• রাত ৩:৪৫ মিনিট রবিবার
  • ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
মেঘনা সেতু ফুট ওভারব্রিজের রেলিংয়ের সাপোর্টিং খুটি কেটে নিলো সওজের কর্মীরা সোনারগাঁয়ে স্মার্ট লুকস জেন্টস পার্লার এন্ড স্পা সেন্টার উদ্বোধন সোনারগাঁ সরকারী ডিগ্রী কলেজের হিসাব রক্ষককে পিটিয়ে আহত সোনারগাঁয়ে অবৈধ গ্যাস বোতলজাত করার সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ১ ব্যক্তির মৃত্যু হঠাৎ ওসমান শিবিরে ধাক্কা সোনারগাঁও পৌরসভায় বৃদ্ধ শ্বশুরকে কুপিয়ে জখম করলো ছেলের বউ আমার দেয়ার কিছু নেই কিন্তু আপনাদের নেয়ার অনেক কিছু আছে..এমপি কায়সার হাসনাত আদমপুর বাজারে হাটার রাস্তা সরু করে অবৈধ দোকান নির্মাণ আনন্দবাজার হাটের ইজারা পেলেন প্যানেল চেয়ারম্যান নবী হোসেন সোনারগাঁয়ে ৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার কাঁচপুরে গ্রেপ্তার এড়াতে ৬ তলা থেকে লাফিয়ে পড়লেন যুবক জামপুরে মাহফুজুর রহমান কালামের উঠান বৈঠক সোনারগাঁয়ের কান্দারগাঁয়ে ১২ বছরে ৪ খুন, আহত-৫০ এলাকা ছাড়া ৫০ পরিবার পিরোজপুর কান্দারগাঁয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১ জনকে কুপিয়ে হত্যা জনগণের দোয়া চেয়ে গণসংযোগ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ আলী হায়দার এসএসসি পরীক্ষার্থী অভিভাবকদের বসার জন্য সোহাগ রনি’র ছাউনী নির্মাণ এসএসসি পরীক্ষার্থী অভিভাবকদের বসার জন্য সোহাগ রনি’র ছাউনী নির্মাণ ১১ই মে তারিখে সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আহত যুবলীগ নেতা নাছিরের খোঁজ নেননি দলীয় নেতারা উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আলী হায়দার এর গণসংযোগ
হই হই করে হচ্ছে না সোনারগাঁ আওয়ামীলীগের সম্মেলন

হই হই করে হচ্ছে না সোনারগাঁ আওয়ামীলীগের সম্মেলন

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: গত বছর সোনারগাঁ উপজেলা বাদে নারায়ণগঞ্জের সব উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়েছে। ২৪ বছর ধরে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হচ্ছে না। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অনেকটাই নিস্ক্রিয় হয়ে পড়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল ১৯৯৭ সালে। ওই সম্মেলনে আবুল হাসনাতকে সভাপতি ও আবদুল হাই ভূঁইয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫১ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ২০০৪ সালে আবুল হাসনাত এবং ২০১৪ সালে আবদুল হাই ভূঁইয়া মারা যান। এ দুজন ছাড়া ৫১ সদস্যের কমিটির ২০ জন বিভিন্ন সময়ে মারা যান। দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মারা যাওয়ার পর বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে যথাক্রমে শামসুল ইসলাম ভূঁইয়া ও মাহফুজুর রহমান দায়িত্ব পালন করলেও বিভিন্ন পদে থাকা মৃত ২০ জনের বিপরীতে কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। ফলে পদগুলো এখন পর্যন্ত শূন্য রয়েছে। ২২ জনের বাইরে শুধু ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়া অন্য ২৭ জনের মধ্যে সহ-সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ছাড়া ২৬ জনই বয়সের কারণে অসুস্থ।

সর্বশেষ চলতি বছরের ১৫ জুলাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের একাংশের নেতারা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুল ইসলাম ভূঁইয়া ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমানকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে আট সদস্যের উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠান।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে গত ৩ আগস্ট উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা সভা করে আহ্বায়ক কমিটি প্রত্যাখ্যান করেন। পাশাপাশি আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের সোনারগাঁয়ে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে তাঁদের প্রতিহত করার ঘোষণা দেন। নেতা-কর্মীদের এ ঘোষণার পর কয়েকটি স্থানে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সোনারগাঁ উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি বাতিল করার জন্য জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগের একাংশের নেতারা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং ঢাকা বিভাগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় নেতারা জানান, দলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের না জানিয়ে নারায়ণগঞ্জের একজন প্রভাবশালী সাংসদের ইশারায় তাঁর অনুগতদের দিয়ে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া আহ্বায়ক কমিটি গঠন করার আগে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কোনো লিখিত ও মৌখিক নির্দেশ নেওয়া হয়নি। পরে ওবায়দুল কাদের আহ্বায়ক কমিটির কার্যক্রম বন্ধ রাখার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের নির্দেশ দেন।
এদিকে, নারায়ণগঞ্জ জেলার প্রভাবশালী এমপি ইশারায় দেয়া কমিটি টিকাতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করছেন এমপি ও তার অনুসারীরা। তারা এজন্য কৌশলে সাবেক এমপি কায়সারকে ম্যানেজ করে তাকে সভাপতি দেয়ার শর্তে কায়সার মোশারফ, কালাম ও দুলালের করা ঐক্য থেকে বের করে নেন। অপরদিকে, বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ও দুলালকে নিয়ে আরেকটি প্যানেল তৈরী করে কমিটি করার জন্য কেন্দ্রে দৌড়ঝাপ করছেন।

বর্তমানে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের কমিটি ভাগিয়ে নেয়ার জন্য দুটি কমিটিই কেন্দ্রে জমা পড়েছে। কেন্দ্র অবশ্য দু’পক্ষকেই এক করে কমিটি দেয়ার জন্য প্রস্তাব করেছেন। কিন্তু প্রভাবশালী এমপির ইশারায় করা কমিটিকে বহাল রাখলে প্রাণপন চেষ্টা করছেন। অপরপক্ষ চাইছে তারা দীর্ঘদিন উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। সেজন্য তারা চান তাদের মত ত্যাগী নেতাদের রেখে নব্য আওয়ামীলীগারদের বাদ দিয়ে কমিটি করতে। এছাড়া পদ নিয়ে কেউ কাউকে ছাড় দিতেও রাজি না হওয়ায় নারায়ণগঞ্জ জেলা সব কমিটি হওয়ার পরও ঝুঁলে আছে সোনারগাঁ উপজেলা কমিটি।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution