• রাত ২:২৭ মিনিট বুধবার
  • ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
কাঁচপুরে বিভিন্ন বে-সরকারী ক্লিনিকে ভ্রাম্যমান আদালতেরর অভিযান ভাইস চেয়ারম্যান পদে কাঁচপুর যুবলীগের সভাপতি মাহবুব পারভেজের গণসংযোগ সোনারগাঁয়ে স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তির বিরুদ্ধে সনমান্দী তে কালামের জনসংযোগ ও মতবিনিময় সভায় নেতাকর্মীর ঢল এমপি’র হস্তক্ষেপে হকারমুক্ত হলো ফুটওভার ব্রিজ সোনারগাঁয়ে অটোচালক রজ্জব হত্যার প্রধান আসামী আটক সোনারগাঁয়ের কাপড় ব্যবসায়ীর লাশ বুড়িগঙ্গায় উদ্ধার মেঘনা সেতু ফুট ওভারব্রিজের রেলিংয়ের সাপোর্টিং খুটি কেটে নিলো সওজের কর্মীরা সোনারগাঁয়ে স্মার্ট লুকস জেন্টস পার্লার এন্ড স্পা সেন্টার উদ্বোধন সোনারগাঁ সরকারী ডিগ্রী কলেজের হিসাব রক্ষককে পিটিয়ে আহত সোনারগাঁয়ে অবৈধ গ্যাস বোতলজাত করার সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ১ ব্যক্তির মৃত্যু হঠাৎ ওসমান শিবিরে ধাক্কা সোনারগাঁও পৌরসভায় বৃদ্ধ শ্বশুরকে কুপিয়ে জখম করলো ছেলের বউ আমার দেয়ার কিছু নেই কিন্তু আপনাদের নেয়ার অনেক কিছু আছে..এমপি কায়সার হাসনাত আদমপুর বাজারে হাটার রাস্তা সরু করে অবৈধ দোকান নির্মাণ আনন্দবাজার হাটের ইজারা পেলেন প্যানেল চেয়ারম্যান নবী হোসেন সোনারগাঁয়ে ৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার কাঁচপুরে গ্রেপ্তার এড়াতে ৬ তলা থেকে লাফিয়ে পড়লেন যুবক জামপুরে মাহফুজুর রহমান কালামের উঠান বৈঠক সোনারগাঁয়ের কান্দারগাঁয়ে ১২ বছরে ৪ খুন, আহত-৫০ এলাকা ছাড়া ৫০ পরিবার
ঝাউচরে নারীকে হত্যা করে ডাকাতির ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি

ঝাউচরে নারীকে হত্যা করে ডাকাতির ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: ডাকাতিতে বাধা দেওয়ায় এই খুনের ঘটনা নারায়ণগঞ্জের সােনারগাঁ থানার ঝাউচর এলাকার একটি বাড়িতে গত ৮ মে ডাকাতির ঘটনা ঘটে।ডাকাতির পরদিন বাড়ির মালিক আজিম উদ্দিন (৭০) ও তার স্ত্রী হােসনে আরা বেগম (৬৪) -কে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। হােসনে আরা বেগম হাত – পা বাধা ও মুখে স্কচটেপ অবস্থায় ছিলেন। তাদের হাসপাতালে নেওয়ার পর আজিমউদ্দিনের জ্ঞান ফিরলেও তার স্ত্রী’কে মৃত ঘোষনা করেন চিকিৎসকরা। এই ঘটনায় আজিম উদ্দিনের ছেলে আল আমিন বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করেন সিআইডি।

তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া যায়। সেই তথ্যের সুত্র ধরে চকূটিকে গ্রেফতার করা হয়। চক্রটি ভাড়াটিয়ার নাম করে ওই বাড়িতে প্রবেশ করে ডাকাতি শুরু করে। আর

ডাকাতিতে বাঁধা দেয়ায় এই খুনের ঘটনা ঘটে। সি আইডি বলেছে, চটপটি ভাড়াটিয়া সেজে বাড়িতে প্রবেশ করে। বাবা কখনো বেঁচেরল  আবার কখনো পরিবারসহ। যেভাবে  যে বাড়িতে যে ধরনের ভাড়াটিয়া দরকার তারা ঠিক সেভাবেই ভাড়াটিয়া হিসাবে প্রবেশ করে এরপর সুযোগমতো ডাকাতি করে পালিয়ে যায়। ডাকাতির সময় বাধা দিলেই খুনের ঘটনা ঘটায় তারা।

নারায়নগঞ্জে আলোচিত এ খুনের ঘটনায় আসামী গ্রেফতার নিয়ে গতকাল সোমবার দুপৃরে সংবাদ সম্মেলন করে সিআইডি। সংবাদ সম্মেলনে ব্রিফ করেন অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হােসেন।

ডিআইজি ইমাম হোসেন, ঘটনার পর বৃদ্ধের এক ভাড়াটিয়া দম্পতিকে বাড়িতে পাওয়া যাচ্চিল না। তারা হলো হারুন অর রশিদ ও তার স্ত্রী সুলতানা খাতুন। তারা পালিয়ে প্রথমে রংপুরের মিঠাপুকুরে যায় । গত ওই বাসায় ঢুকে ডাকাতি শুরু করে । আর ১২ মে গাজীপুর এরপর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে সিআইডি। তারা আদালতে এই ডাকাতি ও হত্যা ঘটনায় স্বীকারােক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। সিআইডি কর্মকর্তা ইমাম হােসেন বলেন, জবানবন্দিতে হারুন অর রশীদ ও সুলতানা খাতুন দম্পতি স্বীকার করেছে, তারা একটি ডাকাতচক্রের হয়ে নারায়ণগঞ্জের ওই বৃদ্ধার বাড়িটি ভাড়া নিয়েছিল। এই চক্রের মূলহােতা শিপন ও সুমন, যারা ওই বাড়িটি আগেই রেকি করেছিল। তারা নিজেরাই ওই বাড়িতে ঘর ভাড়া নিয়েছিল, কিন্তু বাড়িওয়ালা আজিম উদ্দিন তাদের ভাড়া দেননি। এরপর এই দম্পতিকে নিয়ে আসেন তারা । তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের চার মাস আগে আজিম উদ্দিনের বাড়িতে ঘর ভাড়া নেয় হারুন অর রশীদ ও তার স্ত্রী সুলতানা খাতুন । বাড়ির মালিক আজিম উদ্দিনকে প্রায়ই চা খাওয়াতে হারুনের স্ত্রী সুলতানা। তাদের কাছে বৃদ্ধ আজিম উদ্দিন যেতেন , তবে তার স্ত্রী হোসনে আরা বেগম কখনাে যেতেন না, বরং তিনি তার স্বামীকে ভাড়াটিয়ার বাসায় যেতে নিষেধ করতেন বলেও জানান সিআইডি। সিআইডি কর্মকর্তা জানান, গত ৭ মে রাতে বাড়ির মালিক আজিম উদ্দিনকে প্রথমে চায়ের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাওয়ায় হারুনের স্ত্রী সুলতানা খাতুন। তবে তিনি অচেতন না হওয়ায় ওই রাতে তারা ডাকাতি করতে পারেনি । পরের দিন ৭ মে ফের চা খাওয়ায় তাকে। এরপর তিনি অচেতন হয়ে যান। রাতে ডাকাতচক্রের মূলহােতা শিপন ও সুমন ওই বাড়িতে আসে। তারা ঘরে ঢুকে বৃদ্ধা নারীর হাত পা বেঁধে ফেলে। গামছা দিয়ে তার মুখ বেঁধে ফেলে। এরপরও তিনি চিৎকার করার চেষ্টা করলে লাইট বন্ধ করে স্কচটেপ দিয়ে তার মুখ পেঁচিয়ে বাধা হয় । এরপর ডাকাতি করে চক্রের সদস্যরা সবাই পালিয়ে যায়। ডাকাতির সময় ঘরের বাইরে হারুনের স্ত্রী পাহারায় ছিল। ইমাম হােসেন বলেন, মূল পরিকল্পনাকারী শিপন ও সুমন টোপ হিসেবে হারুন অর রশীদ ও তার স্ত্রী – সুলতানা খাতুনকে ব্যবহার করেছে তারা। শিপন ও সুমনকে ১৬ মে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। তারা জানিয়েছে, হারুনকে ডাকাতির ১১ হাজার টাকা দিয়েছিল। কিছু নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। স্বর্ণালংকার বিক্রি করে দিয়েছে তারা। সেগুলাে উদ্ধারে কাজ চলছে। তবে ওই বাড়ি থেকে ডাকাতরা কী পরিমাণ স্বর্ণালংকার নিয়েছে, তা নিহতের পরিবারের কেউ নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি। আজিম উদ্দিনের বাড়িতে ১৮/২০ টি টিনের ঘর, তাই ডাকাতদের ধারণা ছিল তারা অনেক টাকা পাবে। এই ধারণা থেকেই তারা বাড়িতে ডাকাতি করে বলেও জানান সিআইডি। এই হত্যায় চারজন জড়িত ছিল। চারজনকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। ইমাম হােসেন বলেন, আমরা হত্যার ২০ দিনের মাথায় আসামিকে গ্রেপ্তার করেছি। দ্রুত এর চার্জশিট দেওয়া হবে। দ্রুত বিচার হলে অপরাধীরা ভয় পাবে, তারা বুঝতে পারবে অপরাধ করে পার পাওয়া যাবে না। ‘তিনি বলেন, ‘ ঢাকায় ১০/১২ লাখ বাড়িওয়ালা আছেন, তাদেরও সতর্ক থাকতে হবে । কাদের ভাড়া দেওয়া হয়, ভাড়াটিয়া কেমন এসব খেয়াল রাখতে হবে ।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution