• বিকাল ৪:৪৬ মিনিট শনিবার
  • ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : গ্রীষ্মকাল
  • ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
হাসনাত পরিবারের প্রয়াত নেতাদের কবর জিয়ারত করলেন নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান তুমি যদি মুমিন হও তাহলে নিরাশ হইওনা. নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সোনারগাঁয়ে পরকীয়ার জেরে স্ত্রী হত্যা, স্বামী আটক সোনারগাঁয়ে তাঁত শ্রমিককে হত্যার ঘটনায় দুই সহোদর গ্রেপ্তার শম্ভুপুরার চরকিশোরগঞ্জ ও চরহোগরার জাল ভোট ঠেকাতে চ্যালেঞ্জের মুখে প্রশাসন ‘যারা আনারসে ভোট দিতে চান, কেন্দ্রে আইসেন, না দিতে চাইলে ঘরে থাইকেন’ বাবুল ওমরের হুমকি-ধামকিতে ভোটের মাঠে প্রভাব পড়েছে আনারস প্রতিকের সোনারগাঁয়ে চোরাই মোবাইলসহ সাতজন গ্রেফতার  আজ থেকে কালাম আমার পরিবারের একজন সদস্য আওয়ামীলীগ নেতা বিরুর বংশ উচ্ছেদের হুমকির ঘটনায় বাবুল ওমরকে শোকজ ঘোড়াকে জয়ী করতে নির্বাচনী মাঠে কাঁচপুরের খাঁন পরিবার ঘোড়ার পক্ষে যু্বলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেনের উঠান বৈঠক উপজেলা আওয়ামীলীগের নীতি নির্ধারক সোহাগ রনি? সোনারগাঁয়ে গত ৯ দিন ধরে দুই সহোদর নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে দুই কোটি টাকার ইয়াবা জব্দ, ১কারবারি গ্রেপ্তার আমান খাঁনের উদ্যোগে কাঁচপুরে কালামের নির্বাচনী প্রচারনা সভা আড়াইহাজারে নির্বাচনী আচারন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ হুইপ বাবুর বিরুদ্ধে আড়াইহাজারে নির্বাচনী আচারন বিধি লঙ্ঘন হুইপ বাবুর বিরুদ্ধে বন্দরের নতুন চেয়ারম্যান মাকসুদ চেয়ারম্যান নারায়ণগঞ্জ পল­ী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন
আসলেন, রোগীদের আপন করলেন অবশেষে সবাইকে কাঁদিয়ে বিদায় নিলেন

আসলেন, রোগীদের আপন করলেন অবশেষে সবাইকে কাঁদিয়ে বিদায় নিলেন

Logo


নিউজ সোনারগাঁ২৪ডটকমঃ বিদায় বেলায় রোগী, সহকর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদেরকে কাদিয়ে সোনারগাঁ ছাড়লেন সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হালিমা সুলতানা হক। ১ ডিসেম্বর দুপুরে সোনারগাঁয়ের কর্মস্থল থেকে আনুষ্ঠানিক বিদায় নেন হালিমা হক। এ সময় তাকে বিদায় জানাতে গিয়ে অনেকেই আবেগ আপ্লুত হয়ে পরেন। হালিমা সুলতানা হক পদোন্নতি পেয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে যোগ দিয়েছেন। সোনারগাঁয়ে ইউএইচও হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় তিনি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন। সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দীর্ঘদিনের অনিয়ম দূর করে পুরো হাসপাতালকে নিয়মের মধ্যে নিয়ে আসেন। নিজে প্রতিদিন সকাল ৮ টায় হাসপাতালে উপস্থিত থাকতেন ফলে অন্যান্য ডাক্তার ও স্টাফরা যথাসময়ে অফিসে আসতে বাধ্য হতো। ডাক্তারি পেশা যে সম্পূর্ণ সেবা মূলক পেশা তা ডা. হালিমা হক প্রমান করে গেছেন। প্রতিদিন তিনি নিজে শতাধিক রোগী দেখতেন যা এর আগে অন্য কোন ইউএইচও করেনি। রোগীদের সাথে চমৎকার ব্যবহারের জন্য তিনি সকল রোগীর কাছে ছিলেন বেশ জনপ্রিয়। তিনি অল্প দিনে সোনারগাঁয়ে সকলের প্রিয় পাত্রে পরিনত হন। রোগীদের সেবার জন্য নিজের টাকায় ঔষধ কিনে রোগীদের দিয়েছেন। রোগীরাা ধারাবাহিক ভাবে প্রয়োজনীয় সেবা পাওয়ার কারণে রোগীর সেবা গ্রহনের সংখ্যাও বেড়ে গিয়েছিল। আগে হাসপাতালে যেখানে সেবা গ্রহনকারী রোগীর সংখ্যা ছিল মাত্র এক দেড় শত সেখানে ডাক্তার হালিমা হকের সময় এ সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল প্রায় প্রতিদিন গড়ে আট শত। সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ইতিহাসে হালিমা হকের মতো দায়িত্বশীল ইউএইচও আর আসেনি বলে মনে করছেন এখানে সেবা নিতে আসা রোগীরা। তাই রোগীরাও তার বিদায়ের কথা শুনে আবেগ তাড়িত হয়েছেন। পাশাপাশি সংঙ্কা প্রকাশ করেছেন এটা ভেবে যে ডাক্তার হালিমা হকের মতো করে এ হাসপাতাল এখন আর পরিচালিত হবে কিনা? নতুন যিনি আসবন তিনি আদৌ তার মতো করে সাধারণ মানুষকে সেবা দেবেন কিনা? নাকি হাসপাতালের কর্যক্রম আবার আগের মতো অনিয়মে ভরে যাবে।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution