• রাত ৩:৪৪ মিনিট বৃহস্পতিবার
  • ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁও পৌরসভায় বৃদ্ধ শ্বশুরকে কুপিয়ে জখম করলো ছেলের বউ আমার দেয়ার কিছু নেই কিন্তু আপনাদের নেয়ার অনেক কিছু আছে..এমপি কায়সার হাসনাত আদমপুর বাজারে হাটার রাস্তা সরু করে অবৈধ দোকান নির্মাণ আনন্দবাজার হাটের ইজারা পেলেন প্যানেল চেয়ারম্যান নবী হোসেন সোনারগাঁয়ে ৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার কাঁচপুরে গ্রেপ্তার এড়াতে ৬ তলা থেকে লাফিয়ে পড়লেন যুবক জামপুরে মাহফুজুর রহমান কালামের উঠান বৈঠক সোনারগাঁয়ের কান্দারগাঁয়ে ১২ বছরে ৪ খুন, আহত-৫০ এলাকা ছাড়া ৫০ পরিবার পিরোজপুর কান্দারগাঁয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১ জনকে কুপিয়ে হত্যা জনগণের দোয়া চেয়ে গণসংযোগ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ আলী হায়দার এসএসসি পরীক্ষার্থী অভিভাবকদের বসার জন্য সোহাগ রনি’র ছাউনী নির্মাণ এসএসসি পরীক্ষার্থী অভিভাবকদের বসার জন্য সোহাগ রনি’র ছাউনী নির্মাণ ১১ই মে তারিখে সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আহত যুবলীগ নেতা নাছিরের খোঁজ নেননি দলীয় নেতারা উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আলী হায়দার এর গণসংযোগ সোনারগাঁয়ে ১০টি টিনশেট ও ১টি দোকান পুড়ে ছাই, ১০ লাখ টাকার ক্ষতি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস প্রস্তুতি মুলক সভা টুমোরো নেভার কামস❞ জামপুরে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এমপি কায়সার আনসার ও টুরিস্ট পুলিশের হামলায় সোনারগাঁ যুবলীগের প্রচার সম্পাদক নাছির আহত সনমান্দি ইউনিয়নবাসীর দোয়া নিয়ে আলী হায়দারের নির্বাচনী প্রচারনা শুরু
মাদকমুক্ত রাখতে খেলার মাঠের ব্যবস্থা করলেন ইউপি সদস্য

মাদকমুক্ত রাখতে খেলার মাঠের ব্যবস্থা করলেন ইউপি সদস্য

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:  মাদক থেকে যুব সমাজকে বাঁচাতে ও সুস্থ সুন্দর জীবন গড়তে নিজের অর্থায়নে জমি ভাড়া করে খেলার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তোতা মেম্বার। তার ওয়ার্ডে কোন খেলার মাঠ না থাকায় স্থানীয় ছাত্র ও যুবকরা মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়তো। তখন তোতা মেম্বার উপলব্ধি করেন খেলাধুলা যুব সমাজকে বিভিন্ন অপরাধ মূলক কাজকর্ম থেকে বাঁচাতে পারে ও সুস্থ রাখতে পারে। তার সেই উপলব্ধি থেকেই বিগত ৫ বছর যাবত ৪৪ শতাংশ জমি ভাড়া করে যুবকদের খেলার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড একটি জনবহুল এলাকা। ফতেপুর, জোয়ারদী, সাজালকান্দি ও কুমারচর এ চারটি গ্রাম নিয়ে ৩নং ওয়ার্ড। ইউনিয়নের অন্য ওযার্ডের তুলনায় এর আয়তনও অনেক বেশী। কিন্তু এ এলাকায় কোন খেলার মাঠ না থাকায় স্থানীয় ছাত্র ও যুবকরা খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত।

খেলাধুলার সুযোগ না থাকায় ধীরে ধীরে ছাত্র ও যুবকরা মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধ মুলক কাজে জড়াতে শুরু করে। তখন ওই এলাকার মৃত নুরু মিয়ার ছেলে (বর্তমানে ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার তোতা মিয়া) সাজালকান্দি এলাকায় ফসলি জমির পাশে একটি ৪৪ শতাংশ জমি মালিকের কাছ থেকে বছর মেয়াদী ভাড়া নিয়ে স্থানীয় শিশু কিশোর ও যুবকদের খেলার ব্যবস্থা করে দেন। জমির মালিকের কাছ থেকে বছরে ৫ হাজার টাকায় জমিটি ভাড়া করে দেন। তিনি শুধু জমিটি ভাড়াই করেননি তাদের খেলার জন্য সরঞ্জামাদিও কিনে দেন এবং কোন ছাত্র স্কুল ফাকি দিয়ে যাতে খেলার মাঠে পড়ে না থাকে তার জন্য তিনি নিজে প্রতিদিন এসে তদারকি করেন। এছাড়া এ মাঠে খেলা নিয়ে যাতে কোন ঝগড়ার সৃষ্টি না হয় সেজন্য প্রত্যেক গ্রামে ছাত্র ও যুবকদের আলাদা করে সময়ও বেধে দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে দশম শ্রেণীর ছাত্র শাহপরান জানান, আমাদের এলাকায় কোন খেলার মাঠ না থাকায় আমরা খেলাধুলা না করে বিভিন্ন জায়গায় আড্ডা দিতাম। কিন্তু এখন খেলার মাঠটি পাওয়ায় আড্ডার সময় পাইনা। লেখাপড়া শেষ করে যখনই সময় পাই তখই মাঠে এসে বন্ধুদের সাথে খেলা করি।
স্থানীয় কিশোর বায়জিদ ও শামীম জানান, মেম্বার সাহেব আমাদের জন্য মাঠ ভাড়া করে খেলার ব্যবস্থা করে দেয়ায় আমরা অনেক খুশি।

এ ব্যাপারে ৩নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার রুহুল আমিন জানান, আমার ওয়ার্ডে কোন খেলার মাঠ না থাকায় এসময় যুবক ও ছাত্ররা খেলাধুলা থেকে পিছিয়ে পড়েছিল। এখন খেলার মাঠ থাকায় তারা খেলাধুলার দিক দিয়ে অন্য ওয়ার্ড থেকে অনেক এগিয়ে গেছে। সরকার যদি এ ওর্য়াডে একটি স্থায়ী খেলার মাঠ করে দিতো তাহলে এলাকার ছেলে মেয়েরা নির্ভিগ্নে খেলাধুলার সুযোগ পেত।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য তোতা মেম্বার জানান, গত কয়েক বছর আগে দেখেছি আমার এলাকায় কোন খেলার মাঠ না থাকায় যুবকরা মাদকাসক্ত হয়ে পড়তো। আমি তখন চিন্তা করলাম তাদের জন্য কিছু করা দরকার। সেই উপলব্ধি থেকে আমি চিন্তা করলাম এখানে একটি খেলার মাঠ করলে যুবকরা খেলাধুলা করতে পারবে। আর খেলাধুলায় থাকতে তারা বাজে নেশা থেকে সরে আসবে। সেই চিন্তা থেকে ৬ বছর আগে এ মাঠটি আমি মালিকের কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে তাদের খেলার জায়গা করে দেই। এ মাঠটি পেলে যুবকরা এখন অনেকটাই ভালো হয়ে গেছে। তারা এখন মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধ থেকে সরে এসেছে।

আমার ওয়ার্ডের অলিপুরা বাজারের সাথে একটি সরকারী দিঘী রয়েছে সরকারীভাবে সেটা যদি বালু দিয়ে ভরাট করে দেয় তাহলে এ ইউনিয়নের দুটি ওয়ার্ডের ছাত্র ও যুবকরা খেলাধুলা করার সুযোগ পাবে।

এ ব্যাপারে সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ বলেন, ওই এলাকায় কোন খেলার মাঠ নেই। খেলাধুলার ব্যবস্থা থাকলে যুব সমাজ মাদকসহ কোন অপরাধে জড়ানোর সুযোগ পায় না। তাই খেলার মাঠের বিকল্প নাই। অলিপুরা এলাকায় একটি সরকারী দিঘী রয়েছে। এটি বালু দিয়ে ভরাট করতে পারলে স্থানীয় ছেলে মেয়েদের জন্য স্থায়ীভাবে একটি মাঠের ব্যবস্থা করা যাবে। এ ব্যাপারে আমি কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহীনুর ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে আমি অবগত নই। তবে এলাকাবাসী আমার সাথে যোগাযোগ করলে আমি স্থায়ী মাঠের ব্যবস্থা করার করবো।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution