• রাত ৮:৩৩ মিনিট বুধবার
  • ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনীকে কেন্দ্র করে ঘোড়া প্রতিকের সমর্থকের পুকুরে বিষ প্রয়োগ সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনীকে কেন্দ্র করে ঘোড়া প্রতিকের সমর্থকের পুকুরে বিষ প্রয়োগ সোনারগাঁয়ে অ্যাম্বুলেন্স দূর্ঘটনার নিহত -১ উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রতিকের নির্বাচন করায় গাছ কর্তন নব নির্বাচিতত উপজেলা চেয়ারম্যানকে নিয়ে এতিমদের দোয়া সোনারগাঁয়ে ট্রান্সফরমার চুরির সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাসহ আটক-৪ হাসনাত পরিবারের প্রয়াত নেতাদের কবর জিয়ারত করলেন নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান তুমি যদি মুমিন হও তাহলে নিরাশ হইওনা. নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সোনারগাঁয়ে পরকীয়ার জেরে স্ত্রী হত্যা, স্বামী আটক সোনারগাঁয়ে তাঁত শ্রমিককে হত্যার ঘটনায় দুই সহোদর গ্রেপ্তার শম্ভুপুরার চরকিশোরগঞ্জ ও চরহোগরার জাল ভোট ঠেকাতে চ্যালেঞ্জের মুখে প্রশাসন ‘যারা আনারসে ভোট দিতে চান, কেন্দ্রে আইসেন, না দিতে চাইলে ঘরে থাইকেন’ বাবুল ওমরের হুমকি-ধামকিতে ভোটের মাঠে প্রভাব পড়েছে আনারস প্রতিকের সোনারগাঁয়ে চোরাই মোবাইলসহ সাতজন গ্রেফতার  আজ থেকে কালাম আমার পরিবারের একজন সদস্য আওয়ামীলীগ নেতা বিরুর বংশ উচ্ছেদের হুমকির ঘটনায় বাবুল ওমরকে শোকজ ঘোড়াকে জয়ী করতে নির্বাচনী মাঠে কাঁচপুরের খাঁন পরিবার ঘোড়ার পক্ষে যু্বলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেনের উঠান বৈঠক উপজেলা আওয়ামীলীগের নীতি নির্ধারক সোহাগ রনি? সোনারগাঁয়ে গত ৯ দিন ধরে দুই সহোদর নিখোঁজ
বর্তমান রাজনীতি ও আগামী নির্বাচন নিয়ে ডা. বিরুর সাক্ষাতকার

বর্তমান রাজনীতি ও আগামী নির্বাচন নিয়ে ডা. বিরুর সাক্ষাতকার

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ
নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু যিনি বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থপেডিক বিভাগের চেয়ারম্যান ও পাশাপাশি কেন্দ্রীয় স্বাচিপের সাংগঠনিক সম্পাদক। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়নগঞ্জ-৩ আসন থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তিনি। সম্প্রতি সোনারগাঁয়ের বর্তমান রাজনীতি ও আগামী নির্বাচন নিয়ে ডাঃ বিরু কথা বলেন নিউজ সোনারগাঁয়ের সাথে। সাক্ষাতকার নিয়েছেন সোনারগাঁয়ের তরুণ লেখক ও সাংবাদিক রবিউল হুসাইন।
নিউজ সোনারগাঁ: আপনার আওয়ামী রাজনীতির শুরুটা কিভাবে?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: আমি ১৯৮৬ সালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে পড়াশুনাকালীন মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাথে যুক্ত হই। পরিবর্তিতে আমি ওই কমিটিতে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হই। মেডিকেল থেকে এমবিবিএস পাশ করার পর স্বাচিপের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলর ছিলাম। ২০০৩ সালে কেন্দ্রীয় স্বাচিবের নিবার্হী কমিটির মেম্বার নির্বাচিত হই। ২০০৮ সালে আওয়ামীলীগের আন্দোলন সংগ্রামে সক্রিয় ভাবে অংশ নিয়েছি। পাশাপাশি পুলিশের হামলায় আহত নেতাকর্মীদের চিকিৎসা সেবাও দিয়েছি। ২০০৮ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-প্রক্টর হিসেবে দায়িত্ব পাই। ২০১৫ সালে কেন্দ্রীয় স্বাচিপের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হই। ২০১৭ সালে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পাই।
নিউজ সোনারগাঁ: সোনারগাঁয়ে আপনি আবদুল্লাহ আল কায়সার হাসনাতের সাথে রাজনীতি শুরু করেছেন। এখন নিজেরই আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চাচ্ছেন। এর কারণ কি?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু:আমি কায়সার ভাইয়ের সাথে রাজনীতি করেছি। ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে জামপুর ইউনিয়নে কায়সারের পক্ষে ব্যাপক প্রচারনা চালিয়েছি। কিন্তু কায়সার ভাই যখন পরবর্তিতে মনোনয়ন পেলেন না তখন সোনারগাঁ আওয়ামীলীগে হাল ধরার মতো কাউকে আমি দেখিনি। তাই আমি নিজেই নিজে থেকে দায়িত্ব নিয়ে আওয়ামীলীগের বিভিন্ন দলীয় কর্মসূচী পালন করেছি। পাশাপাশি নিজেকে মনোনয়নের জন্য যোগ্য মনে করায় দলীয় মনোনয়নও চাচ্ছি।
নিউজ সোনারগাঁ: সোনারগাঁয়ে আওয়ামীলীগের ১০ জন মনোনয়ন প্রার্থী হওয়ার কারণ কি?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: সোনারগাঁ থেকে যে ১০ জন মনোনয়ন চাচ্ছেন তারা সবাই কি আসলে মনোনয়নের জন্য মাঠে নেমেছেন? নাকি একেক জনের উদ্দেশ্য একেক রকম। আমার মতে যারা মনোনয়ন চাচ্ছেন তাদের মধ্যে ৩/৪ রকমের ক্যাটাগরি আছে। কেউ মনোনয়ন চাচ্ছেন অর্থনৈতিক কারনে, কেউ নিজের পরিচিতি বাড়াতে, কেউ দলকে সংগঠিত করতে ও কেউ সত্যিকারের মনোনয়ন পেতে।
নিউজ সোনারগাঁ: সোনারগাঁয়ে বর্তমানে মহাজোট ক্ষমতায় আছে। মহাজোট বহাল থাকলে আপনার ভূমিকা কি হবে?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: গত ৫ বছরে এ আসনে মহাজোট থাকায় আওয়ামীলীগ অত্যন্ত ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এবার যাতে এ আসনে নৌকাকে মনোনয়ন দেওয়া হয় সেজন্য কেন্দ্রে যা যা করা দরকার সবই আমি করেছি। নৌকার জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদেরকে অবহিত করা হয়েছে। আশাকরি এবার এ আসনে নৌকার মনোনয়ন দেওয়া হবে। যদি মহাজোটকে মনোনয়ন দেওয়া হয় সেক্ষেত্রে নেত্রীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কাজ করবো ।
নিউজ সোনারগাঁ: যদি আপনি আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পান তাহলে বাকি ৯ মনোনয়ন প্রত্যাশীকে কিভাবে আপনার সাথে সম্পৃক্ত করবেন?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: আমি মনোনয়ন পেলে সোনারগাঁয়ের বাকি মনোনয়ন প্রত্যাশীসহ সবাইকে সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে নৌকার বিজয়ের জন্য কাজ করবো। আশা করি আমি ডাকলে সবাই আমার সাথে সম্পৃক্ত হবেন।
নিউজ সোনারগাঁ: যদি আপনি মনোনয়ন না পান সেক্ষেত্রে অন্য কেউ মনোনয়ন পেলে আপনার ভূমিকা কি হবে?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: এখান থেকে যে নৌকার মনোনয়ন পাবেন আমি তার পক্ষেই কাজ করবো।
নিউজ সোনারগাঁ: সোনারগাঁ থেকে অনেকে মনোনয়ন চাচ্ছেন সেক্ষেত্রে আপনি কতটুকু আশাবাদী?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: জননেত্রী শেখ হাসিনা মনোনয়নের জন্য যে যে ক্যাটাগরি চেয়েছেন আমি মনে করি সব যোগ্যতাই আমার আছে। আমি মনে করি যারা সোনারগাঁ থেকে যারা মনোনয়ন চাচ্ছেন তাদের কেউই আমার সাথে যোগ্যতায় পারবেনা। সুতরাং আমি মনোনয়নের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।
নিউজ সোনারগাঁ: আপনি যে চাকুরীতে আছেন সেখান থেকে মনোনয়ন প্রাপ্তিতে আইনগত কোন বাঁধা আছে কিনা?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: মনোনয়ন প্রাপ্তিতে এ ধরনের আইনগত কোন বাঁধা নাই।
নিউজ সোনারগাঁ: আপনার পরিবার স্বাধীনতা বিরোধী বলে সোনারগাঁয়ে একটি বির্তক আছে। এ ব্যাপারে বক্তব্য কি?
নিউজ সোনারগাঁ: আমাকে হত্যাকারী বললেও আমি কষ্ট পাইনা স্বাধীনতা বিরোধী বললে যে কষ্ট পাই। কারণ আমি স্বাধীনতার পক্ষের লোক।  আমার পরিবারে যে ক’জন মুক্তিযোদ্ধা আছে সোনারগাঁয়ে আর কোন পরিবারে এ পরিমান মুক্তিযোদ্ধা নাই। আমার মা পদ-পদবীধারী আওয়ামীলীগের নেত্রী ছিলেন। তিনি জোহা সাহেবের সাথে রাজপথে রাজনীতি করেছেন। ১৯৭৯ সালে সংসদ নির্বাচনে সোনারগাঁ থেকে আওয়ামী রাজনৈতিক পরিবারের কেউ আওয়ামীলীগের নির্বাচন করার সাহস পায় নাই তখন সোনারগাঁয়ের তৎকালীন আওয়ামীলীগের  সাধারণ সম্পাদক সনমান্দি ইউনিয়নের বাসিন্দা সৈয়দ মুজিবুর আওয়ামীলীগের মনোনয়নে নির্বাচন করেছিলেন। তখন তার প্রধান ক্যাম্প ছিলো আমার বাড়িতে। আমার বাবা যদি স্বাধীনতার বিরোধী থাকতো তাহলে তিনি আওয়ামীলীগের নির্বাচন করতেন না। আমার দুলাভাই স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দ সৈনিক ছিলেন। আমার একমাত্র মামা ফ্রিডম ফাইটার ছিলেন। আমার পরিবার যদি স্বাধীনতা বিরোধী হয় তাহলে আর কিছু করার নাই।
নিউজ সোনারগাঁ: তাহলে কেন আপনার পরিবারের বিপক্ষে এ অপপ্রচার?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: আত্মীয়-স্বজন অনেকেই অনেক কিছু থাকতে পারে। আমার পরিবারেও একজন কুলাঙ্গার ছিলো। তার সাথে আমার কি সর্ম্পক? রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে আমার পরিবারের বিরুদ্ধে এ অপপ্রচার চালানো হয়েছে। আমি বা আমার পরিবার যদি স্বাধীনতা বিরোধী হতো তাহলে জননেন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দল থেকে এত পুরস্কৃত করতেন না। আমাকে বর্তমানে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে গুরুত্বপূর্ন অর্থপেডিক বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তাছাড়া জেলা আওয়ামীলীগে গুরুত্বপূর্ন পদে বসানো হয়েছে। আমি স্বাধীনতার পক্ষের লোক বিধায় আমাকে এসব দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় এসব দেয়া হতো না। সম্প্রতি বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিক্ষার জন্য জেলে যে ৫জন ডাক্তার পাঠানো হয়েছিল সেখানে আমিও একজন ছিলাম। শেখ হাসিনার আস্থাভাজন আছি বলেই আমাকে এ দায়িত্ব দেয়া হয়ে ছিলো।
নিউজ সোনারগাঁ: আমরা জানি রাজনৈতিক কর্মকান্ড ছাড়াও সোনারগাঁয়ে আপনি দীর্ঘদিন যাবত অসহায় মানুষদের বিনা মুল্যে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন। পাশাপাশি শিক্ষা ক্ষেত্রেও বিভিন্ন অবদান রাখছেন। আসন্ন নির্বাচনে যদি মনোনয়ন না পান তাহলে আপনার এসব সামজিক কর্মকান্ড কি বন্ধ করে দেবেন? নাকি অব্যাহত রাখবেন?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: রাজনৈতিক পাশাপাশি সমাজসেবা মূলক সকল কর্মকান্ড অবশ্যই অব্যাহত থাকবে।
নিউজ সোনারগাঁ: সোনারগাঁবাসীর উদ্দেশ্যে আপনার বক্তব্য কি?
আবু জাফর চৌধূরী বিরু: আমি সোনারগাঁবাসীকে নিয়ে থাকতে চাই। কারো ক্ষতি করতে চাই না। যতদিন পারি সোনারগাঁবাসীকে সেবা দিয়ে যাবো। সোনারগাঁবাসীর ভালবাসা নিয়ে বাঁচতে চাই।

Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution