• সকাল ১০:৩৬ মিনিট শুক্রবার
  • ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  • ঋতু : বসন্তকাল
  • ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
এই মাত্র পাওয়া খবর :
সোনারগাঁয়ে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত বৃদ্ধ গ্রেপ্তার সোনারগাঁয়ে ৫দিন যাবত মোতালিব নামে এক ব্যক্তি নিখোঁজ সোনারগাঁয়ে ৫৫ কোটি টাকার নিষিদ্ধ জাল পুড়িয়ে দিল প্রশাসন ফুটওভার ব্রিজ হকারমুক্ত করতে নিজেই গেলেন এমপি কায়সার ফুটওভার ব্রিজে হকারমুক্ত করতে নিজে গেলেন এমপি কায়সার ফুটওভার ব্রিজে হকারমুক্ত করতে নিজে গেলেন এমপি কায়সার মানসম্মত শিক্ষার পাশাপাশি পারিবারিক ও সামাজিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে.. এমপি কায়সার সোনারগাঁয়ে পারভেজ হত্যার প্রধান আসামী পিতা-পুত্র গ্রেপ্তার কাঁচপুরে বিভিন্ন বে-সরকারী ক্লিনিকে ভ্রাম্যমান আদালতেরর অভিযান ভাইস চেয়ারম্যান পদে কাঁচপুর যুবলীগের সভাপতি মাহবুব পারভেজের গণসংযোগ সোনারগাঁয়ে স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তির বিরুদ্ধে সনমান্দী তে কালামের জনসংযোগ ও মতবিনিময় সভায় নেতাকর্মীর ঢল এমপি’র হস্তক্ষেপে হকারমুক্ত হলো ফুটওভার ব্রিজ সোনারগাঁয়ে অটোচালক রজ্জব হত্যার প্রধান আসামী আটক সোনারগাঁয়ের কাপড় ব্যবসায়ীর লাশ বুড়িগঙ্গায় উদ্ধার মেঘনা সেতু ফুট ওভারব্রিজের রেলিংয়ের সাপোর্টিং খুটি কেটে নিলো সওজের কর্মীরা সোনারগাঁয়ে স্মার্ট লুকস জেন্টস পার্লার এন্ড স্পা সেন্টার উদ্বোধন সোনারগাঁ সরকারী ডিগ্রী কলেজের হিসাব রক্ষককে পিটিয়ে আহত সোনারগাঁয়ে অবৈধ গ্যাস বোতলজাত করার সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ১ ব্যক্তির মৃত্যু হঠাৎ ওসমান শিবিরে ধাক্কা
ঈদকে সামনে রেখে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কমেছে রোগীর চাপ

ঈদকে সামনে রেখে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কমেছে রোগীর চাপ

Logo


নিউজ সোনারগাঁ টুয়েন্টিফোর ডটকম: আসন্ন ঈদুল ফেতরকে সামনে রেখে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কমেছে বর্হি বিভাগ ও জরুরী বিভাগে রোগীর চাপ। সেখানে অন্য দিন রোগীর চাপে হিমশিম খেতে হতো বর্হি ও জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত ডাক্তারদের সেখানে সকাল থেকেই দেখা গেছে নামে মাত্র কয়েকজন রোগী এসেছেন হাসপাতালে। তাদের মধ্যে অধিকাংশ গেছেন জ্বর ঠান্ডা নিয়ে হাসপাতালে।

সরেজমিনে বুধবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে নেই কোন রোগী আসা গাড়ীর চাপ। অন্য দিন হাসপাতালে প্রবেশ মুখে থাকে রোগীদের নিয়ে আসা বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের চাপ। কিন্তু আজ সকালটা ছিল একেবারেই ভিন্ন। হাসপাতাল ছিল শুনসান নিরবতা। হাসপাতালের ভেতরে গিয়ে দেখা যায় প্রতিদিনের মতো নেই ডায়গনিস্টিক সেন্টারের লোকজনদের আনাগোনা। নেই কোন ঔষুধ কোম্পানীর লোকদের আসা যাওয়া। অপরদিকে টিকেট কাউন্টারে গিয়ে দেখা যায় অন্য দিনের তুলনায় অলস সময় কাটাচ্ছেন দুজন ষ্টাফ। সেখানে দাড়িয়ে রোগীরা টিকেট সংগ্রহ করেন সেখানটাতে অন্যদিনে রোগীদের চাপে প্রবেশ করা দায় সেখানে নেই কোন রোগী বা রোগীর স্বজনদের ভীড়।

এদিকে বর্হি ও জরুরী বিভাগে গিয়ে দেখা যায়, ডিউটিরত ডাক্তাররাও অলস সময় কাটাচ্ছেন। তারা তাদের এসিস্টেন্টদের সাথে গল্প করে সময় পার করছেন।

এমন সময় কথা হয় টিকেট কাউন্টারে বসে থাকা স্টাফ আছিয়া আক্তারের সাথে তিনি জানান, শুক্রবার বর্হি বিভাগ বন্ধ ছাড়া প্রতিদিইন ৫/৬ শত রোগী আসে বর্হি বিভাগে রোগীদের চাপে টিকেট দিতে তাদের হিমশিম খেতে হয়। লাইনে দাড়িয়ে টিকেট নেয়ার নিয়ম থাকলেও কার আগে কে টিকেট নিবে তার জন্য শুরু হয় প্রতিযোগিতা। আবার অনেক সময় টিকেট কাটা নিয়ে রোগী ও তার স্বজনরা কথাকাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। কিন্তু গত দু’দিন ধরে নেই কোন রোগীর চাপ। দু’একজন করে আসেই ডাক্তার দেখিয়ে চলে যান।

এদিকে করোনা কালীন সময়ে প্রতিদিন ৪০/৫০ জন রোগী করোনার নমুনা পরিক্ষা করতে হাসপাতালে আসেন। কিন্তু গত দুদিন ধরে করোনা রোগীর সংখ্যাও নেই। যারা করোনার স্যাম্পল কালেকশন করেন তারাও একেবারেই অলস সময় কাটাচ্ছেন।


Logo

Website Design & Developed By MD Fahim Haque - Web Solution