• রাত ৪:৩১ মিনিট শনিবার
  • ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
রাস্তার কাজ সম্পন্ন করতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন এমপিএল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন সনমান্দিতে আমিনুল ইসলাম আমান ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সোনারগাঁয়ে আ.লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা সোনারগাঁও জাদুঘরের কারুশিল্পীদের দোকান বরাদ্দে উচ্চ আদালতে রিট ২ কোটি টাকা ব্যয়ে ওয়াটার সাপ্লাই পাইপের উদ্ধোধন সোনারগাঁয়ে ৭ হাজার ৭ শত পিস ইয়াবাসহ আটক ৩ ভোটারদের স্মার্ট কার্ড তুলে দিলেন চেয়ারম্যান শিপলু মাসব্যাপী লোকজ ও মেলা নিয়ে মত বিনিময় সভা আবারও চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি’র উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হত্যা মামলায় জড়ানোর অভিযোগ চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসা যন্ত্রণাদায়ক: জয়া বুধবার ১০ জনের নমুনা পরিক্ষায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁয়ে বান্ধবীর সহায়তায় কিশোরীকে ধর্ষণ, বান্ধবী গ্রেপ্তার আল- মোস্তফা গ্রুপের জমি দখলের অভিযোগ আনন্দ শিপ ইয়ার্ডের বিরুদ্ধে টেকনাফে নারায়নগঞ্জের পর্যটকের লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত নয়াগাঁও’য়ে সংষর্ঘের ঘটনায় আলী আহম্মেদ নামে আরেক জনের মৃত্যু ইজিবাইক ডাম্পিং দেয়ায় ছুরি চালিয়ে চালকের আত্মহত্যার চেষ্টা না.গঞ্জেও সংসার ছিল ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রীর
ইউএনও’র হুসিয়ারী, শিক্ষা কর্মকর্তা- শাহ আলীর সুসর্ম্পক, ছাড় পেল না পরীক্ষার্থীরা

ইউএনও’র হুসিয়ারী, শিক্ষা কর্মকর্তা- শাহ আলীর সুসর্ম্পক, ছাড় পেল না পরীক্ষার্থীরা

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ এক সাথে তিনটি বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা, এলাকার প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করে বিদ্যালয় করে রাতারাতি কোটিপতি বনে যাওয়া শাহ আলী নিজের দূর্নীতি অনিয়ম আড়াল করতে বিশেষ পেশার কিছু লোককে মানেজ করে তার পক্ষে সংবাদ প্রকাশ করিয়ে সকল অনিয়ম আড়াল করতে অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন প্রতাপের চর গ্রামের সুশীল সমাজের ব্যক্তিরা।

তারা অভিযোগ করে বলেন, আমরা কোন ব্যক্তি নয় আমরা একটা দুনীতিমুক্ত শিক্ষাঙ্গন চাই যাতে আগামী প্রজন্ম জাতিকে একটা সুন্দর সুস্থ সমাজ উপহার দিতে পারি।। যে বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিজেই তার আখের গোছাতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নামে বেনামে ধোকা দিয়ে টাকা আদায় করছে ভবিষ্যৎতে সে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের কাছ থেকে এগুলো শিখে ভবিষ্যতে তারাও অবলম্বন করবে।

কারণ একজন শিশু যেমন তার পরিবারের ভালমন্দ শিখে জীবন চলতে সাহায্য পায় তেমনি বিদ্যালয় থেকে শিক্ষা গ্রহন করে ভবিষ্যত গড়তে সাহায্য পায়। বিদ্যালয় থেকে তারা যে শিক্ষা গ্রহন করবে সে শিক্ষা নিয়েই ভবিষ্যত পরিচালনা করবে। সেজন্য ওই বিদ্যালয়ে শিক্ষককেও ভাল ও নীতিবান হওয়া একান্ত প্রযোজন।

এলাকাবাসী জানান, শাহ আলী মেঘনা এলাকার একটি ভাল ও শিক্ষিত ছেলে। সে সোনারগাঁ ডিগ্রী কলেজে খন্ডকালীন  হিসেবে শিক্ষাকতায় যোগ দেন। বর্তমান অধ্যক্ষ আশরাফুজ্জান অপু এ কলেজের ছাত্র হওয়ায় তাকে অন্যদের চেয়ে একটু বেশী সুযোগ সুবিধা প্রদান করতেন। সে সুযোগে শাহ আলী মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল এন্ড কলজেও শিক্ষাকতা শুরু করেন।  এরপর এলাকার গন্যমান্য ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ম্যানেজ করে মেঘনা স্কুলের অর্ধ কিলোমিটার দুরে একটি বাড়ী ভাড়া করে এসআর স্টার ফ্লওয়ার নামে একটা বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্টার আগেই সু-চতুর শাহ আলী দেশের বড় বড় বিদ্যালয়ের চেয়ে সেরা বিদ্যালয় বানাবেন বলে মেঘনা এলাকার শিল্পপতিদের ম্যানেজ করে তাদের ছেলে মেয়েদের ভর্তি করান সে জন্য তিনি একটি নতুন গাড়ী ব্যতিক্রম ধর্মী কিছু উদ্যোগ নিয়ে বিদ্যালয়টি শিল্পপতিদের দৃস্টিতে আনার চেস্টা করে। সে কাজে তিনি সফলও হন। আর সুযোগে দেশের নামিদামি বিদ্যালয়ের মত অভিভাবদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় উন্নয়ন ও খরচ দেখিয়ে হাতিয়ে নিয়েছেন হাজার হাজার টাকা।

এছাড়া জেএসসি ও এসএসসি আসলে বিভিন্ন অজুহাতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা আদায়ের পায়তারা করেন এ পরিচালক। এসব করে কয়েক বছরে বনে যান কোটিপতি। এছাড়া সরকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে একই সাথে তিনটি প্রতিষ্ঠানে শিক্ষাকতা করেছেন। এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদপত্র সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর বর্তমানে তিনি একটি প্রতিষ্ঠান থেকে চাকরী ছেড়ে দেন।

সম্প্রতি এসএসসি ফরম ফিলাপকে কেন্দ্র করে পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ তুলেছেন।  শিক্ষা বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী  পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে সর্বোচ্চ ১৯৫০ টাকা নির্ধারন করে দিলেও এসআর স্কুলের পরিচালক শাহ আলী নিচ্ছেন ৮ হাজার টাকা। যদিও তিনি তা অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন আমি ফরমের জন্য বেশী টাকা আদায় করি না। তবে আমি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোচিং ফি’ সহ অন্য বকেয়া আদায় করছি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বিষয়টি দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়েও শাহ আলীর সাথে সুসর্ম্পক থাকায় কোন ব্যবস্থা নিতে পারেন নি। ফলে কোন সুবিধা পাননি ভুক্তভোগী পরীক্ষার্থীরা।

সোনারগাঁ উপজেলা কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার তার ফেসবুক আইডিতে ফরম ফিলাপে অতিরিক্ত টাকা আদায়ে ব্যাপারে হুসিয়ারী দিলেও এসআর স্কুলের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপই নেননি। তার হুসিয়ারীটি ফেসবুকের আইডিতেই সীমাবদ্ধ রয়ে গেছে বলে মনে করে ভুক্তভোগীরা।

 

 


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution