• সকাল ৯:৫৫ মিনিট সোমবার
  • ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : শীতকাল
  • ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
বিশ্বকাপেও খেলতে পারবে না আর্জেন্টিনা শম্ভুপুরায় তৃণমূল আওয়ামী লীগ কর্মীদের মারধরের ঘটনায় ২২ জনের নামে মামলা অজ্ঞাত ৫০ সনমান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মী সম্মেলন সোনারগাঁয়ে নুনেরটেকে অসহায় মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ সোনারগাঁয়ে বিতর্কিত পাঠ্যক্রম বাতিলের দাবিতে ইসলামী ছাত্র আন্দোলন এর মানববন্ধন শম্ভুপুরা কর্মী সম্মেলনে আওয়ামীগের দুই গ্রুপের সংর্ঘষ আহত ১৫ সোনারগাঁয়ে এনজিও কর্মকর্তাদের কুপিয়ে টাকা ছিনতাই সোনারগাঁয়ে ২ দিন ধরে ব্যবসায়ী নিখোঁজ ত্যাগী নেতাদের সমন্বয়ে পৌর আওয়ামীলীগ গঠন হবে. পৌরসভা সম্মেলনে নেতারা স্বাধীনতার ইতিহাসকে বিকৃতি করে ইউপি চেয়ারম্যানের বক্তব্য \ মুক্তিযোদ্ধাদের নিন্দা সোনারগাঁয়ে দারুণ নাজাত মাদ্রাসায় হাফেজদের পাগড়ী প্রদান ও মেধাবী গরিব ছাত্রদের কুরআন মাজিদ বিতরন মোগরাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কর্মী সম্মেলন তৃনমুল থেকে আওয়ামীলীগকে শক্তিশালী করতে কাজ করছে বর্তমান কমিটি. কায়সার হাসনাত সাবেক রাস্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জম্মবার্ষিকীতে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরন দেশের উন্নয়নই বিএনপির অন্তরজ্বালা সোনারগাঁয়ে ওবায়দুল কাদের হজের খরচ কমলো ৩০ শতাংশ কত বার যৌন মিলনে সুখের হয় দাম্পত্য আগামী কাল থেকে শুরু হচ্ছে মাসব্যাপী লোকজ উৎসব সোনারগাঁয়ে নিখোঁজের ৮দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার আনন্দবাজার হাটের বালু ভরাটের কাজ পরিদর্শন এমপি খোকার
পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে শিমলা

পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে শিমলা

Logo


মানালি থেকে রাতের বাসে শিমলা। রাত ১০টার বাস যখন ছাড়লো, তখন ভেবেছিলাম ভোরে পৌঁছাবো। কিন্তু ৪টা না বাজতেই বাস নামিয়ে দিলো শিমলা বাসস্ট্যান্ডে। গুগল ম্যাপে দেখলাম বুকিং দেওয়া হোটেল বাসস্ট্যান্ড থেকে বেশ দূরে।

ভোর রাতে অনেক হোটেল ঘুরে এক ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে বাসস্ট্যান্ডের কাছেই হোটেল পেলাম। সাথে ট্যাক্সিতে সারাদিন ঘোরার প্যাকেজ। হোটেলে গিয়ে ফ্রেস হয়ে একটু বিশ্রাম নিয়েই বেরিয়ে পড়লাম ঘুরতে। ট্যাক্সি ছুঁটে চলছে কুফরির উদ্দেশে।সুত্র: জাগো নিউজ

শিমলার শীত তখনো কাটেনি। পাহাড়ের আঁকা-বাঁকা পথ ধরে গাড়ি ছুটে চলছে। ছিমছাম শহর শিমলা। পুরো শহরটি পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে গড়ে উঠেছে। সমতল বলে কিছুর দেখা পেলাম না।

পাহাড়ের কোল ঘেঁষে তৈরি করা পথ ধরে পৌঁছে গেলাম কুফরিতে। এখান থেকে ঘোড়ায় চড়ে যেতে হবে একদম উপরে। সেখানেই নাকি শিমলার সত্যিকারের সৌন্দর্য। ৫০০ টাকা করে জনপ্রতি টিকিট নিয়ে উঠে পড়লাম ঘোড়ায়। ধুলোমাখা সরু পথ। সারি সারি ছোট পাথর। ভয়ংকর সে পথ। নারী পর্যটকদের রোমাঞ্চকর চিৎকার। ২০ মিনিটের পথ পাড়ি দিয়ে পৌঁছলাম কুফরিতে। শুনেছিলাম এখানেও নাকি মানালির মতো বরফের দেখা মিলবে। কিন্তু বাস্তবে তার পুরোটাই উল্টো। কোথাও কোনো বরফ নেই।

পাহাড়ের উপরে কেবলই কিছু ছোট ছোট দোকান। অবস্থা দেখে মনে হলো, পর্যটকরা এখানে কেনাকাটাই করতে এসেছেন। ভয়ংকর পথ পাড়ি দিয়ে উপরে এসে অনেকটাই হতাশ। এবার ফিরতে হবে নিচে। ঘোড়ায় চড়ে উপরে ওঠা যত না কষ্টকর, নিচে নামতে নাকি তার চেয়েও বেশি ভয়ংকর। নিচে নেমে সে অনুভূতিই হচ্ছিল। মনে হচ্ছিল, এবারের মতো কোনো দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে ফিরলাম।

গ্রিন ভ্যালি থেকে ফাগু ভ্যালি
কুফরি থেকে ফিরতে দুপুর হয়ে গেছে। পথেই গ্রিন ভ্যালি, ফাগু ভ্যালি। পাহাড়ের রাস্তার একপাশে সারি সারি গাছ অন্যপাশে ঢালু পাহাড়। এ নিয়েই এই দুই ভ্যালি। পাশেই একটি রেস্টুরেন্টে পেয়ে গেলাম বাঙালি খাবার। এবারের গন্তব্য মল রোড।

shimla

মল রোড
ট্যাক্সি ড্রাইভার নামিয়ে দিলেন এক লিফট কাউন্টারের সামনে। লিফট কেন? লিফট দিয়েই নাকি পাহাড়ের ওপর উঠতে হবে। সেখানেই মল রোড। ১০ টাকা করে জনপ্রতি টিকিট সংগ্রহ করে লাইনে দাঁড়িয়ে লিফটে পৌঁছে গেলাম মল রোডে। মানালির মতোই সুন্দর শিমলার মল রোড। রাস্তার পাশে বসার জন্য ছোট ছোট ব্র্যাঞ্চ। কিন্তু রাস্তায় কোনো গাড়ি নেই। ছোট ছোট দোকান। সেখানে পর্যটকদের ভিড়। শিমলার শাল (চাদর) নাকি খুবই ভালো। মল রোড ঘুরেই তার প্রমাণ পেলাম। পাহাড়ের ঢালু পথ ধরে মল রোডে নেমে গেছে নিচের পাহাড়ে। রাস্তার একপাশে পাহাড় অন্যপাশে হরেক রকম পণ্যের দোকান।

শিমলার দর্শনীয় জায়গাগুলো আমাদের কাছে তেমন আকর্ষণীয় মনে হয়নি। তবে পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে গড়ে ওঠা শিমলা শহর খুবই সুন্দর। রাতে বাসে ফিরছি দিল্লি।

shimla


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution