• সকাল ৯:০২ মিনিট বুধবার
  • ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
আওয়ামীলীগ নেতা শাহজাহান মিয়ার ইন্তেকাল বন্দরে বিষপানে কৃষকের আত্মহত্যা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সোনারগাঁয়ে বিক্ষোভ মিছিল ভোটের মাঠে ভাইয়ের বদলা নিতে ভাই সোনারগাঁয়ে ২২ জনের নমুনায় নতুন করে করোনা রোগী সনাক্ত হয়নি ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীতা বাছাইয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা সোনারগাঁয়ে মাদক মামলায় ১ জনের ৬ মাসের কারাদন্ড চেয়ারম্যান মাসুমকে পুনরায় বিজয়ী করতে মত বিনিময় সভা শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী.. কায়সার সোনারগাঁয়ে ব্যবসায়ীর বাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা ও প্রাণনাশের হুমকী নৌকা মনোনয়ন প্রার্থী নৌকা ডুবাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী সোনারগাঁয়ে জাতীয়পার্টির ৩ প্রার্থী ১০০ কোটি টাকা খরচের পর বাতিল ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে শেখ রাসেলের জম্মদিনে সোনারগাঁয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন সোনারগাঁয়ে ৮ জনের নমুনায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত নৌকার প্রতিকের মনোনয়নপত্র জমা দিলেন চেয়ারম্যান মাসুম চেয়ারম্যান মাসুমের বিপরীতে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বি নেই পিরোজপুর ইউপিতে সোনারগাঁয়ে হত্যার সন্দেহভাজন যুবক সাদ্দাম রিমান্ডে সোনারগাঁয়ে ২২ জনের নমুনায় শতভাগ নেগেটিভ সোনারগাঁয়ে সড়ক দূর্ঘটনায় বৃদ্ধা নিহত
সোনারগাাঁয়ে হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি ইউপি সদস্যের, থানায় অভিযোগ

সোনারগাাঁয়ে হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি ইউপি সদস্যের, থানায় অভিযোগ

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

সোনারগাঁ উপজেলার ভবনাথপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীকে হত্যার মামলার বাদি মোহাম্মদ আলীর মা শিউলী বেগমকে মামলা তুলে নিতে হুমকি প্রদান করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে মোহাম্মদ আলী হত্যার মামলার প্রধান আসামী ও পিরোজপুর ইউপি মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নিহত মোহাম্মদ আলীর মা শিউলী বেগম বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে নিহত মোহাম্মদ আলীর মা উল্লেখ করেন, তার ছেলে মোহাম্মদ আলীকে হত্যা করে পিরোজপুর ইউনিয়নের মেম্বার মোশারফ হোসেন ও তার সহযোগীরা। এ মামলায় গ্রেফতার হয়ে মোশারফ হোসেন দীর্ঘদিন জেল খেটে জামিন নিয়েছেন। জামিনে মুক্ত হবার পর মোশারফ হোসেন বিভিন্ন ভাবে এ মামলা তুলে নিতে বাদি শিউলী বেগমকে হুমকি দিয়ে আসছেন। গতকাল সোমবার বিকালে তার ছেলে সৈকত বৈদ্যেরবাজার বালুর মাঠে গরু কিনতে গেলে মোশারফ হোসেন তার পথরোধ করে মোহাম্মদ আলীর মামলা তুলে নিতে তাকে হুমকি প্রদান করে। এ নিয়ে সৈকতের সাথে মোশারফের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মোশারফ হোসেনের নেতৃত্বে ফয়সাল, দিপু,শান্ত, আবু সাঈদ, কবির হোসেন, হাবিবুর, জসিম ও বড় জসিম দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সৈকতের উপর হামলা চালায়। এসময় সৈকতকে তারা পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। সৈকতের চিৎকারে হাটের থাকা লোকজন এগিয়ে আসলে মোশারফ হোসেন ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে আহত সৈকতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution