• সন্ধ্যা ৭:২৬ মিনিট শনিবার
  • ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সাদিপুরে কনফিডেন্স এর উদ্যোগে ১ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা ইঞ্জিনিয়ার মাসুমের উদ্যোগে স্বজনদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ যাত্রীবাহি প্রাইভেট উঠার আগে সাবধান. ওসি হাফিজুর ইসলাম সোনারগাঁয়ে ২ মহিলাসহ ৪ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে রূপায়ন কোম্পানির উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ পচা মাংস বিক্রির অপরাধে মদনপুরে কসাইকে জরিমানা সোনারগাঁয়ে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা মানছেনা স্বাস্থ্যবিধি মামুনুল কান্ডে ভাংচুরের ঘটনায় হেফাজত কর্মী গ্রেফতার প্রতিবন্ধি যুবকের পাশে দাড়ালেন ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম ছুটির দিনে সোনারগাঁয়ে মার্কেটগুলোতে উপচে পড়া ভীড় সোনারগাঁয়ে ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ের ব্যাংকগুলোতে লেনদেন করতে গ্রাহকদের উপচে পড়া ভীড় শেখ রাসেল স্টেডিয়াম প্রকল্প দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ এমপি খোকার বেগম খালেদা জিয়া ও মান্নানের সুস্থতা কামনা দোয়া ও কোরআন বিতরন প্রধানমন্ত্রীর সাইকেল উপহার পেল গ্রাম পুলিশের সদস্যরা সোনারগাঁ নতুন করে ৩ জনের দেহে করোনা সনাক্ত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সক্রিয় ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার ৫০০শত অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ দাইয়ান মেম্বারের করোনায় কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিতরন
নাশকতা মামলায় সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৪৪ জন আসামী

নাশকতা মামলায় সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৪৪ জন আসামী

Logo


নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির ৪৪ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নাশকতার প্রস্তুতির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার রাতে তালতলা ফাঁড়ির এসআই মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আরো ২০-৩০জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে। সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী সেলিম সরকারকে মামলায় প্রধান আসামী করা হয়। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে গনতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাত ও বিস্ফোরক দ্রব্য দিয়ে বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠানে হামলার উদ্দেশ্যে ষড়যন্ত্রের করছিল বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।
এ মামলায় আসামী করা হয়, সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান মাসুম, সাধারণ সম্পাদক হাজী সেলিম সরকার, নানাখী দক্ষিন পাড়া গ্রামের রুস্তম আলী ডাক্তারের ছেলে মনিরুজ্জামান লিটন, ছাত্রদল নেতা নানাখী মধ্য পাড়া গ্রামের অলিউল্লাহর ছেলে মো. কাউসার, নয়াপুর কাঠালিয়া পাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে মো. আল আমিন হোসেন অভি, নানাখি গ্রামের আব্দুল বাতেনের ছেলে মো. আজিজুল ইসলাম আজিজ, ভারগাঁও গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে সোনারগাঁও তাঁতি দলের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, খিদিরপুর গ্রামের মমতাজ উদ্দিনের ছেলে লিটন মিয়া, চৌরাপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে মো. শাহিনুল ইসলাম, গঙ্গাপুর কালিবাড়ি গ্রামের কলিমউদ্দিনের ছেলে জসিমউদ্দিন, বরাব গ্রামের পরশ আলীর ছেলে সোহেল, একই গ্রামের আজিমুদ্দিনের ছেলে নাজমুল, বাইশটেকী গ্রামের মৃত মান্নান ভূইয়ার ছেলে সালাম ভূইয়া, ভারগাঁও গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে জামাই সেলিম, চেয়ারম্যান পাড়া গ্রামের নাসিরউদ্দিন, কোনাবাড়ি গ্রামের কফিলউদ্দিনের ছেলে রোকন, সাদিপুর গনকবাড়ি গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম, গজারিয়াপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে মোস্তফা, সাদিপুর শিকদার বাড়ি গ্রামের আব্দুল লতিফ শিকদারের ছেলে রিপন শিকদার, মামুন শিকদার, সাদিপুর গ্রামের কাছিম উদ্দিনের ছেলে হাফিজুল ইসলাম, সাদিপুর গ্রামের কামরুজ্জামান মোল্লার ছেলে রিয়াজ মোল্লা, নানাখী গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম, নানাখী গ্রামের জসিমউদ্দিন, বেলপাড়া গ্রামের অহেদ আলীর ছেলে আঃ সালাম, শিরাব গ্রামের হাজী হাবিবুর রহমানের ছেলে মাওলানা মো. ইকবাল হোসেন, সাদিপুর গ্রামের আবু জাফরের ছেলে জুবায়ের, নয়াপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে ইসহাক মাওলানা, নানাখী গ্রামের আঃ লতিফের ছেলে শফিকুল ইসলাম, নেকবর আলীর ছেলে সামসুদ্দিন, নানাখী দক্ষিন পাড়া গ্রামের ওসমান ভূইয়ার ছেলে রফিকুল ইসলাম ভূইয়া, নানাখী গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে ইব্রাহিম, সাদিপুর মোল্লাবাড়ির মোতালেব মোল্লার ছেলে মোমেন, মৃত আব্দুল কাদের মোল্লার ছেলে মাইনউদ্দিন, কাজরদী গ্রামের সোহবানের ছেলে আবু বকর, কোনাবাড়ি গ্রামের রমজান, সাদিপুর মোল্লা বাড়ির শফিকুল মোল্লার ছেলে সুমন মোল্লা, নানাখী দক্ষিনপাড়া গ্রামের ওহাব আলীর ছেলে রমজান আলী, নানাখী দক্ষিন পাড়া গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে আবু বকর, নয়াপুর কাছিমউদ্দিনের ছেলে হাফিজুল, সাদিপুর মোল্লা বাড়ির নাজমুল মোল্লা, ও সাদিপুর গ্রামের শফিক বিহারী। এছাড়াও আরো ২০-৩০জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution