• রাত ১২:৩৬ মিনিট সোমবার
  • ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
পিরোজপুর ইউপি’র উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দিবো.. ইঞ্জি: মাসুম নতুন পুরাতনের সমন্বয়ে ইউপি নির্বাচন, প্রতি ইউপিতে বিদ্রোহীদের সম্ভবনা কলেজ সরকারি করার দাবিতে মানববন্ধন করেন সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় কারো দেহে করোনা সনাক্ত হয়নি। নিউজ সোনারগাঁ সোনারগাঁয়ে ৮ ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা ধামগড়ে নৌকার মাঝি চেয়ারম্যান মাসুমের পক্ষে গণজোয়ার রূপগঞ্জে নাতিনকে ধর্ষনের পর হত্যার অভিযোগ নানার বিরুদ্ধে স্মার্টফোন কেনার জন্য স্ত্রীকে বৃদ্ধের কাছে বিক্রি সোনারগাঁয়ে ১লাখ মিটার জাল জব্দ তিন জনকে জরিমানা এক বছরের কারাদণ্ড এড়াতে প্রায় ২৩ বছর আত্মগোপনে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে প্রার্থীর তালিকা, প্রধানমন্ত্রী কাছে সাবেক এমপি’র নালিশ সোনারগাঁয়ে নতুন করে ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁ মদ্যপানে যুবকের মৃত্যু সন্তানকে বাঁচাতে কুমিরকে পিষে দিল হাতি, ভিডিও ভাইরাল মনোনয়ন টেনশনে নৌকা প্রার্থীরা ব্রিটেন যাচ্ছেন মিজানুর রহমান আজহারী মুশফিক-লিটনকে নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই দলে পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার কথা ‘স্বীকার করেছেন’ ইকবাল সোনারগাঁয়ে ফেনসিডিলসহ আটক ৪ সোনারগাঁয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিতে পালিত হচ্ছে লক্ষ্মী পূজা
সোনারগাাঁয়ে হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি ইউপি সদস্যের, থানায় অভিযোগ

সোনারগাাঁয়ে হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি ইউপি সদস্যের, থানায় অভিযোগ

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

সোনারগাঁ উপজেলার ভবনাথপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীকে হত্যার মামলার বাদি মোহাম্মদ আলীর মা শিউলী বেগমকে মামলা তুলে নিতে হুমকি প্রদান করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে মোহাম্মদ আলী হত্যার মামলার প্রধান আসামী ও পিরোজপুর ইউপি মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নিহত মোহাম্মদ আলীর মা শিউলী বেগম বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে নিহত মোহাম্মদ আলীর মা উল্লেখ করেন, তার ছেলে মোহাম্মদ আলীকে হত্যা করে পিরোজপুর ইউনিয়নের মেম্বার মোশারফ হোসেন ও তার সহযোগীরা। এ মামলায় গ্রেফতার হয়ে মোশারফ হোসেন দীর্ঘদিন জেল খেটে জামিন নিয়েছেন। জামিনে মুক্ত হবার পর মোশারফ হোসেন বিভিন্ন ভাবে এ মামলা তুলে নিতে বাদি শিউলী বেগমকে হুমকি দিয়ে আসছেন। গতকাল সোমবার বিকালে তার ছেলে সৈকত বৈদ্যেরবাজার বালুর মাঠে গরু কিনতে গেলে মোশারফ হোসেন তার পথরোধ করে মোহাম্মদ আলীর মামলা তুলে নিতে তাকে হুমকি প্রদান করে। এ নিয়ে সৈকতের সাথে মোশারফের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মোশারফ হোসেনের নেতৃত্বে ফয়সাল, দিপু,শান্ত, আবু সাঈদ, কবির হোসেন, হাবিবুর, জসিম ও বড় জসিম দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সৈকতের উপর হামলা চালায়। এসময় সৈকতকে তারা পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। সৈকতের চিৎকারে হাটের থাকা লোকজন এগিয়ে আসলে মোশারফ হোসেন ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে আহত সৈকতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution