয়া, কবির হোসেন, রবিন মিয়া, আবু হানিফ, ও আল আমিনসহ ১০/১২ জনের একদল সন্ত্রাসীরা বাহিনী রামদা, টেটা ও রড দিয়ে তার স্বামী মাহবুবুর রহমানকে এলোপাথারিভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে দু’পা ভেঙ্গে মারাত্বক ভাবে জখম করে পালিয়ে যায়।

পরে তার স্বামীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও কয়েকটি বেসরকারী হাসপাতালে দীর্ঘ আট মাস চিকিৎসা পর ঢাকার একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিসিইউতে) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এ ঘটনায় ইছহাক মিয়া বাদি হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করায় গতকাল মঙ্গলবার সকালে এছহাক মিয়া, তার ভাই হারুন মিয়া, জাকির হোসেন, মাসুম মিয়া, কবির হোসেন, মোমেন মিয়া, আবু হোসেন, হানিফ মিয়া, মিলন মিয়া, জাফর হোসেন, আলমগীর মিয়া, মজিবুর রহমান, রমজান হোসেন, আনন্দ বাজার এলাকার ভাড়াটে সন্ত্রাসী ইলিয়াস মিয়া, আমজাদ হোসেন, মুছাচর এলাকার গিয়াস উদ্দিন ও আমিজ উদ্দিনের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন সন্ত্রাসী বাহিনী রামদা, টেটা, বল্লম, চাইনীজ কুড়াল, হকিস্টিক সহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে ও কয়েকটি বোমা ফাটিয়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে লেদামদী গ্রামের ব্যবসায়ী শফিউল্লার বসত ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। আগুনে ধান, চাল, নগদ টাকা, স্বর্ণলংকার ও অনন্য মালামাল সহ প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন হয়।

Logo
এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution