• রাত ১২:২১ মিনিট সোমবার
  • ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : হেমন্তকাল
  • ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
পিরোজপুর ইউপি’র উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দিবো.. ইঞ্জি: মাসুম নতুন পুরাতনের সমন্বয়ে ইউপি নির্বাচন, প্রতি ইউপিতে বিদ্রোহীদের সম্ভবনা কলেজ সরকারি করার দাবিতে মানববন্ধন করেন সোনারগাঁয়ে ১১ জনের নমুনায় কারো দেহে করোনা সনাক্ত হয়নি। নিউজ সোনারগাঁ সোনারগাঁয়ে ৮ ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা ধামগড়ে নৌকার মাঝি চেয়ারম্যান মাসুমের পক্ষে গণজোয়ার রূপগঞ্জে নাতিনকে ধর্ষনের পর হত্যার অভিযোগ নানার বিরুদ্ধে স্মার্টফোন কেনার জন্য স্ত্রীকে বৃদ্ধের কাছে বিক্রি সোনারগাঁয়ে ১লাখ মিটার জাল জব্দ তিন জনকে জরিমানা এক বছরের কারাদণ্ড এড়াতে প্রায় ২৩ বছর আত্মগোপনে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে প্রার্থীর তালিকা, প্রধানমন্ত্রী কাছে সাবেক এমপি’র নালিশ সোনারগাঁয়ে নতুন করে ১ জনের দেহে করোনা সনাক্ত সোনারগাঁ মদ্যপানে যুবকের মৃত্যু সন্তানকে বাঁচাতে কুমিরকে পিষে দিল হাতি, ভিডিও ভাইরাল মনোনয়ন টেনশনে নৌকা প্রার্থীরা ব্রিটেন যাচ্ছেন মিজানুর রহমান আজহারী মুশফিক-লিটনকে নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই দলে পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার কথা ‘স্বীকার করেছেন’ ইকবাল সোনারগাঁয়ে ফেনসিডিলসহ আটক ৪ সোনারগাঁয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিতে পালিত হচ্ছে লক্ষ্মী পূজা
গিয়াস-জাফর হটাও মিশনে মান্নান

গিয়াস-জাফর হটাও মিশনে মান্নান

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকম:

আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আবারো প্রকাশ্যে দ্বন্ধ শুরু হয়েছে সোনারগাঁ থানা বিএনপি সভাপতি খন্দকার আবু জাফর ও সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম মান্নানের। সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে শুরু হয়েছে এ দ্বন্ধ। খন্দকার আবু জাফর বলছেন আমি সভাপতি আমার স্বাক্ষর ছাড়া কোন ইউনিয়নের কমিটি গঠন করা সম্ভব না এটা দলের পরিপন্থি। অপরদিকে মান্নান বলেছেন সভাপতি খন্দকার আবু জাফর পবিত্র হজ্জ পালনে মক্কা শরিফে থাকার তার দায়িত্বে রয়েছেন থানা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ। সভাপতি অবর্তমানে রিয়াজ আহম্মেদ দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি। তার সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত। আর এ সিদ্ধান্তকে ঘিরে চলছে আলোচনা সমালোচনা। জাফর পন্থিরা বলেছে মান্নান জাফর ও  গিয়াস হটাও মিশনে নেমেছে। সেজন্য জাফর ও গিয়াসের লোককে বাদ দিয়ে নিজের লোককে পদ-পদবী দিচ্ছেন।

দলীয় সুত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ২২ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ১০ ইউনিয়নে বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর ও সাধারণ সম্পাদক আজহারুল মান্নান এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়ন কমিটির ৭১ সদস্যের নাম যৌথভাবে ঘোষণা করেন।

বিএনপির নেতা আবু জাফর ও আজহারুল মান্নানের ঘোষণা অনুযায়ী, উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়নে রমজান সরকার সভাপতি ও আবুল হাসেম সাধারণ সম্পাদক, কাঁচপুরে সেলিম হক সভাপতি ও মোমেন খান সাধারণ সম্পাদক, মোগড়াপাড়ায় কাজী নজরুল ইসলাম সভাপতি ও মাজাহারুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক, শম্ভুপুরার জাহাঙ্গীর আলম সভাপতি ও শরিফুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক, পিরোজপুরের সিরাজুল হক সভাপতি ও জয়নাল আবেদীন সাধারণ সম্পাদক, নোয়াগাঁওয়ের ইজ্জত আলী সভাপতি ও কামরুজ্জামান সাধারণ সম্পাদক, বারদীর আলী আজগর সভাপতি ও আবদুর রহমান সাধারণ সম্পাদক, বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের তাজুল ইসলাম সরকার সভাপতি ও মোশারফ হোসেন সাধারণ সম্পাদক, জামপুর ইউনিয়নের আল মুজাহিদ সভাপতি ও সানোয়ার হোসেন সাধারণ সম্পাদক এবং সাদিপুর ইউনিয়নে কামরুজ্জামান ভুইয়া সভাপতি ও আমির হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা ১০টি ইউনিয়নে কমিটি গঠন করেন।

২০১৪ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সিদ্দিরগঞ্জের সাবেক সংসদ সদস্য গিয়াসউদ্দিনকে সোনারগাঁয়ে এনে শোডাউন করেছিলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর। মান্নানকে ছেড়ে গিয়াসকে নিয়ে শোডাউন করায় সে সময় মান্নান ও জাফরের দ্বন্ধ প্রকাশে রূপ নেয়। সে সময় অব্যহতি দেওয়া সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন ছিলেন গিয়াসউদ্দিনের কাছের লোক। তাই সেলিমকে বাদ দিয়ে সে সময় আমির হোসেনকে ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ঘোষনা করে আবু জাফর।

এদিকে, গত ৫ আগষ্ট সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপি সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেনকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাকে অব্যহতি দেওয়া হয়। আমির হোসেন মামলা থেকে বাঁচার জন্য সাদিপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও সাদিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রশিদ মোল্লার কাছ থেকে একটি প্রত্যায়ন পত্র নেন। সেখানে লেকা হয় আমির হোসেন বিএনপি কেউ না তার সাথে বিএনপির কোন সম্পক নেই। সে আওয়ামীলীগের একনিষ্ঠ কমী। ফলে আমির হোসেনের পরিবর্তে সেখানে হাজী সেলিম সরকারকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষনা করা হয়। উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি রিয়াজউদ্দিন আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক আজহারুল ইসলাম মান্নানের যৌথ স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে আমির হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে অব্যহতি ও সেলিম সরকারকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষনা করেন।

এদিকে, সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে আমির হোসেনকে অব্যহতি ও সেলিম সরকারকে ঘোষনা করার পর থেকে খন্দকার আবু জাফর ও আজহারুল ইসলাম মান্নানের মধ্যে দ্বন্ধ শুরু হয়েছে আবারও প্রকাশ্যে।

খন্দকার আবু জাফরের দাবি আমি দলের সভাপতি আমার স্বাক্ষর ছাড়া ইউনিয়ন বিএনপির কাউকে অব্যহতি ও কোন পদপদবী ঘোষনা করা যাবে না। এটা দলের গঠনতন্ত্র বিরোধী। কারণ দলের সাধারণ সম্পাদককে যদি কোন কারণে অব্যহতি দেওয়া হয় সে ক্ষেত্রে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হবেন। অপরদিকে, দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি রিয়াজউদ্দিন আহম্মেদ জানিয়েছেন, উপজেলা বিএনপি সিনিয়র সহ-সভাপতি আমি। দলের সভাপতির সকল সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা এটা ঠিক কিন্তু তার অবর্তমানে দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি দলের সভাপতি পালন করবেন এটা দলের গঠনতন্ত্রে উল্লেখ আছে। আমি সেই ক্ষমতা বলেই সভাপতি খন্দকার আবু জাফরের অনুপস্থিতিতে দলের সভাপতি তাই দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে সাদিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেনকে অব্যহতি দিয়ে হাজী সেলিম সরকারকে সাধারণ সম্পাদক পদে বহাল করা হয়েছে। সেখানে আমার ও সাধারণ সম্পাদকের স্বাক্ষর রয়েছে। তাই এটাকে অবৈধ ও গঠনতন্ত্র পরিপন্থি বলার কোন অবকাশ নেই।

এদিকে, সাধারণ সম্পাদক পদ ঘোষনার পর সংবাদ প্রকাশের পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে শুরু হয়েছে দু পক্ষের সমর্থকদের পাল্লাপাল্টি বক্তব্য। যেখানে একে অপর পক্ষকে হেয় প্রতিপন্ন করেও স্ট্যাটাস দিয়েছেন। অপরদিকে, উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর ও স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন. নিউজ সোনারগাঁ২৪.কমের নিউজে দেখলাম সাদীপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাঃ সম্পাদক আমির হোসেনকে বাদ দিয়ে সেলিম সরকারকে সাঃ সম্পাদক হিসেবে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে রিয়াজউদ্দীন আহম্মদ অনুমোদন দিয়েছে।

যা সাংগঠনিক নিয়মনীতির পরিপন্থি। তাছাড়া তাকে কেউ ভারপ্রাপ্ত হিসেবে নিয়োগও দেয়নি। সুতরাং তার দেয়া নিয়োগ অবৈধ। কারণ আমি সভাপতি হিসেবে সাদীপুরের কোন কমিটিতে রদবদল বা কাউকে বাদও দিইনি।এ কারণে নিউজ সোনারগাঁ২৪.কমের নিউজ এর বিষয় সম্পর্কে তীব্র প্রতিবাদ করছি। এবংসঠিক সংবাদ প্রকাশের জন্য অনুরোধ করা হলো।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution