• রাত ১১:৫৬ মিনিট রবিবার
  • ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
মেম্বার ফেল করা হুমায়ুন কবির এবার ইউপি চেয়ারম্যান ব্যালটে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখা সিল! জামপুরে নৌকার প্রার্থী হুমায়ুন কবির জয়ী ব্যালটে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখা সিল! শম্ভুপুরা, সাদিপুর ও নোয়াগাঁয়ে যারা চেয়ারম্যান হলেন সনমান্দিতে একটি কেন্দ্রের ভোট স্থাগিত সোনারগাঁয়ে শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহন শেষে চলছে গননা সোনারগাঁয়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো ইউপি নির্বাচন সোনারগাঁয়ে ১২ জনের নমুনায় ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত উপজেলার প্রতিটি ইউপিতে শান্তিপূর্ন ভোট গ্রহন শান্তিপূর্ন ভাবে চলছে পিরোজপুর ইউপিতে ভোট গ্রহন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের বাড়িতে হামলা এই নির্বাচন যেন বর্তমান ও সাবেক এমপি’র লড়াই সাংবাদিকদের পর্যবেক্ষক কার্ড রাজনীতিবিদের হাতে রাত পোহালে ৮টি ইউপিতে ভোট যুদ্ধ, নিরাপত্তা নিয়ে শংকা আগামীকাল সোনারগাঁয়ের ৩৮৯ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারন সোনারগাঁয়ে নারীসহ ২ মাদক কারবারী গ্রেপ্তার ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী জয়ের ট্রাম্পকার্ড বিএনপি নৌকা জেতাতে মাঠ ছাড়ছেন না কালাম আজ মধ্যে রাতে শেষ হচ্ছে নির্বাচনী প্রচারনা
পুলিশের দাবি ধাক্কা নয় স্টোক করে মহিলার মৃত্যু হয়েছে

পুলিশের দাবি ধাক্কা নয় স্টোক করে মহিলার মৃত্যু হয়েছে

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ সোনারগাঁ থানা পুলিশের ধাক্কায় মাদক ব্যবসায়ী মা জোসনা বেগমের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ দাবি করেছেন জোসনা বেগম পুলিশের ধাক্কায় নয় ছেলে আটকের আটকের খবর শুনে স্টোক করে মারা গেছেন।আর মানবিক কারনে মাদক সহ আটকের পর মাদক ব্যবসায়ী সজিবকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। গতকাল রবিবার রাতে উপজেলার বাড়ী মজলিশ গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানাগেছে, গতকাল রবিবার রাতে উপজেলা মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ী মজলিশ গ্রামে সজিব নামের এক মাদক ব্যবসায়ীর বাড়িতে মাদক উদ্ধারে পুলিশ অভিযান চালায়। সোনারগাঁ থানার এসআই হাবিব ও এসআই মনির হোসেন ও এএসআই নাজমুল এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন। এসময় উপজেলার মোগরাপাড়া বাড়ি মজলিশ গ্রামে অভিযান চালিয়ে গিয়াস উদ্দিনের ছেলে সজিব (২৮) কে আটক করে। এ সময় সজিবের মা জোসনা বেগম পুলিশকে বাঁধা দিতে গেলে পুলিশ তাকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। এতে ঘটনাস্থলে জোসনা গুরুতর আহত হন। আহত অবস্থায় আশপাশের লোকজন মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

এদিকে, সোনারগাঁ থানার এসআই হাবিব ও এ এস আই মনির হোসেন ও এএসআই নাজমুল দাবি করেন সজিব একজন মাদক ব্যবসায়ী। তার ঘর থেকে ৫০ পিস ইয়াবা ও এক পুরিয়া গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে। যার প্রেক্ষিতে তাকে আটক করা হয়। এসময় মাদক ব্যবসায়ী সজিবের মার সাথে আমাদের ধাক্কাধাক্কির কোন ঘটনা ঘটেনি। ছেলে আটকের ঘটনা দেখে তিনি স্টোক করে মারা গেছেন।

এদিকে সজিবের বাবা গিয়াসুদ্দিনের ররাত দিয়ে তার স্বজনরা জানান, সজিবের ঘরে কোন মাদক ছিল না। পুলিশের দুজন সোর্স ঘরে প্রবেশ করে বালিশের নিচে মাদক রেখে সজিবকে ফাসিয়েছে। এক সময় সজিব মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে চলাফেরা করত। বর্তমানে সে তাদের সঙ্গ ছেড়ে দিয়েছে। তাকে জোড় করে পুলিশ মাদক দিয়ে আটক করলে সজিবের মা জোসনা বেগম বাঁধা দেয়। এক পর্যায়ে পুলিশ তাকে ধাক্কা দিয়ে সজিবকে নিয়ে যায়। পুলিশের ধাক্কায় পড়ে গিয়ে জোসনা অজ্ঞান হয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে সজিবকে নিয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে তার মায়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে রাতেই সজিবকে ছেড়ে দেয়।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, মাদক ব্যবসায়ীর মাকে পুলিশ ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়ার ঘটনা সঠিক নয়। তার মা আগেই স্টোকের রোগী ছিল। ঘটনার আকস্মিকতায় তিনি স্টোক করে মারা গেছেন। আমরা সজিবকে পুলিশ হেফাজত থেকে ছেড়ে দিয়েছি।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution