• রাত ২:৫৫ মিনিট সোমবার
  • ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
আগামী শুক্রবার সোনালী অতীত বনাম প্রেস ক্লাবের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ সোনারগাঁয়ে র‍্যাবের অভিযানে ৫০ কেজি গাঁজা উদ্ধার মাদ্রাসার নতুন ভবন পরিদর্শনে এমপি খোকা বেঙ্গালুরুতে তরুণীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের দায়ে ১১ বাংলাদেশির কারাদণ্ড সোনারগাঁয়ে বিশ্ব মেডিটেশন দিবস পালন সাদিপুরে শ্রমিকলীগের পুর্ণমিলনী মোগরাপাড়া ইউপি নির্বাচনে ২ ইউপি সদস্যের মনোনয়নপত্র বাতিল জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে একই পরিবারের ৩জনকে পিটিয়ে জখম বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ টুর্ণামেন্ট ফাইনালে বৈদ্যেরবাজার ইউপি ১-০ গোলে জয়ী বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টে নোয়াগাঁওকে হারিয়ে বৈদ্যেরবাজার ফাইনালে সোনারগাঁও পৌরসভাকে হারিয়ে জামপুর ফাইনালে আলেমদের তালিকার প্রতিবাদে সোনারগাঁয়ে জামায়াতের বিক্ষোভ আলেমদের তালিকার প্রতিবাদে সোনারগাঁয়ে জামায়াতের বিক্ষোভ কাঁচপুরে মিরাজ নামের ১২ বছরের কিশোর নিখোঁজ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ টুনামেন্টে জামপুর ইউনিয়ন ৩ – ২ গোলে জয়ী যেতে_যেতে_পথে দরগাবাড়ি_নহবতখানা মনোনয়ন জমা দিয়ে জুতা পায়ে শহীদ মিনারে নৌকার পরিবার দাবি, নৌকা না পেলেই বিদ্রোহী, এড. সামসুল ইসলাম মোগরাপাড়া ইউপি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন যারা শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে আহবায়ক কমিটি, যুবলীগ ও শ্রমিক লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন
আইভীতে স্বস্থি উপজেলা আওয়ামীলীগে

আইভীতে স্বস্থি উপজেলা আওয়ামীলীগে

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: রাজনীতিতে শেষ বলে কোন কথা নেই। ক্ষমতা আসবে ক্ষমতা যাবে এ নিয়ে রাজনৈতিক জীবন শেষ করে রাজনীতিবিদরা। পালা বদলের এ রাজনীতি থেকে কেউ মুক্ত হতে পারে না। সুদিন দূর্দিন সবারই থাকে তারপরও সামনে এগিয়ে যাওয়ার নামই রাজনীতি। সে রকম রাজনীতিতে দূর্দিন পার করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের রাজনীতিবিদরা। গত এক যুগেরও বেশী আওয়ামীলীগের সরকার ক্ষমতায় থাকলেও অনেকটা কোনঠাসা ছিলেন রাজনৈতিক এলাকা হিসেবে খ্যাত মোগরাপাড়া ও তৃণমুল আওয়ামীলীগের নেতারা কর্মীরা। নারায়ণগঞ্জের এক প্রভাবশালী এমপি ও নব্য আওয়ামীলীগাদের কারণে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাজানো বাগান ভেঙ্গে লন্ডভন্ড হয়ে গিয়েছিল অনেক আগেই তারপর হাল ছাড়েননি তারা। অবশেষে নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ডা: সেলিনা হায়াত আইভী পূনরায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর ভেঙ্গে যাওয়া লণ্ডভণ্ড সেই বাগানকে আবার ঢেলে সাজানোর স্বপ্ন দেখছেন তারা। দেখছেন ঐতিহ্যবাহী আওয়ামীলীগ পরিবারগুলো তাদের পুরোনো স্বপ্ন। শুরু করবেন নতুন করে নতুন আঙ্গিকে উপজেলা আওয়ামীলীগকে। তাদের সাথে চাঙ্গা হচ্ছেন তৃনমুল আওয়ামীলীগ নেতারাও। মুক্তি পাচ্ছেন ব্যক্তি কেন্দ্রিক ভাই খ্যাত লীগ থেকে।

জানাগেছে, গত ২০১৪ সালের নির্বাচনে তৎকালীন এমপি কায়সার হাসনাতকে বাদ দিয়ে সোনারগাঁ থেকে মনোনয়ন পান জাতীয়পার্টির এমপি লিয়াকত হোসেন খোকাকে। তারপর ২০১৯ সালের নির্বাচনেও ফের মনোনয়ন পেয়ে এমপি মনোনীত হোন লিয়াকত হোসেন খোকা। যদিও সেই নির্বাচনে সাবেক এমপি কায়সার দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে অবশেষে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ান। ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর ক্ষমতার হ্রাস পেতে থাকে ঐতিহ্যবাহী হাসনাত পরিবার তথা মোগরাপাড়া এলাকার রাজনৈতিক দাপট। এরপর নারায়ণগঞ্জের এক প্রভাবশালীর এমপির রাজত্ব চলতে থাকে সোনারগাঁয়ে। সেই রাজত্বের কারণে আওয়ামীলীগের নেতারা ক্ষমতার সাস্রাজ্য হারাতে থাকেন। নব্য আওয়ামীলীগ ও জাতীয়পার্টির ক্ষমতার কাছে ক্ষমতা হারাতে হয় তাদের সর্বক্ষেত্রে। যার প্রতিফলন ঘটে উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির মাধ্যমে। ব্যক্তি কেন্দ্রিক ভাই খ্যাত লীগের কারণে পদ- পদবী হারা হোন সাবেক এমপি কায়সার ও কালামসহ অসংখ্য ত্যাগী নেতারা। ক্ষমতা চলে যায় নব্য আওয়ামীলীগ ও চাটুকারদের হাতে। তারপরও হতাশ হননি কায়সার কালাম বলয়। তারা নব্য আওয়ামীলীগ ও আহবায়ক কমিটিকে জায়গায় জায়গায় বাঁধার সৃষ্টি করেন। তাদের বাঁধার কারণে সোজা হয়ে দাড়াতে পারেনি জাতীয়পার্টি ও আহবায়ক কমিটি। যদিও ২০১৯ সালে উপজেলা নির্বাচনে হাসনাত পরিবার থেকে মোশারফ হোসেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হোন। কিন্তু তিনি বয়সের বাড়ে রাজনীতিতে সক্রিয় ভুমিকা পালন করতে পারেননি। তারপরও তাকে সামনে রেখে এগিয়ে যান কায়সার কালাম ও এইচএম মাসুদ দুলালসহ অন্যান্য নেতারা। গত বছরের এপ্রিল মাসের ৩ তারিখে সোনারগাঁ রয়েল রির্সোটে হেফাজত নেতা মামুনুর হক কান্ডের পর থেকে কিছুটা সোজা হয়ে দাড়ায় মোগরাপাড়ার রাজনীতি। সেই হেফাজত কান্ডের পর আহবায়ক কমিটিতেও স্থান পান সাবেক এমপি কায়সারসহ মোগরাপাড়া এলাকার আরো ৭ নেতাকর্মী। এরপর থেকে রাজনীতিতে ইউটান করতে থাকেন মোগরাপাড়া। সভা সমাবেশ থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে শুরু হয় তাদের পদচালনা। সর্বশেষ গত ইউপি নির্বাচনেও তাদের পদচারনা ছিল সবত্র। নির্বাচনে জাতীয়পার্টির প্রার্থীদের বিরুদ্ধে তাদের ভুমিকা ছিল অকল্পনীয়।দিনরাত পরিশ্রম করেন নৌকাকে জয়ী করতে।

সর্বশেষ নারায়ণগঞ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের সিদ্ধিরগঞ্জের দায়িত্ব দেয়া হয় সাবেক এমপি কায়সার হাসনাতকে। নাসিক নির্বাচনে কায়সার কালাম, ইঞ্জিনিয়ার মাসুম, নান্নুসহ সকল নেতার উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। নৌকা প্রতিককে নির্বাচিত করতে প্রতিদিন মাঠ চষে বেড়িয়েছেন তারা। সাথে যোগ দিয়ে ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতারাও। নাসিক নির্বাচনে অনেকটা দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে গিয়ে নিশ্চুপ ছিলেন সেই প্রভাবশালী এমপি যিনি সোনারগাঁয়ের রাজনৈতিক গুরু হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিলেন। সাথে নিশ্চুপ ছিলেন ভাইখ্যাত আওয়ামীলীগ নেতারাও। সেই এমপি নিরবতার কারণে কেন্দ্রীয় নেতারা তাকে ঈঙ্গিত করে আগামীতে মনোনয়ন না দেয়ারও অঙ্গিকার করেন। অবশেষে সেই এমপির সকল ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে জয়লাভ করেন বর্তমান মেয়র আইভী রহমান। এদিকে নাসিক নির্বাচনকে ঘিরে কেন্দ্র থেকে ভেঙ্গে দেয়া হয় মহানগর ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও শ্রমিকলীগের কমিটি। চাউর হচ্ছে ভেঙ্গে দেয়া হবে মুল কমিটিও। যেগুলোতে ভাইখ্যাত এমপির লোক রয়েছে সেই কমিটিগুলোকেই টার্গেট করা হচ্ছে কেন্দ্র থেকে। একের পর এক কমিটি ভেঙ্গে ফেলা ও নাসিক নির্বাচনে নৌকার বিরোধিতার কারণে অনেকাই ব্যাকফুটে চলে গেছেন ভাইখ্যাত আওয়ামীলীগ নেতারা। এদিকে সেলিনা হায়াত আইভী তিনতিন বার নাসিককে জয়লাভ করায় চাঙ্গা হচ্ছেন আইভী বলয়ের নেতাকর্মীরা। আইভীকে সিদ্ধিরগঞ্জে বিপুল ভোটে জয়লাভ করার কারণে কেন্দ্র থেকেও ধন্যবাদ পান সাবেক এমপি কায়সার হাসনাত ও তার সমর্থিত নেতাকর্মীরা। আইভী নির্বাচনে জয়লাভ করার কারণে উপজেলা আওয়ামীলীগেও সেই জয়ের প্রভাব পড়েছে বলে মনে করছেন তৃনমুল নেতারা।

তৃনমুল নেতারা জানান, গত ৭টি বছর আমরা একজন ব্যক্তি কেন্দ্রীয় রাজনীতির যাতাকলে পৃষ্ট হয়ে পড়েছিলাম। দল ক্ষমতায় থাকা সত্বেও ক্ষমতার স্বাদ পাইনি ভাইখ্যাত লীগের কারণে। আজ সেলিনা হায়াত আইভী নির্বাচিত হওয়ার পিছনে আমাদের নেতারা অনেক পরিশ্রম করেছেন যার জন্য কেন্দ্রীয় নেতারাও অনেক খুশি। এবার আমরা মনে করছি আমাদের সুদিন আসবে। আমরা দলের ক্ষমতার স্বাদ পাবো। ভাইখ্যাত লীগ ও নব্য আওয়ামীলীগার থেকে মুক্ত হয়ে নতুন উদ্যেমে কাজ করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে সামনে এগিয়ে যাবো।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution