• সন্ধ্যা ৬:৪০ মিনিট রবিবার
  • ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
ফেলা যাওয়া টাকা ও টুপির মালিককে খুঁজছে ফার্মেসী মালিক সোনারগাঁয়ে ভেজাল খাদ্য তৈরির দায়ে গ্রেফতার ১ রোজা রেখে চুল ও নখ কাটা যাবে? না.গঞ্জের সেই সিংহামের হাতে বন্দি হলেন মামুনুল রোযাও কমছেনা তরমুজ ও আনারসের দাম সোনারগাঁও পৌরসভার কাউন্সিলর তপন গ্রেফতার লক ডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ সোনারগাঁয়ে করোনা আক্রান্ত ১৪, মৃত্যু ১ সুস্থ ৪০ সোনারগাঁয়ে করোনা আক্রান্ত ১৪, মৃত্যু ১ সুস্থ ৪০ চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে মাস্ক ও ইফতারি বিতরন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযুদ্ধা ওবায়দুল হকের দাফন সোনারগাঁয়ে একদিনে করোনায় মৃত্যু ৩, আক্রান্ত ১১ সনমান্দিতে দুই ডাকাত আটক বন্দরে চোরাই গার্মেন্ট পণ্য উদ্ধার, গ্রেপ্তার-২ আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে ইঞ্জিনিয়ার মাসুমের আর্থিক সহায়তা প্রদান কঠোর লকডাউনের ২য় দিনের জনজীবন স্বাভাবিক পিরোজপুরে ৪টি বসত ঘরে আগুন মাহে রমজান উপলক্ষে সনমান্দী ইউনিয়নে অসহায়দের মাঝে ত্রান বিতরণ সোনারগাঁয়ে ট্রাক চাপায় মামা-ভাগ্নে নিহত মৃত শিশুকে কবর দেওয়াকে কেন্দ্র করে শিশুর স্বজনদের বাড়ীতে হামলা
খন্দকার আবু জাফরের মন্তব্যের কঠোর জবাব দিলেন রিয়াজ উদ্দিন

খন্দকার আবু জাফরের মন্তব্যের কঠোর জবাব দিলেন রিয়াজ উদ্দিন

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলা বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি মন্তব্যের কারনে ব্যাপক সমালোচনায় পড়েছে উপজেলা বিএনপি। এর মধ্যে সভাপতি খন্দকার আবু জাফর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদ দুটি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সেই সঙ্গে সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সেক্রেটারি পদ থেকে আমির হোসেনকে সরিয়ে সেলিম সরকারকে স্থলাভিষিক্ত করার প্রতিবাদও জানান জাফর। দাবি করেন- আমির হোসেনই সেক্রেটারি। সেলিম সরকার সেক্রেটারি নয়। কেউ যদি এটা করে থাকে তাহলে সেটা বৈধ নয়। রিয়াজ উদ্দীনও ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নয় এবং কাজী নজরুল ইসলাম টিটুও সাংগঠনিক সম্পাদক নয়। জাফর এখনও সভাপতি ও শাহআলম মুকুল সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বহাল রয়েছেন বলেও দাবি করেছেন। তবে এ বিষয়ে খন্দকার আবু জাফরকে কঠোর জবাব দিয়েছে রিয়াজ উদ্দীন।

এদিকে মিডিয়াতে রিয়াজ উদ্দীন দাবি করেছেন- মিথ্যাচার করেছেন খন্দকার আবু জাফর। তার অভিযোগ জাফর গোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন। শনিবার দুপুর নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দাবি করা রিয়াজ উদ্দীন।

রিয়াজউদ্দিন বলেন, ২০১৪ সালে খন্দকার খন্দকার আবু জাফরকে সভাপতি ও আজহারুল ইসলাম মান্নানকে সাধারণ সম্পাদক করে সোনারাগাঁ উপজেলা বিএনপির কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেই সময় মোস্তাফিজুর রহমান মামুনকে সিনিয়র সহ-সভাপতি ও পরবর্তী সহ-সভাপতি পদে আমাকে পদায়ন করা হয়। কমিটি ঘোষণা করার কিছুদিন পর মোস্তাফিজুর রহমান মামুন হৃদরোগে আক্রান্ত প্যারালাইজড রোগে হয়ে দল থেকে লিখিতভাবে অব্যাহতি নেন। তার অব্যাহতির পর থেকে আমি দলের ১নং সিনিয়ন সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছি।

এছাড়াও তিনি বলেন, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী নজরুল ইসলাম টিটু দলের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তাছাড়া খন্দকার আবু জাফর গত তিন বছর যাবত দলের কোন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করেন না। তার অবর্তমানে দলের সকল দায়িত্ব আমাকে পালন করতে হয়। তিনি ব্যবসার কাজে সবসময় দেশের বাহিরে অবস্থান করেন। দলের দুঃসময়ে সভাপতির অবর্তমানে আমাকেই দায়িত্ব পালন করতে হয়। গত কয়েক বছর আগে জাতীয় মে দিবস উপলক্ষে কাঁচপুর বালুর মাঠে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যখন জনসভা করেছিলেন। সেই জনসভার আগে যতগুলি প্রস্তুতিমুলক সভা হয়েছে তার প্রত্যেকটিতে আমি সভাপতিত্ব করেছিলাম।

এছাড়া রোযার সময় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মেঘনা শিল্পাঞ্চলে এসেছিলেন সেই সময় আমিই ওই অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে সভাপতিত্ব করেছি। তখন তো জাফর সাহেব কোন প্রতিবাদ করেননি। এখন তিনি পবিত্র হজ্জ পালনে সৌদি আরব রয়েছেন সেই হিসেবে দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আমি দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি। তাই দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপি সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে আমির হোসেনকে অব্যাহতি দিয়ে হাজী সেলিম সরকারকে সাধারণ সম্পাদক পদে পদায়ন করেছি। এটা বৈধ এবং গঠনতন্ত্র অনুযায়ী।

অন্যদিকে সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মামুন নিউজ সোনারগাঁও টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, কয়েক বছর পূর্বেই আমি অসুস্থ্য হওয়ার পর দল থেকে স্বেচ্ছায় অব্যাহতি নিয়েছি।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution