• বিকাল ৩:০১ মিনিট রবিবার
  • ২২শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ৫ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে জ্বর- সর্দি কার্শিতে এক বৃদ্ধার মৃত্যু, করোনা আতঙ্কে কাছে যাচ্ছে না কেউ পিরোজপুর ইউপির ৩ গ্রামের অসহায়দের মাঝে চেয়ারম্যান মাসুমের ত্রাণ বিতরন উপজেলার ৮ হাজার অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবেন ইঞ্জিনিয়ার মাসুম ভাইস চেয়ারম্যান বাবু ওমরের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ সাদিপুর ইউনিয়নে প্রতিবন্ধী ও দুস্থ- অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ সোনারগাঁয়ে ত্রাণ বিতরণের ছবি ফেসবুকে পোষ্ট করে সমালোচনার মুখে ডাক্তার বিরু মোগরাপাড়া বিদ্যায়তনের ২০০৪ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ত্রান বিতরণ এখনো করোনামুক্ত রয়েছে যে ১৮ রাষ্ট্র ২৫০ প্রতিবন্ধী ও ৭০ জন হিজরার মাঝে নগদ অর্থ ও ত্রান সামগ্রী প্রদান চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ মাসুমের সোনারগাঁয়ে মঙ্গলেরগাঁও কান্দাপাড়া এলাকায় সৌদি প্রবাসী ব্যবসায়ীর উদ্যোগে ত্রান বিতরন সোনারগাঁয়ে দুস্থদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় বারদীতে তরুচ্ছায়া সংগঠনের নানা উদ্যোগ উপজেলা আওয়ামীলীগে আহবায়ক কমিটির উদ্যোগে জামপুরে অসহায়দের মাঝে ত্রান বিতরণ করোনায় মধ্যবিত্তের কান্না… রবিউল হুসাইন সোনারগাঁও পৌরসভা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বাংলাদেশে আরও ৫ জন কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন বন্দরে করোনায় এক নারীর মৃত্যু ঘরে থাকবেন আপনারা খাবার পৌছে দিব আমরা. চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুম সোনারগাঁয়ে পিপিই’র অভাবে চিকিৎসা দিতে আসেন না বে-সরকারী ক্লিনিকের চিকিৎসকরা

জুয়েল বাঁচতে চায়

নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ঈমানেরকান্দি গ্রামের জুয়েল (১৬) দুরারোগ্য ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত হয়ে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে।

জানাগেছে, উপজেলার সনমান্দি ঈমানেরকান্দি গ্রামের নয়াবাড়ি রহিম স্টীল মিলে লেবার সালে আহম্মদের ৩ ছেলে মেয়ের মধ্যে জুয়েল সবার বড়। সে গত ২০১৬ সালে জেএসসি পরিক্ষার্থী ছিল। কিন্তু তার মাথায় তীব্র ব্যাথা থাকায় সে পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে পারেনি। সে সময় থেকেই সে মাথা ব্যাথা নিয়ে দূর্বিসহ যন্ত্রনায় দিনযাপন করছেন। এদিকে, কয়েকদিন ধরে তার সে ব্যাথা আরো তীব্র হলে তার বাবা সালে আহম্মদ একজন স্থানীয় ডাক্তারের সরণাপন্ন হন। তখন সে ডাক্তার তাকে ভালমতো দেখে একটি সিটিস্কিন করার পরামর্শ দেন। এরপর জুয়েলের পিতা সালে আহম্মদ নারায়ণগঞ্জ এলাকায় একটি ক্লিনিকে নিউরোলোজি বিশেষজ্ঞ কাছে নিয়ে গেলে তিনিও একটি সিটিস্কিন করার পরামর্শ দেন। তার পরামর্শ মোতাবেক সিটিস্কিন করার ডাক্তার জানান তার ব্রেন টিউমার ধরা পড়েছে এটা নিরাময় করতে হলে তার মাথায় অপারেশনের করতে হবে। সেজন্য ব্যয় হবে ৬/৭ লাখ টাকা। এরপর জুয়েলের বাবা আরো একাধিক বিশেজ্ঞের কাছে গেলে তারও একই পরামর্শ দেন। এদিকে, ছেলে নিরাময় করতে ৬/৭ লাখ টাকার কথা শুনে তার গরীর বাবা ও তার পরিবার দিশেহারা।

তার বাবা সালে আহম্মদ জানান, আমি একজন সামান্য বেতনের লেবার। পরিবার চালাতেই যেখানে হিমশিম খাচ্ছি সেখানে ছেলের চিকিৎসা করতে এতো টাকা কোথায় পাব। যে পরিমান জমানো টাকা ছিল তা দিয়ে ছেলের চিকিৎসার পেছনে ব্যয় হয়েছে। এখন টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছিনা। এদিকে, প্রচন্ড মাথার যন্ত্রনায় বিছানায় শুয়ে ছটফট করছে। আমি বাবা হয়ে তাকাতে পারছিনা। চোখের সামনে আমার বুকের ধন বড় ছেলেটা দিনে দিনে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে। যা একটা বাবার পক্ষে মেনে নেয়া অসম্বব। এমতাবস্থায় সমাজের বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে আল্লাহ হয়ত তাদের উছিলায় আমার বুকের ধনকে বাঁচাতে পারে। তাই আমি বিত্তবানদের নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি চিকিৎসার সাহায্যের জন্য।

যদি কোন হৃদয়বান ব্যক্তি তার চিকিৎসা জন্য সহায়তা প্রদান করতে ইচ্ছুক হন তাহলে তার বাবা সালেহ আহম্মদ এর নাম্বারে -০১৯৫৭২৩৪৮৯৭ নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করেছেন।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution