• দুপুর ২:৪১ মিনিট শুক্রবার
  • ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : শরৎকাল
  • ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করলেন তালতলা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সোনারগাঁয়ে ৩ হাজার ইয়াবাসহ শাহআলম গ্রেপ্তার মাসুম- ইকবালের জয় বনাম আওয়ামীলীগ-জাপার জয় একদিনে ৫০৬ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি দাফনের ৩ বছর পর কবর থেকে ওঠানো হলো কিশোরীর মরদেহ যেখানে বর্তমান মিলেছে ভবিষ্যতের সঙ্গে ‘ সিনেমা দেখে মালদ্বীপ যাওয়ার সুযোগ! যুবলীগ নেতা লিটন খাঁনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন পালন বৈদ্যেরবাজারে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলা আহত ৬ সোনারগাঁয়ে দলিল লিখক হত্যা মামলায় প্রধান আসামী পরকীয়া প্রেমিক গ্রেপ্তার যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন পালন এরফান হোসেন দীপের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জম্মদিন পালন হাজী শাহ মো. সোহাগ রনি’র উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন পালন ইঞ্জি: মাসুমের উদ্যোগে শেখ হাসিনার জম্মদিন পালন ইঞ্জি: মাসুমের উদ্যোগে শেখ হাসিনার জম্মদিন পালন বিশ্বরঙ দাদা ও দিদি সাজি-সাজাই এর গ্রান্ড ফাইনালে সোনারগাঁয়ের ছেলে তানভীর দোয়া ও কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন পালন ফতেপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন সোনারগাঁয়ে ৯৫ পিচ ইয়াবাসহ মাদক কারবারি আটক সোনারগাঁয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সম্মেলন
ঠাণ্ডায় থার্মোমিটার ভেঙে যায় যে গ্রামে

ঠাণ্ডায় থার্মোমিটার ভেঙে যায় যে গ্রামে

Logo


আমাদের দেশে শীতকালে প্রতিবছর যে পরিমাণ ঠাণ্ডা পড়ে, এবার তার চেয়ে অনেক বেশি পড়েছে। উত্তরাঞ্চলে ৩ ডিগ্রির নিচে রেকর্ড পরিমান ঠাণ্ডা ছিল গত সপ্তাহে। কিন্তু বিশ্বের এমন কিছু জায়গা আছে, যেখানকার ঠাণ্ডার তুলনায় এ ঠাণ্ডা একেবারেই কিছু না।

রাশিয়ার এমনই একটি গ্রামের নাম ওইমিয়াকন। এটি বিশ্বের শীতলতম গ্রাম। এখানে এত আবহাওয়া এত ঠাণ্ডা হয় যে পারদ নামতে নামতে থার্মোমিটার পর্যন্ত ভেঙে যায়।

মঙ্গলবার ইয়াকুশা অঞ্চলের ওই গ্রামে তাপমাত্রা নেমেছিল মাইনাস ৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। উত্তর-পূর্ব রাশিয়ায় সাইবেরিয়া অঞ্চলে গ্রামটির অবস্থাণ।

ইয়াকুশা মস্কো থেকে ৩ হাজার ৩শ’ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত। সেখানে মাইনাস ৪০ ডিগ্রিতেও স্কুল খোলা থাকে। রোববার সেখানে প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় জমে মারা গেছেন দুইজন। গাড়ি নষ্ট হওয়ায় রাস্তায় বের হওয়ার পর তারা ঠাণ্ডায় জমে যান।

ইয়াকুশার গ্রাম ওইমিয়াকনে মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে মাইনাস ৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মানুষের বসতি আছে এমন স্থানের মধ্যে শীতলতম ওইমিয়াকন।

মাইনাস ৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস ডিজিটাল থার্মোমিটার ধারণ করতে পারে না, অর্থাৎ ভেঙে যায়। কেননা, এই থার্মোমিটারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দেয়া আছে মাইনাস ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এরকম প্রচণ্ড ঠাণ্ডা পড়লে স্থানীয়রা আশ্রয়শিবিরে চলে যান। স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়। রাস্তায় হঠাৎ দু’ একজনকে চোখে পড়ে, তারা হয়তো সেলফি তোলার জন্য বের হন, অর্থাৎ চোখের পাতা জমে কেমন হয় সেটার ছবি তোলেন।

প্রত্যন্ত এই গ্রামটি সবসময়ই বরফে ঢাকা থাকে। কিন্তু শীতকালে ভয়াবহ ঠাণ্ডা পড়ে সেখানে। এই গ্রামে থাকেন প্রায় ৫০০ জন মানুষ। গ্রীষ্মের সময়ে আগে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকত ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি, ২০১০ সালে সেই তাপমাত্রা পৌঁছেছিল ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

এখানকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ডটটি ছিল ১৯৩৩ সালে, মাইনাস ৬৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মানুষের বসতি আছে এমন স্থানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড এটি। নাসা থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড অ্যান্টার্কটিকায়, মাইনাস ৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution