• দুপুর ১:২০ মিনিট মঙ্গলবার
  • ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বর্ষাকাল
  • ২৩শে জুলাই, ২০১৯ ইং
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সাদিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নব নির্বাচিত ম্যানেজিং কমিটিকে শুভেচ্ছা নাশকতার মামলায় হাজিরা দিলেন সোনারগাঁ বিএনপির নেতাকর্মীরা ধর্ষকের শাস্তি মৃত্যুদন্ড করা হোকঃ মানববন্ধনে ড. সেলিনা থানা পুলিশের কঠোরতার কারণে অবৈধ অটোরিক্সা কম থাকায় যানজটমুক্ত চৌরাস্তা সাংবাদিক ফারুক হাসানের মায়ের ইন্তেকাল সোনারগাঁ থেকে ৩ দিন ধরে স্কুল ছাত্রী নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ ছেলেধরা গুজব বন্ধে ও সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে পুলিশে দিতে মাইকিং আমি তোমাদের নতুন ভবন দিবো বিনিময়ে তোমরা আমাকে ভাল রেজাল্ট দিবা, এমপি খোকা সোনারগাঁয়ে ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার-৩ কাউকে ছেলে ধরা সন্দেহ হলে থানায় খবর দিন ওসি সোনারগাঁ কাঁচপুরে শীর্ষ পরিবহন চাঁদাবাজ মোমেনকে আটক করেছে র‌্যাব কাঁচপুরে শীর্ষ পরিবহন চাঁদাবাজ মোমেনকে আটক করেছে র‌্যাব-১১ মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় নেই পাবলিক টয়লেট, চরম বিপাকে পথচারীরা নাজমুলের সন্ধান চান তার মা-বাবা কাঁচপুরে ৪ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন সোনারগাঁ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিল্লাল হোসেনের নানীর ইন্তেকাল সোনারগাঁয়ে রেডচিলি চাইনিজ রেস্টুরেন্টের শুভ উদ্ধোধন সামাজিক অবক্ষয়ের কারনে উৎকৃষ্ট মানুষের নিৎকৃষ্ট আচরন সামাজিক অবক্ষয়ের কারনে উৎকৃষ্ট মানুষের নিৎকৃষ্ট আচরন
সোনারগাঁয়ে টাকার অভাবে পড়াশুনা বন্ধের পথে মেধাবী জয়নালের

সোনারগাঁয়ে টাকার অভাবে পড়াশুনা বন্ধের পথে মেধাবী জয়নালের

নিউজ সোনারগিঁ২৪ডটকমঃ টাকার অভাবে বন্ধ হওয়ার পথে সোনারগাঁও পৌরসভার গোয়ালদী গ্রামের মেধাবী ছাত্র মো. জয়নাল উদ্দিনের পড়াশুনা। দরিদ্র পিতার সন্তান জয়নাল উদ্দিন ২০১৬ সালে সোনারগাঁ জি আর ইনস্টিটিউশন স্কুল এন্ড কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৫ পেয়ে কৃতিত্বের সাথে এস এস সি পরীক্ষায় উত্তীর্ন হয়। পরে সে স্থানীয় সোনারগাঁ ডিগ্রী কলেজে এইচ এস সি তে ভর্তি হয়। তার দরিদ্র পিতার পক্ষে পড়াশুনা চালিয়ে নেয়া দূরুহ হয়ে পড়েছে। চার ভাই বোনের মধ্যে জয়নাল উদ্দিন সবার বড়। বাকী তিন বোনও পড়াশুনা করছে। এক বোন এইচ এস সি প্রথম বর্ষ, আরেক বোন এ বছর এস এস সি পরীক্ষা দিয়েছে সবার ছোট বোন ক্লাস টুতে পড়ে। জয়নালের পিতা কৃষি কাজ করে সংসার চালায় পাশাপাশি চার সন্তানকে পড়াশুনা করাচ্ছেন। তার পক্ষে সন্তানদের ভরন পোষন দিয়ে পড়াশুনা চালিয়ে নেয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে।
মো. জয়নাল উদ্দিন জানান, আমার বাবা অনেক কষ্ট করে সব ভাই বোনকে পড়াশুনা করাচ্ছেন। সংসার চালিয়ে এখন আর তিনি পড়াশুনার খরচ জোগার করতে পারছে না। আমি পড়াশুনার ফাঁকে ফাঁকে রাজমিস্ত্রির কাজ করে পড়াশুনার খরচ চালানোর চেষ্টা করছি কিন্তু এতে পড়াশুনার ক্ষতি হয় তাই সব সময় কাজ করতে পারি না।

মো. জয়নাল উদ্দিনের বাবা মো. হানিফ জানান, আমার ছেলে ছোট বেলা থেকেই খুব মেধাবী। টাকার অভাবে আমার ছেলের পড়াশুনা বন্ধ হয়ে যাবে এটা ভাবলেই খুব কষ্ট হয়। ছেলেটা তার পড়াশুনা চালিয়ে যেতে পারলে একদিন সংসারের হাল ধরতে পারতো। তার বোনদের পড়াশুনাও বন্ধ হতো না।

এই নিউজটি শেয়ার করুন...

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution