• ভোর ৫:৩৩ মিনিট মঙ্গলবার
  • ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
আজ কি চমক দেখাবে পারবে ব্রাজিল? মাদক মামলায় ফেঁসে যাচ্ছে না.গঞ্জের ৪ পুলিশ সদস্য ইউনিয়ন শ্রমিক দলের সেক্রেটারী সহ বিএনপি ৪ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার দলিল লিখক মোশারফ এর হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন সোনারগাঁয়ে এক সঙ্গে তিন পুত্র সন্তানের জম্ম প্রাথমিক শিক্ষার গুণগত মান মানোন্নয়নের লক্ষ্যে সোনারগাঁয়ে শিক্ষকদের মাসিক সমন্বয় সভা নদী খনন করে নৌ-জেটি নির্মাণ ও আনন্দবাজারের নিম্ন অংশ ভরাটে চেয়ারম্যানের অভিনন্দন সোনারগাঁয়ে চেয়ারম্যানের পুত্রসহ দুইজন ইয়াবাসহ গ্রেফতার কাঁচপুর থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধ নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে বিশেষ অভিযানে আরো ৪ জন গ্রেপ্তার সাংবাদিক পরিমল বিশ্বাস এর মায়ের পরলোক গমন নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারে থানা বিএনপির নিন্দা সোনারগাঁয়ে ৬ বিএনপির নেতাকর্মী গ্রেপ্তার বিজয় দিবস উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভা বন্দরে মাছ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা ॥ আটক-২ নেতাকর্মীদের বাড়িতে পুলিশী তল্লাসীর নিন্দা স্বপনের আগামী ৪ ডিসেম্বর থেকে নারায়ণগঞ্জ থেকে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে নাশকতার মামলায় সোনারগাঁয়ে ৫ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার সোনারগাঁও সাহিত্য নিকেতনের সাবেক সভাপতি মোসলেহ উদ্দিনের ইন্তেকাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সস্পাদক আব্দুল হাই ভুঁইয়ার স্মরণে আলোচনা সভা
শুক্রবার থেকে নিষেধাজ্ঞা, ভারতীয়দের মাছ শিকারে আক্ষেপ জেলেদের

শুক্রবার থেকে নিষেধাজ্ঞা, ভারতীয়দের মাছ শিকারে আক্ষেপ জেলেদের

Logo


শুক্রবার থেকে নিষেধাজ্ঞা, ভারতীয়দের মাছ শিকারে আক্ষেপ জেলেদের
দেশের নদী ও সাগরে ফের ২২ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। আগামী ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মৎস্য অধিদপ্তর।

পটুয়াখালীর আলীপুর, মহিপুর ও কুয়াকাটার স্থানীয় জেলেপল্লিগুলো ঘুরে দেখা যায়, ২২ দিনের অবরোধ পালনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। তবে তাদের অভিযোগ, আমরা সঠিকভাবে সরকারি নিষেধাজ্ঞা পালন করলেও ভারতীয় জেলেরা বাংলাদেশ জলসীমায় প্রবেশ করে মাছ শিকার করে নিয়ে যান।

 

কুয়াকাটার জেলে দেলোয়ার মোল্লা জাগো নিউজকে জানান, সরকারের দেওয়া সব আইন মানতে আমরা চেষ্টা করি। ২২ দিনের অবরোধে আমরা ইলিশ শিকার করি না কিন্তু আমাদের এলাকায় এসে ভারতীয় জেলেরা মাছ শিকার করে নিয়ে যান। সরকারের কাছে অনুরোধ বাংলাদেশ ও ভারতে যদি একসঙ্গে অবরোধ দেওয়া হয় তাহলে অবরোধ পরবর্তী সময় বেশি মাছ ধরতে পারবো।

ঝাউবন এলাকার জেলে আবুল কালাম জানান, অবরোধ সামনে রেখে প্রতিদিনই আমরা দু-একটা জাল তীরে নিয়ে আসি। এভাবে অবরোধ শুরুর আগ মুহূর্তে মাছ ধরার সব সরঞ্জামাদি তীরে নিয়ে আসবো।

আলীপুর-কুয়াকাটা মৎস্য আড়তদার মালিক সমিতির সভাপতি আনসার উদ্দিন মোল্লা বলেন, সরকারের দেওয়া নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ে যাতে জেলেরা মাছ ধরার চেষ্টা না করে সেজন্য তাদের সচেতন করতে সক্ষম হয়েছি। এমনকি প্রতিটি পরিবারকে সচেতন করেছি, যাতে এ সময়ে কেউ ইলিশ না কেনেন।

কুয়াকাটা নৌ-পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখতার মোর্শেদ বলেন, একদিন পরই মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা শুরু হবে। এখন থেকে আমরা জেলেদের কাছে যাচ্ছি সতর্ক ও সচেতন করছি।

 

মৎস্য অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগের উপ-পরিচালক আনিসুর রহমান তালুকদার বলেন, মা ইলিশ রক্ষায় সরকার আগামী ৭-২৮ অক্টোবর পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। নিষেধাজ্ঞাকালীন প্রতিটি জেলেকে ২০ কেজি করে চাল দেওয়া হবে। জলসীমা রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর। অবৈধভাবে যদি কেউ আমাদের জলসীমায় প্রবেশ করে তা প্রতিহত করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution